সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:২৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, January 10, 2017 11:24 am
A- A A+ Print

জামাতাকে উপদেষ্টা করছেন ট্রাম্প

16

জামাতা জ্যারেড কুশনারকে হোয়াইট হাউসের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দিতে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গতকাল সোমবার নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের ট্রাম্প টাওয়ারে এ কথা জানান হোয়াইট হাউসের ক্ষমতার পালাবদলের তত্ত্বাবধানকারী ট্রাম্পের সহযোগীরা। বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে ট্রাম্প সরাসরি কিছু বলেননি। তবে কাল বুধবারের নির্ধারিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বিস্তারিত বলবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। ৩৫ বছর বয়সী কুশনার ট্রাম্পের জ্যেষ্ঠ কন্যা ইভাঙ্কার স্বামী। ২০০৯ সালে তাঁরা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। কুশনার নিউইয়র্ক অবজারভার পত্রিকার প্রকাশক এবং শ্বশুর ট্রাম্পের মতো একজন রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী। ১৯৬৭ সালে মার্কিন কংগ্রেস প্রণীত আইন অনুযায়ী, আত্মীয়স্বজনকে নিজের অধীনে কাজকর্মে নিয়োগে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ‘অ্যান্টি নেপটিজম’ নামে পরিচিত এ আইনের ব্যাখ্যা নিয়ে বহু মত রয়েছে। এর আগেও হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্টের আত্মীয়স্বজনদের কাজ করার নজির রয়েছে। সবশেষ ১৯৯৩ সালে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন তাঁর স্ত্রী হিলারি ক্লিনটনকে স্বাস্থ্যসেবা সংস্কার টাস্কফোর্সের প্রধান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিলেন। তখনো হোয়াইট হাউসের প্রেসিডেন্টের এ ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা ক্ষমতা নিয়ে বিতর্ক উঠেছিল। প্রায় দুই যুগ পর ট্রাম্প ও তাঁর জামাতা কুশনারকে নিয়ে একই ধরনের বিতর্ক শুরু হয়েছে। নিউইয়র্ক টাইমসের মতো প্রভাবশালী পত্রিকা তাদের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে ট্রাম্প পরিবারের ব্যবসা এবং হোয়াইট হাউসের ক্ষমতার স্বার্থের সংঘাত তুলে ধরেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গোল্ডম্যান সেক্সের প্রেসিডেন্ট গ্যারি কহনকে ট্রাম্প প্রশাসনে নেওয়ার ব্যাপারে কুশনারের ভূমিকা রয়েছে। কুশনারের কোম্পানিতে গ্যারি কহনের আর্থিক বিনিয়োগ রয়েছে। ইউএস টুডে পত্রিকাকে দেওয়া বক্তব্যে ট্রাম্পের অন্যতম সহকারী ক্যালিয়েন কনওয়ে বলেছেন, আইন পর্যালোচনা করলে দেখা যাবে, হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্ট যাকে ইচ্ছা তাকে যেকোনো দায়িত্বে নিয়োগ দিতে পারবেন। কুশনারের আইনজীবী জেমি গৌরলিক বলেছেন, নৈতিকতা-বিষয়ক কমিটির সমস্ত নিয়মনীতির মধ্য দিয়ে দায়িত্ব পালনে প্রস্তুতি নিচ্ছেন কুশনার। এরই মধ্যে তিনি ব্যবসা-বাণিজ্য থেকে নিজের নাম সরিয়ে নিচ্ছেন। কুশনারের বাবা চার্চ কুশনার একজন বড় মাপের রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ছিলেন। কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে তিনি দীর্ঘদিন কারাবন্দী ছিলেন। ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ২০ জানুয়ারি শপথ নিচ্ছেন। তাঁর অভিষেক অনুষ্ঠান নিয়ে ইতিমধ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে হলিউডের বড় বড় তারকাও যোগ দিচ্ছেন।

Comments

Comments!

 জামাতাকে উপদেষ্টা করছেন ট্রাম্পAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

জামাতাকে উপদেষ্টা করছেন ট্রাম্প

Tuesday, January 10, 2017 11:24 am
16

জামাতা জ্যারেড কুশনারকে হোয়াইট হাউসের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দিতে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

গতকাল সোমবার নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের ট্রাম্প টাওয়ারে এ কথা জানান হোয়াইট হাউসের ক্ষমতার পালাবদলের তত্ত্বাবধানকারী ট্রাম্পের সহযোগীরা।

বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে ট্রাম্প সরাসরি কিছু বলেননি। তবে কাল বুধবারের নির্ধারিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বিস্তারিত বলবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

৩৫ বছর বয়সী কুশনার ট্রাম্পের জ্যেষ্ঠ কন্যা ইভাঙ্কার স্বামী। ২০০৯ সালে তাঁরা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।

কুশনার নিউইয়র্ক অবজারভার পত্রিকার প্রকাশক এবং শ্বশুর ট্রাম্পের মতো একজন রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী।

১৯৬৭ সালে মার্কিন কংগ্রেস প্রণীত আইন অনুযায়ী, আত্মীয়স্বজনকে নিজের অধীনে কাজকর্মে নিয়োগে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ‘অ্যান্টি নেপটিজম’ নামে পরিচিত এ আইনের ব্যাখ্যা নিয়ে বহু মত রয়েছে।

এর আগেও হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্টের আত্মীয়স্বজনদের কাজ করার নজির রয়েছে। সবশেষ ১৯৯৩ সালে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন তাঁর স্ত্রী হিলারি ক্লিনটনকে স্বাস্থ্যসেবা সংস্কার টাস্কফোর্সের প্রধান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিলেন। তখনো হোয়াইট হাউসের প্রেসিডেন্টের এ ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা ক্ষমতা নিয়ে বিতর্ক উঠেছিল। প্রায় দুই যুগ পর ট্রাম্প ও তাঁর জামাতা কুশনারকে নিয়ে একই ধরনের বিতর্ক শুরু হয়েছে।

নিউইয়র্ক টাইমসের মতো প্রভাবশালী পত্রিকা তাদের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে ট্রাম্প পরিবারের ব্যবসা এবং হোয়াইট হাউসের ক্ষমতার স্বার্থের সংঘাত তুলে ধরেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গোল্ডম্যান সেক্সের প্রেসিডেন্ট গ্যারি কহনকে ট্রাম্প প্রশাসনে নেওয়ার ব্যাপারে কুশনারের ভূমিকা রয়েছে। কুশনারের কোম্পানিতে গ্যারি কহনের আর্থিক বিনিয়োগ রয়েছে।

ইউএস টুডে পত্রিকাকে দেওয়া বক্তব্যে ট্রাম্পের অন্যতম সহকারী ক্যালিয়েন কনওয়ে বলেছেন, আইন পর্যালোচনা করলে দেখা যাবে, হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্ট যাকে ইচ্ছা তাকে যেকোনো দায়িত্বে নিয়োগ দিতে পারবেন।

কুশনারের আইনজীবী জেমি গৌরলিক বলেছেন, নৈতিকতা-বিষয়ক কমিটির সমস্ত নিয়মনীতির মধ্য দিয়ে দায়িত্ব পালনে প্রস্তুতি নিচ্ছেন কুশনার। এরই মধ্যে তিনি ব্যবসা-বাণিজ্য থেকে নিজের নাম সরিয়ে নিচ্ছেন।

কুশনারের বাবা চার্চ কুশনার একজন বড় মাপের রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ছিলেন। কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে তিনি দীর্ঘদিন কারাবন্দী ছিলেন।

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ২০ জানুয়ারি শপথ নিচ্ছেন। তাঁর অভিষেক অনুষ্ঠান নিয়ে ইতিমধ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে হলিউডের বড় বড় তারকাও যোগ দিচ্ছেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X