বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:৪৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, January 5, 2017 10:42 am
A- A A+ Print

জামিনে মুক্তি পেলেন জিকে গউছ

%e0%a7%a9

হবিগঞ্জ: দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে দুই বছর পর জামিনে মুক্তিলাভ করেছেন হবিগঞ্জ পৌরসভার সাময়িক বরখাস্ত মেয়র জিকে গউছ। বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি। জিকে গউছের জামিনে মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. ছগির মিয়া। তিনি বলেন, সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালত থেকে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে বুধবার বিকেলে তার মুক্তির আদেশটি আসে। তারপর নিয়মিত প্রক্রিয়া শেষে জিকে গউছকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়া হয়। বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে জেল থেকে বেরিয়ে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জিকে গউছ বলেন, আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে আইনী প্রক্রিয়ায় জামিনে মুক্তি পেয়েছি। তিনি জানান, জেল থেকে বের হয়ে তিনি সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বাসায় যান। পরে সেখান থেকে সিলেটের হযরত শাহজালাল (রহ.) পরে হযরত শাহপরান (রহ.) এর মাজার জিয়ারত শেষে হবিগঞ্জে ফিরে প্রথমে মা-বাবার কবর জিয়ারত করে এরপর বাসায় ফিরে আসেন। এর আগে জিকে গউছ মুক্তি পেতে যাচ্ছেন এমন সংবাদে বিকেল থেকেই সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে ভিড় করেন গণমাধ্যমকর্মী ও জিকে গউছের সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষিরা। এমনকি হবিগঞ্জ থেকেই বিএনপির অনেক নেতা-কর্মী, আত্মীয়স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষি সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে গিয়ে ভিড় করেন। কারাগার থেকে বের হওয়ার সাথে সাথেই তাকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন নেতাকর্মীরা। ২০১৪ সালের ২৮ ডিসেম্বর সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলায় হবিগঞ্জ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন জিকে গউছ। এরপর থেকেই তিনি হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার পরে সিলেট কারাগারে বন্দি ছিলেন। ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভা শেষে ফেরার পথে গ্রেনেড হামলায় নিহত হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়াসহ পাঁচ জন। এ ঘটনায় হত্যা এবং বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুইটি মামলা করা হয়। ২০১৪ সালের ১০ ডিসেম্বর জিকে গউছ, আরিফুল হক চৌধুরী এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীসহ ১১ জনকে অভিযুক্ত করে হবিগঞ্জে আদালতে সম্পূরক চার্জশিট দেয় সিআইডি পুলিশ।
 

Comments

Comments!

 জামিনে মুক্তি পেলেন জিকে গউছAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

জামিনে মুক্তি পেলেন জিকে গউছ

Thursday, January 5, 2017 10:42 am
%e0%a7%a9

হবিগঞ্জ: দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে দুই বছর পর জামিনে মুক্তিলাভ করেছেন হবিগঞ্জ পৌরসভার সাময়িক বরখাস্ত মেয়র জিকে গউছ। বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি।

জিকে গউছের জামিনে মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. ছগির মিয়া।

তিনি বলেন, সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালত থেকে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে বুধবার বিকেলে তার মুক্তির আদেশটি আসে। তারপর নিয়মিত প্রক্রিয়া শেষে জিকে গউছকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়া হয়।

বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে জেল থেকে বেরিয়ে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জিকে গউছ বলেন, আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে আইনী প্রক্রিয়ায় জামিনে মুক্তি পেয়েছি।

তিনি জানান, জেল থেকে বের হয়ে তিনি সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বাসায় যান। পরে সেখান থেকে সিলেটের হযরত শাহজালাল (রহ.) পরে হযরত শাহপরান (রহ.) এর মাজার জিয়ারত শেষে হবিগঞ্জে ফিরে প্রথমে মা-বাবার কবর জিয়ারত করে এরপর বাসায় ফিরে আসেন।

এর আগে জিকে গউছ মুক্তি পেতে যাচ্ছেন এমন সংবাদে বিকেল থেকেই সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে ভিড় করেন গণমাধ্যমকর্মী ও জিকে গউছের সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষিরা। এমনকি হবিগঞ্জ থেকেই বিএনপির অনেক নেতা-কর্মী, আত্মীয়স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষি সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে গিয়ে ভিড় করেন। কারাগার থেকে বের হওয়ার সাথে সাথেই তাকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন নেতাকর্মীরা।

২০১৪ সালের ২৮ ডিসেম্বর সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলায় হবিগঞ্জ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন জিকে গউছ। এরপর থেকেই তিনি হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার পরে সিলেট কারাগারে বন্দি ছিলেন।

২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভা শেষে ফেরার পথে গ্রেনেড হামলায় নিহত হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়াসহ পাঁচ জন। এ ঘটনায় হত্যা এবং বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুইটি মামলা করা হয়।

২০১৪ সালের ১০ ডিসেম্বর জিকে গউছ, আরিফুল হক চৌধুরী এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীসহ ১১ জনকে অভিযুক্ত করে হবিগঞ্জে আদালতে সম্পূরক চার্জশিট দেয় সিআইডি পুলিশ।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X