রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:০৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, December 15, 2016 1:13 pm
A- A A+ Print

জানুয়ারির শুরু থেকে ওমানে বাংলাদেশী নতুন নারী গৃহকর্মীর বেতন দ্বিগুন হচ্ছে

44730_oman

ইংরেজি নতুন বছরের শুরু থেকে ওমানে বাংলাদেশী নতুন নারী গৃহকর্মীর সর্বনিম্ন বেতন দ্বিগুন হচ্ছে। আগামী ১লা জানুয়ারি থেকে ওমানে যেসব নাগরিকের মাসিক বেতন কমপক্ষে ১০০০ ওমানি রিয়াল শুধু তারাই বাংলাদেশ থেকে নারী গৃহকর্মী নিয়োগ করতে পারবেন। বাংলাদেশ সরকারের নতুন বিধিমালায় এসব কথা বলা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে টাইমস অব ওমান। এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সরকারের ওই বিধিমালা ওমানে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ থেকে যেকোনো নারী গৃহকর্মী নিয়োগ করতে হলে তাকে মাসে কমপক্ষে ৯০ রিয়াল বেতন দিতে হবে। কোনোক্রমেই এর চেয়ে কম হতে পারবে না বেতন। একই সঙ্গে গৃহকর্মীর ভ্রমণ খরচ বহন করতে হবে নিয়োগকারীকে। সঙ্গে থাকতে হবে ইন্সুরেন্স সুবিধা। ওই গাইডলাইনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের যেসব নারীর বয়স ২৫ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে নিয়োগকারী ও তার মধ্যে নিয়োগ সংক্রান্ত যে চুক্তি হবে তা সত্যায়িত হতে হবে ওমানে বাংলাদশে দূতাবাস দ্বারা। অভিবাসন অধিকারকর্মী মেরিনা সুলতানা ঢাকা থেকে বলেছেন, নতুন এই গাইডলাইন ওমানে বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মীর নিরাপদ অভিবাসনকে নিশ্চিত করবে। তিনি আরও বলেন, আমরা জানতে পেরেছি এমন নীতি নিয়ে আলোচনা হয়েছিল ২০১৫ সালে। এটা যে বাস্তবায়িত হচ্ছে এ বিষয়ে আমরা ছিলাম আশাবাদী। মানবসম্পদ, কর্মসংস্থা ও প্রশিক্ষিণ বিষয়ক ব্যুরোর (বিএমইটি) পরিসংখ্যান অনুযায়ী এ বছরের নভেম্বর পর্যন্ত ওমানে বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মীর সংখ্যা ১১৮৭৫। পারস্য উপসাগরীয় পরিষদভুক্ত (জিসিসি) দেশগুলোর মধ্যে সৌদি আরবের পর ওমান হলো বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মী নিয়োগের দিক দিয়ে দ্বিতীয়। সৌদি আরবে বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মী রয়েছেন ৬২৯১৬ জন। এ বছর মে মাসে সর্বপ্রথম টাইমস অব ওমান রিপোর্ট করে যে, বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মী নিয়োগের বিষয়ে নতুন নীতি গ্রহণ করছে বাংলাদেশ। নতুন এই নীতিতে বলা হয়েছে ওমানে যাওয়ার আগে একজন নারী গৃহকর্মীকে বিএমইটি আয়োজিত মৌলিক প্রশিক্ষণের সনদপত্র পেতে হবে। এক্ষেত্রে বিএমইটি থেকে ক্লিয়ারেন্স সনদ থাকতে হবে। সনদ থাকতে হবে যে, সংশ্লিষ্ট গৃহকর্মীর ওমানে যেতে কোনো আপত্তি নেই।

Comments

Comments!

 জানুয়ারির শুরু থেকে ওমানে বাংলাদেশী নতুন নারী গৃহকর্মীর বেতন দ্বিগুন হচ্ছেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

জানুয়ারির শুরু থেকে ওমানে বাংলাদেশী নতুন নারী গৃহকর্মীর বেতন দ্বিগুন হচ্ছে

Thursday, December 15, 2016 1:13 pm
44730_oman

ইংরেজি নতুন বছরের শুরু থেকে ওমানে বাংলাদেশী নতুন নারী গৃহকর্মীর সর্বনিম্ন বেতন দ্বিগুন হচ্ছে। আগামী ১লা জানুয়ারি থেকে ওমানে যেসব নাগরিকের মাসিক বেতন কমপক্ষে ১০০০ ওমানি রিয়াল শুধু তারাই বাংলাদেশ থেকে নারী গৃহকর্মী নিয়োগ করতে পারবেন। বাংলাদেশ সরকারের নতুন বিধিমালায় এসব কথা বলা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে টাইমস অব ওমান। এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সরকারের ওই বিধিমালা ওমানে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ থেকে যেকোনো নারী গৃহকর্মী নিয়োগ করতে হলে তাকে মাসে কমপক্ষে ৯০ রিয়াল বেতন দিতে হবে। কোনোক্রমেই এর চেয়ে কম হতে পারবে না বেতন। একই সঙ্গে গৃহকর্মীর ভ্রমণ খরচ বহন করতে হবে নিয়োগকারীকে। সঙ্গে থাকতে হবে ইন্সুরেন্স সুবিধা। ওই গাইডলাইনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের যেসব নারীর বয়স ২৫ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে নিয়োগকারী ও তার মধ্যে নিয়োগ সংক্রান্ত যে চুক্তি হবে তা সত্যায়িত হতে হবে ওমানে বাংলাদশে দূতাবাস দ্বারা। অভিবাসন অধিকারকর্মী মেরিনা সুলতানা ঢাকা থেকে বলেছেন, নতুন এই গাইডলাইন ওমানে বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মীর নিরাপদ অভিবাসনকে নিশ্চিত করবে। তিনি আরও বলেন, আমরা জানতে পেরেছি এমন নীতি নিয়ে আলোচনা হয়েছিল ২০১৫ সালে। এটা যে বাস্তবায়িত হচ্ছে এ বিষয়ে আমরা ছিলাম আশাবাদী। মানবসম্পদ, কর্মসংস্থা ও প্রশিক্ষিণ বিষয়ক ব্যুরোর (বিএমইটি) পরিসংখ্যান অনুযায়ী এ বছরের নভেম্বর পর্যন্ত ওমানে বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মীর সংখ্যা ১১৮৭৫। পারস্য উপসাগরীয় পরিষদভুক্ত (জিসিসি) দেশগুলোর মধ্যে সৌদি আরবের পর ওমান হলো বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মী নিয়োগের দিক দিয়ে দ্বিতীয়। সৌদি আরবে বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মী রয়েছেন ৬২৯১৬ জন। এ বছর মে মাসে সর্বপ্রথম টাইমস অব ওমান রিপোর্ট করে যে, বাংলাদেশী নারী গৃহকর্মী নিয়োগের বিষয়ে নতুন নীতি গ্রহণ করছে বাংলাদেশ। নতুন এই নীতিতে বলা হয়েছে ওমানে যাওয়ার আগে একজন নারী গৃহকর্মীকে বিএমইটি আয়োজিত মৌলিক প্রশিক্ষণের সনদপত্র পেতে হবে। এক্ষেত্রে বিএমইটি থেকে ক্লিয়ারেন্স সনদ থাকতে হবে। সনদ থাকতে হবে যে, সংশ্লিষ্ট গৃহকর্মীর ওমানে যেতে কোনো আপত্তি নেই।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X