সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৭:২৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, January 23, 2017 8:21 pm
A- A A+ Print

টেস্ট সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

32

সিরিজের শেষ টেস্টে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করলো নিউজিল্যান্ড। এর আগে এই সফরে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ হয় টাইগারা। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে তাসের ঘরের মত ভেঙ্গে পড়ে তামিম বাহিনী। ৯ম উইকেটে দুই পেসার তাসকিন ও কামরুলের মান বাঁচানো জুটিতে ১০৯ রানের লক্ষ্য দিয়ে ছিল। কিন্তু মাত্র ১৮.৪ ওভারেই এক উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌছে যায় কিউইরা। টম ল্যাথাম ৪১ ও ডি গ্র্যান্ডহোম ৩৩ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। অথচ এই উইকেটে একই দিন ১৭৩ রানে অল আউট হয় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। ১১৫ রানে ৮ উইকেট হারানোর পর ক্রিজে আসেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। তাকে নিয়ে দলে হাল ধরেন তাসকিন আহমেদ। এরপর ধীরে ধীরে কপালে ভাঁজ পড়তে শুরু করে নিউজিল্যান্ড অধিনায়কের। টাইগারদের ব্যাটিং মেরুদন্ড গুড়িয়ে দেয়ার পর এমন প্রতিরোধ আশাই করেননি তিনি। দ্বিতীয় উইকেটে বাংলাদেশের জুটি ছিল সৌম্য সরকার ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ৪১ রানের। কিন্তু দুই পেসার টপ ও মিডল অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের ছাড়িয়ে গেলেন। গড়লেন ৯ম উইকেটে ৫১ রানের জুটি। সেই সঙ্গে দলকে বাঁচালেন নিশ্চিত লজ্জার হাত থেকে। তাদের ব্যাটিংয়ে লজ্জা থেকে বাঁচলেও এই টেস্টে হার যেন নিশ্চিত তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। তাসকিন ৩৩ রানে আউট হলেও শেষ পর্যন্ত কামরুল অপরাজিত থাকেন ২৫ রানে। এই দু’জনের সাহসী ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের স্কোর বোর্ডে জমা পড়ে ৫২.৫ ওভারে সবকটি উইকেট জারিয়ে ১৭৩ রান। সেই সুবাদে নিউজিল্যান্ডের সামনে জয়ের লক্ষ্য মাত্র ১০৯ রানের। ওয়েলিংটন টেস্টের চতুর্থ দিন দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। স্কোর বোর্ডে ১০০ রান উঠতেই হারিয়েছে ৭ উইকেট। এর আগে তামিম ইকবাল বাহিনীর প্রথম ইনিংসে করা ২৮৯ রানের জবাবে নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে সংগ্রহ ৩৫৪ রান। দ্বিতীয় দিন ২৬০ রান করে তারা হারিয়েছিল ৭ উইকেট। তৃতীয় দিন বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়াতে চতুর্থ ব্যাট করতে নামে ছিল চাপে থাকা কিউইরা। কিন্তু ব্যাট হাতে নেমে সেই চাপ উড়িয়ে দিয়ে নিকলসের ৯৮ রানে টাইগারদের টপকে ৬৫ রানের লিড নেয় ব্ল্যাক ক্যাপসরা। দলের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নূরুল হাসান সোহান বলেছিলেন, দুই দিনে অনেক কিছুই সম্ভব। কিন্তু নিজেদের বাজে ব্যাটিংয়ে সেই সম্ভবকে অসম্ভব করে দিয়েছে তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার ও সাকিব আল হাসানরা। পিছিয়ে থেকে থেকে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১৭ রানের সময় ৮ রান করে আউট হন অধিনায়ক তামিম। এরপর সৌম্য ৩৬, সহ অধিনায়ক সাকিব ৮, মাহমুদুল্লাহ ৩৮, সাব্বির রহমান ও নূরুল হাসান ০ রান করে আউট হলে গুড়িয়ে যায় বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের মেরুদন্ড। শেষ পর্যন্ত ৬০ বলে ১২ রান করে আউট হন তরুণ নাজমুল হোসেন শান্ত। লম্বা সময় ধরে তিনি চেষ্টা করলেও কেউ থাকে সঙ্গ দিতে পারেনি। এরপর তাসকিন ও মিরাজ মিলে কিছুটা চেষ্টা চালিয়ে যান। কিন্তু মাত্র ৪ রানের অবদান রেখে আউট হন মিরাজও। ৮ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১১৫ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে টাইগারদের লিড মাত্র ৫০ রানের, হাতে আছে শেষ দুই উইকেট। দলের হাল ধরেছিলেন তাসকিন ও কামরুল ইসলাম।

Comments

Comments!

 টেস্ট সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

টেস্ট সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

Monday, January 23, 2017 8:21 pm
32

সিরিজের শেষ টেস্টে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করলো নিউজিল্যান্ড। এর আগে এই সফরে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজেও হোয়াইটওয়াশ হয় টাইগারা। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে তাসের ঘরের মত ভেঙ্গে পড়ে তামিম বাহিনী। ৯ম উইকেটে দুই পেসার তাসকিন ও কামরুলের মান বাঁচানো জুটিতে ১০৯ রানের লক্ষ্য দিয়ে ছিল। কিন্তু মাত্র ১৮.৪ ওভারেই এক উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌছে যায় কিউইরা। টম ল্যাথাম ৪১ ও ডি গ্র্যান্ডহোম ৩৩ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন। অথচ এই উইকেটে একই দিন ১৭৩ রানে অল আউট হয় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা।
১১৫ রানে ৮ উইকেট হারানোর পর ক্রিজে আসেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। তাকে নিয়ে দলে হাল ধরেন তাসকিন আহমেদ। এরপর ধীরে ধীরে কপালে ভাঁজ পড়তে শুরু করে নিউজিল্যান্ড অধিনায়কের। টাইগারদের ব্যাটিং মেরুদন্ড গুড়িয়ে দেয়ার পর এমন প্রতিরোধ আশাই করেননি তিনি। দ্বিতীয় উইকেটে বাংলাদেশের জুটি ছিল সৌম্য সরকার ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ৪১ রানের। কিন্তু দুই পেসার টপ ও মিডল অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের ছাড়িয়ে গেলেন। গড়লেন ৯ম উইকেটে ৫১ রানের জুটি। সেই সঙ্গে দলকে বাঁচালেন নিশ্চিত লজ্জার হাত থেকে। তাদের ব্যাটিংয়ে লজ্জা থেকে বাঁচলেও এই টেস্টে হার যেন নিশ্চিত তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। তাসকিন ৩৩ রানে আউট হলেও শেষ পর্যন্ত কামরুল অপরাজিত থাকেন ২৫ রানে। এই দু’জনের সাহসী ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের স্কোর বোর্ডে জমা পড়ে ৫২.৫ ওভারে সবকটি উইকেট জারিয়ে ১৭৩ রান। সেই সুবাদে নিউজিল্যান্ডের সামনে জয়ের লক্ষ্য মাত্র ১০৯ রানের।
ওয়েলিংটন টেস্টের চতুর্থ দিন দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। স্কোর বোর্ডে ১০০ রান উঠতেই হারিয়েছে ৭ উইকেট। এর আগে তামিম ইকবাল বাহিনীর প্রথম ইনিংসে করা ২৮৯ রানের জবাবে নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে সংগ্রহ ৩৫৪ রান। দ্বিতীয় দিন ২৬০ রান করে তারা হারিয়েছিল ৭ উইকেট। তৃতীয় দিন বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়াতে চতুর্থ ব্যাট করতে নামে ছিল চাপে থাকা কিউইরা। কিন্তু ব্যাট হাতে নেমে সেই চাপ উড়িয়ে দিয়ে নিকলসের ৯৮ রানে টাইগারদের টপকে ৬৫ রানের লিড নেয় ব্ল্যাক ক্যাপসরা। দলের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নূরুল হাসান সোহান বলেছিলেন, দুই দিনে অনেক কিছুই সম্ভব। কিন্তু নিজেদের বাজে ব্যাটিংয়ে সেই সম্ভবকে অসম্ভব করে দিয়েছে তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার ও সাকিব আল হাসানরা। পিছিয়ে থেকে থেকে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১৭ রানের সময় ৮ রান করে আউট হন অধিনায়ক তামিম। এরপর সৌম্য ৩৬, সহ অধিনায়ক সাকিব ৮, মাহমুদুল্লাহ ৩৮, সাব্বির রহমান ও নূরুল হাসান ০ রান করে আউট হলে গুড়িয়ে যায় বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের মেরুদন্ড। শেষ পর্যন্ত ৬০ বলে ১২ রান করে আউট হন তরুণ নাজমুল হোসেন শান্ত। লম্বা সময় ধরে তিনি চেষ্টা করলেও কেউ থাকে সঙ্গ দিতে পারেনি। এরপর তাসকিন ও মিরাজ মিলে কিছুটা চেষ্টা চালিয়ে যান। কিন্তু মাত্র ৪ রানের অবদান রেখে আউট হন মিরাজও।
৮ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১১৫ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে টাইগারদের লিড মাত্র ৫০ রানের, হাতে আছে শেষ দুই উইকেট। দলের হাল ধরেছিলেন তাসকিন ও কামরুল ইসলাম।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X