সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:০৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, October 27, 2016 7:49 pm
A- A A+ Print

ঝিঁঝিঁ পোকা রপ্তানি করবে থাইল্যান্ড

cricket1477575286

ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) দেশগুলোতে ঝিঁঝিঁ পোকাসহ বিভিন্ন ধরণের পোকামাকড় রপ্তানি করতে যাচ্ছে থাইল্যান্ড। খাদ্যপণ্য হিসেবে এগুলো রপ্তানি করা হবে বলে বৃহস্পতিবার দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।
  থাইল্যান্ড বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় পোকামাকড়ভোগী দেশ। এই দেশটিতে প্রায় ২০ হাজার পোকামাকড় উৎপাদনকারী খামার রয়েছে। এসব পোকামাকড় প্রক্রিয়াজাত করে বিক্রি হয়।   ইইউ’র নতুন একটি আইনের বদৌলতে ২০১৮ সাল থেকে মানব খাদ্যপণ্য হিসেবে ইউরোপে পোকামাকড় রপ্তানির সুযোগ উন্মোচিত হয়েছে থাইল্যান্ডের জন্য। অবশ্য বেলজিয়াম, হল্যান্ড ও ডেনমার্কে আগে থেকেই এ ধরণের পণ্য বিক্রির অনুমতি রয়েছে।   প্রক্রিয়াজাত পোকামাকড়ের যেসব থাই পণ্য ইউরোপের বাজারে প্রবেশ করতে পারে এর মধ্যে দুটি হচ্ছে বাগসলুটেলি পাস্তা ও হাই সো। বাগসলুটেলি পাস্তার উপাদান হিসেবে রয়েছে ঝিঁঝিঁ পোকা গুড়া বা ময়দা। আর হা সো হচ্ছে ভাজা রেশম পোকা। থাইল্যান্ড ছাড়াও মিয়ানমার, কম্বোডিয়া ও লাওসে এসব পণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।   বাগসলুটেলির সহ প্রতিষ্ঠাতা মাসিমো রেভেরবেরি বলেছেন, ‘ ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে ইইউর নতুন খাদ্যপণ্য আইন কার্যকর হবে। আশা করছি ওই বছরই ইউরোপের বাজারে কিছু পোকা পাঠানো যাবে।’   প্রসঙ্গত, জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি বিষয়ক সংস্থা এফএও বেশ কয়েক বছর ধরেই পোকামাকড় খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। সংস্থাটির মতে ঝিঁঝিঁ পোকা ও ঘাস ফড়িংয়ের মতো পোকা প্রচুর প্রোটিন, ভিটামিন ও মিনারেলের উৎস।  

Comments

Comments!

 ঝিঁঝিঁ পোকা রপ্তানি করবে থাইল্যান্ডAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ঝিঁঝিঁ পোকা রপ্তানি করবে থাইল্যান্ড

Thursday, October 27, 2016 7:49 pm
cricket1477575286

ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) দেশগুলোতে ঝিঁঝিঁ পোকাসহ বিভিন্ন ধরণের পোকামাকড় রপ্তানি করতে যাচ্ছে থাইল্যান্ড। খাদ্যপণ্য হিসেবে এগুলো রপ্তানি করা হবে বলে বৃহস্পতিবার দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

 

থাইল্যান্ড বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় পোকামাকড়ভোগী দেশ। এই দেশটিতে প্রায় ২০ হাজার পোকামাকড় উৎপাদনকারী খামার রয়েছে। এসব পোকামাকড় প্রক্রিয়াজাত করে বিক্রি হয়।

 

ইইউ’র নতুন একটি আইনের বদৌলতে ২০১৮ সাল থেকে মানব খাদ্যপণ্য হিসেবে ইউরোপে পোকামাকড় রপ্তানির সুযোগ উন্মোচিত হয়েছে থাইল্যান্ডের জন্য। অবশ্য বেলজিয়াম, হল্যান্ড ও ডেনমার্কে আগে থেকেই এ ধরণের পণ্য বিক্রির অনুমতি রয়েছে।

 

প্রক্রিয়াজাত পোকামাকড়ের যেসব থাই পণ্য ইউরোপের বাজারে প্রবেশ করতে পারে এর মধ্যে দুটি হচ্ছে বাগসলুটেলি পাস্তা ও হাই সো। বাগসলুটেলি পাস্তার উপাদান হিসেবে রয়েছে ঝিঁঝিঁ পোকা গুড়া বা ময়দা। আর হা সো হচ্ছে ভাজা রেশম পোকা। থাইল্যান্ড ছাড়াও মিয়ানমার, কম্বোডিয়া ও লাওসে এসব পণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

 

বাগসলুটেলির সহ প্রতিষ্ঠাতা মাসিমো রেভেরবেরি বলেছেন, ‘ ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে ইইউর নতুন খাদ্যপণ্য আইন কার্যকর হবে। আশা করছি ওই বছরই ইউরোপের বাজারে কিছু পোকা পাঠানো যাবে।’

 

প্রসঙ্গত, জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি বিষয়ক সংস্থা এফএও বেশ কয়েক বছর ধরেই পোকামাকড় খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। সংস্থাটির মতে ঝিঁঝিঁ পোকা ও ঘাস ফড়িংয়ের মতো পোকা প্রচুর প্রোটিন, ভিটামিন ও মিনারেলের উৎস।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X