বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:৩৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, November 6, 2016 9:41 pm
A- A A+ Print

জাবির হল চালুর ৩ মাস পেরিয়ে গেলেও হয়নি ডাইনিংয়ের ব্যবস্থা

160294_1

   
জাবি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনির্মিত সুফিয়া কামাল হল চালু হওয়ার পর প্রায় তিন মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো খাবারের জন্য নেই কোনো ডাইনিংয়ের ব্যবস্থা। নিজ হলে ডাইনিংয়ে খাবারের ব্যবস্থা না থাকায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে হলের প্রায় ৫ শতাধিক আবাসিক শিক্ষার্থীদের। সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, নির্ধারিত সময়ের প্রায় চার মাস পরে গত ১লা আগস্ট এ হলে ছাত্রীদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু হল চালু হলেও এখন পর্যন্ত ডাইনিংয়ে খাবারের ব্যবস্থা করতে পারেনি হল প্রশাসন।
ছাত্রীদের হলের আশেপাশে কোনো খাবারের দোকান না থাকায় ভোগান্তি বহুগুণে বেড়ে গেছে। কখনো অন্য হলে গিয়ে লাইনে দাড়িয়ে, কখনো বট তলায় গিয়ে খাবার খেতে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। অনেকে হল থেকে ১০-২০ টাকা রিকসা ভাড়া দিয়ে খাবার গ্রহণের স্থান বটতলায় এসে খাবার খেতে বাধ্য হচ্ছেন। এদিকে হলে ছাত্রীদের ক্যান্টিনে খাবারের ব্যবস্থা করা হলেও হয়নি দামের সুনিদিষ্ট কোনো তালিকা। ফলে খাবারের দাম লাগামহীন ভাবে বেড়ে যাওয়ায় একাধিক ছাত্রীর পক্ষে ক্যান্টিনে খাবার গ্রহণ প্রায় অসম্ভব হয়ে দাড়িয়েছে।   কয়েকজন শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পার্শ্ববর্তী প্রীতিলতা হলে যেখানে ভাত ৪ টাকা, সবজি ৫ টাকা, মাছ ১৫ টাকা এবং ভাজি ৫ টাকা সেখানে সুফিয়া কামাল হলে ভাত ৬ টাকা, সবজি ১০ টাকা, মাছ ২০ টাকা এবং ভাজি ৮ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে।   ভুক্তভোগী দ্বিতীয় বর্ষের একাধিক ছাত্রী নাম প্রকাশ না করার শর্তে অভিযোগ করে বলেন, আমাদের ক্যান্টিনে অন্য হলের তুলনায় নিম্নমানের খাবার পরিবেশন করা হয়। দাম প্রচুর কিন্তু খাবারে মান ভালো না। খাবার দেখলে অনেক সময় রুচি বন্ধ হয়ে যায়। খাবারের জন্য প্রায় সব হলে ডাইনিংয়ের ব্যবস্থা থাকলেও কেবল মাত্র আমাদের হলে সে ধরনের কোনো ব্যবস্থা এখনো গ্রহণ করা হয়নি। ক্যান্টিনে খেতে গেলে অস্বাভাবিক দাম নিচ্ছে যা আমার পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়।   অন্য এক শিক্ষার্থী বলেন, অনেক সময় পরীক্ষার আগের রাতে সময় নষ্ট না করে আমরা অনেকে না খেয়ে থাকতে বাধ্য হই। কেননা খাবার খেতে চাইলে হয় অন্য হলে না হয় বট তলায় (নির্দিষ্ট খাবারের স্থান) যেতে হয়। যা অনেক সময়ের ব্যপার। এ বিষয়ে হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. এস. এম. বদিয়ার রহমান বলেন, ‘গ্যাসের লাইন না আসায় আমরা এখনো ডাইনিং চালু করতে পারছি না। আমরা এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে বলেছি। আশা করছি অতিদ্রুত ডাইনিং চালু করতে পারবো।’ ক্যান্টিনে খাবারের দাম বেশি নেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘হলে এখনো গ্যাস না আসায় লাকড়ি দিয়ে রান্না করতে হচ্ছে, যা মোটামুটি ব্যয়বহুল। আর এ কারণে অন্যান্য হলের তুলনায় খাবারের দাম একটু বেশি নেয়া হচ্ছে। গ্যাসের লাইন আসলে ডাইনিং চালু করার পাশাপাশি ক্যান্টিনের খাবারের দামও স্বাভাবিক রাখা হবে।’

Comments

Comments!

 জাবির হল চালুর ৩ মাস পেরিয়ে গেলেও হয়নি ডাইনিংয়ের ব্যবস্থাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

জাবির হল চালুর ৩ মাস পেরিয়ে গেলেও হয়নি ডাইনিংয়ের ব্যবস্থা

Sunday, November 6, 2016 9:41 pm
160294_1

 

 

জাবি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনির্মিত সুফিয়া কামাল হল চালু হওয়ার পর প্রায় তিন মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো খাবারের জন্য নেই কোনো ডাইনিংয়ের ব্যবস্থা।

নিজ হলে ডাইনিংয়ে খাবারের ব্যবস্থা না থাকায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে হলের প্রায় ৫ শতাধিক আবাসিক শিক্ষার্থীদের।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, নির্ধারিত সময়ের প্রায় চার মাস পরে গত ১লা আগস্ট এ হলে ছাত্রীদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু হল চালু হলেও এখন পর্যন্ত ডাইনিংয়ে খাবারের ব্যবস্থা করতে পারেনি হল প্রশাসন।

ছাত্রীদের হলের আশেপাশে কোনো খাবারের দোকান না থাকায় ভোগান্তি বহুগুণে বেড়ে গেছে। কখনো অন্য হলে গিয়ে লাইনে দাড়িয়ে, কখনো বট তলায় গিয়ে খাবার খেতে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। অনেকে হল থেকে ১০-২০ টাকা রিকসা ভাড়া দিয়ে খাবার গ্রহণের স্থান বটতলায় এসে খাবার খেতে বাধ্য হচ্ছেন।

এদিকে হলে ছাত্রীদের ক্যান্টিনে খাবারের ব্যবস্থা করা হলেও হয়নি দামের সুনিদিষ্ট কোনো তালিকা। ফলে খাবারের দাম লাগামহীন ভাবে বেড়ে যাওয়ায় একাধিক ছাত্রীর পক্ষে ক্যান্টিনে খাবার গ্রহণ প্রায় অসম্ভব হয়ে দাড়িয়েছে।

 

কয়েকজন শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পার্শ্ববর্তী প্রীতিলতা হলে যেখানে ভাত ৪ টাকা, সবজি ৫ টাকা, মাছ ১৫ টাকা এবং ভাজি ৫ টাকা সেখানে সুফিয়া কামাল হলে ভাত ৬ টাকা, সবজি ১০ টাকা, মাছ ২০ টাকা এবং ভাজি ৮ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে।

 

ভুক্তভোগী দ্বিতীয় বর্ষের একাধিক ছাত্রী নাম প্রকাশ না করার শর্তে অভিযোগ করে বলেন, আমাদের ক্যান্টিনে অন্য হলের তুলনায় নিম্নমানের খাবার পরিবেশন করা হয়। দাম প্রচুর কিন্তু খাবারে মান ভালো না। খাবার দেখলে অনেক সময় রুচি বন্ধ হয়ে যায়।

খাবারের জন্য প্রায় সব হলে ডাইনিংয়ের ব্যবস্থা থাকলেও কেবল মাত্র আমাদের হলে সে ধরনের কোনো ব্যবস্থা এখনো গ্রহণ করা হয়নি। ক্যান্টিনে খেতে গেলে অস্বাভাবিক দাম নিচ্ছে যা আমার পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়।

 

অন্য এক শিক্ষার্থী বলেন, অনেক সময় পরীক্ষার আগের রাতে সময় নষ্ট না করে আমরা অনেকে না খেয়ে থাকতে বাধ্য হই। কেননা খাবার খেতে চাইলে হয় অন্য হলে না হয় বট তলায় (নির্দিষ্ট খাবারের স্থান) যেতে হয়। যা অনেক সময়ের ব্যপার।

এ বিষয়ে হল প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. এস. এম. বদিয়ার রহমান বলেন, ‘গ্যাসের লাইন না আসায় আমরা এখনো ডাইনিং চালু করতে পারছি না। আমরা এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে বলেছি। আশা করছি অতিদ্রুত ডাইনিং চালু করতে পারবো।’

ক্যান্টিনে খাবারের দাম বেশি নেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘হলে এখনো গ্যাস না আসায় লাকড়ি দিয়ে রান্না করতে হচ্ছে, যা মোটামুটি ব্যয়বহুল। আর এ কারণে অন্যান্য হলের তুলনায় খাবারের দাম একটু বেশি নেয়া হচ্ছে। গ্যাসের লাইন আসলে ডাইনিং চালু করার পাশাপাশি ক্যান্টিনের খাবারের দামও স্বাভাবিক রাখা হবে।’

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X