শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৮:২৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, January 31, 2017 8:49 am
A- A A+ Print

ট্রাম্পের সফর বাতিল চান যুক্তরাজ্যের ১০ লাখ নাগরিক

১০

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে যুক্তরাজ্যে দেখতে চান না দেশটির লাখ লাখ মানুষ। তাঁর যুক্তরাজ্য সফরের আমন্ত্রণ বাতিল করতে একটি অনলাইন পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন দেশটির ১০ লাখের বেশি বাসিন্দা। বিষয়টি নিয়ে পার্লামেন্টে আলোচনার জন্য যে পরিমাণ স্বাক্ষরের প্রয়োজন ছিল, তা ইতিমধ্যে পূরণ হয়ে গেছে। কাল মঙ্গলবার এ নিয়ে এমপিরা আলোচনা করবেন। এদিকে বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিনও ট্রাম্পকে যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করতে দেওয়ার বিপক্ষে মত দিয়েছেন। মুসলিমদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বাতিল না হওয়া পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের যুক্তরাজ্যে প্রবেশ স্থগিত করা উচিত বলে তিনি মনে করেন। যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে হোয়াইট হাউস সফর করে ট্রাম্পকে রাষ্ট্রীয় সফরের আমন্ত্রণ জানানোর আগেই তাঁকে প্রবেশ করতে না দেওয়াসংক্রান্ত পিটিশনটি চালু করা হয়। কিন্তু সম্প্রতি ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশে সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র সফরে নিষেধাজ্ঞা জারির পর পিটিশনটি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। এই নিষেধাজ্ঞা জারির পরই ১০ লাখ মানুষ অনলাইন পিটিশনটিতে স্বাক্ষর করেছেন। এটি বর্তমানে সরকারি ওয়েবসাইটে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জনপ্রিয় পিটিশন।

বিবিসি জানিয়েছে, শনিবার দুপুর পর্যন্ত পিটিশনটিতে মাত্র ৬০ জনের স্বাক্ষর ছিল। কিন্তু রোববারের মাথায় তা এক লাখ অতিক্রম করে। যুক্তরাজ্যের নিয়ম অনুযায়ী কোনো পিটিশনে ১ লাখের বেশি মানুষের স্বাক্ষর হলে তা পার্লামেন্টে আলোচনা করার জন্য গৃহীত হতে পারে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ১০ লাখের বেশি লোক পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন। স্বাক্ষরকারীর সংখ্যা ব্যাপক হারে বাড়ছে।

এতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে ট্রাম্প নিজের ক্ষমতাবলে ব্রিটেনে আসতে পারেন। কিন্তু তাঁকে রানি এলিজাবেথের আমন্ত্রণে রাষ্ট্রীয় সফরে ব্রিটেনে আসতে দেওয়া উচিত নয়। কেননা, এটা রানির প্রতি অবমাননাকর হবে।

বিবিসি বাংলা জানিয়েছে, যুক্তরাজ্যে ট্রাম্পের রাষ্ট্রীয় সফর বাতিল করার যে দাবি উঠেছে, লন্ডনে ডাউনিং স্ট্রিট তা খারিজ করে দিয়েছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সূত্রগুলো জানিয়েছে, ট্রাম্পের আমন্ত্রণ বাতিল করা হলে তা হয়তো একটি ‘জনপ্রিয় পদক্ষেপ’ হবে, কিন্তু সেই আমন্ত্রণ ইতিমধ্যেই গৃহীত হয়েছে এবং এখন সেটা বাতিল করা হলে ‘সবকিছু নষ্ট হয়ে যাবে’।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র সফরে গিয়ে ট্রাম্পকে ব্রিটিশ রানির পক্ষ থেকে যুক্তরাজ্য সফরের আমন্ত্রণ জানান থেরেসা মে। ট্রাম্প এই আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন। ওই দিনই নির্বাহী আদেশে মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ সাতটি দেশের নাগরিক ও শরণার্থীদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেন ট্রাম্প। তাঁর এই সিদ্ধান্তে বিশ্বজুড়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ এবং বিরোধী লেবার পার্টির অনেক নেতাও এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন।

Comments

Comments!

 ট্রাম্পের সফর বাতিল চান যুক্তরাজ্যের ১০ লাখ নাগরিকAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ট্রাম্পের সফর বাতিল চান যুক্তরাজ্যের ১০ লাখ নাগরিক

Tuesday, January 31, 2017 8:49 am
১০

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে যুক্তরাজ্যে দেখতে চান না দেশটির লাখ লাখ মানুষ। তাঁর যুক্তরাজ্য সফরের আমন্ত্রণ বাতিল করতে একটি অনলাইন পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন দেশটির ১০ লাখের বেশি বাসিন্দা। বিষয়টি নিয়ে পার্লামেন্টে আলোচনার জন্য যে পরিমাণ স্বাক্ষরের প্রয়োজন ছিল, তা ইতিমধ্যে পূরণ হয়ে গেছে। কাল মঙ্গলবার এ নিয়ে এমপিরা আলোচনা করবেন।
এদিকে বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিনও ট্রাম্পকে যুক্তরাজ্যে প্রবেশ করতে দেওয়ার বিপক্ষে মত দিয়েছেন। মুসলিমদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বাতিল না হওয়া পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের যুক্তরাজ্যে প্রবেশ স্থগিত করা উচিত বলে তিনি মনে করেন।
যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে হোয়াইট হাউস সফর করে ট্রাম্পকে রাষ্ট্রীয় সফরের আমন্ত্রণ জানানোর আগেই তাঁকে প্রবেশ করতে না দেওয়াসংক্রান্ত পিটিশনটি চালু করা হয়। কিন্তু সম্প্রতি ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশে সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র সফরে নিষেধাজ্ঞা জারির পর পিটিশনটি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। এই নিষেধাজ্ঞা জারির পরই ১০ লাখ মানুষ অনলাইন পিটিশনটিতে স্বাক্ষর করেছেন। এটি বর্তমানে সরকারি ওয়েবসাইটে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জনপ্রিয় পিটিশন।

বিবিসি জানিয়েছে, শনিবার দুপুর পর্যন্ত পিটিশনটিতে মাত্র ৬০ জনের স্বাক্ষর ছিল। কিন্তু রোববারের মাথায় তা এক লাখ অতিক্রম করে। যুক্তরাজ্যের নিয়ম অনুযায়ী কোনো পিটিশনে ১ লাখের বেশি মানুষের স্বাক্ষর হলে তা পার্লামেন্টে আলোচনা করার জন্য গৃহীত হতে পারে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ১০ লাখের বেশি লোক পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন। স্বাক্ষরকারীর সংখ্যা ব্যাপক হারে বাড়ছে।

এতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে ট্রাম্প নিজের ক্ষমতাবলে ব্রিটেনে আসতে পারেন। কিন্তু তাঁকে রানি এলিজাবেথের আমন্ত্রণে রাষ্ট্রীয় সফরে ব্রিটেনে আসতে দেওয়া উচিত নয়। কেননা, এটা রানির প্রতি অবমাননাকর হবে।

বিবিসি বাংলা জানিয়েছে, যুক্তরাজ্যে ট্রাম্পের রাষ্ট্রীয় সফর বাতিল করার যে দাবি উঠেছে, লন্ডনে ডাউনিং স্ট্রিট তা খারিজ করে দিয়েছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সূত্রগুলো জানিয়েছে, ট্রাম্পের আমন্ত্রণ বাতিল করা হলে তা হয়তো একটি ‘জনপ্রিয় পদক্ষেপ’ হবে, কিন্তু সেই আমন্ত্রণ ইতিমধ্যেই গৃহীত হয়েছে এবং এখন সেটা বাতিল করা হলে ‘সবকিছু নষ্ট হয়ে যাবে’।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র সফরে গিয়ে ট্রাম্পকে ব্রিটিশ রানির পক্ষ থেকে যুক্তরাজ্য সফরের আমন্ত্রণ জানান থেরেসা মে। ট্রাম্প এই আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন। ওই দিনই নির্বাহী আদেশে মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ সাতটি দেশের নাগরিক ও শরণার্থীদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেন ট্রাম্প। তাঁর এই সিদ্ধান্তে বিশ্বজুড়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ এবং বিরোধী লেবার পার্টির অনেক নেতাও এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X