বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৬:৪৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, May 6, 2017 8:25 am
A- A A+ Print

ঢাকায় বাড়ছে উবারের চাহিদা

8

কাওরান বাজারের একটি বেসরকারি অফিসে কাজ করেন মিলু। সকাল ১০টায় অফিস থাকার সুবাদে প্রতিদিন  ৯টায় বাসা থেকে বের হতে হয়। কিন্তু গতকাল বাসায় কাজ থাকার কারণে বের হতে প্রায় সাড়ে ন’টা বাজে। মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ডে প্রায় আধাঘণ্টা দাঁড়িয়ে বাস-সিএনজি কোনটাতেই উঠতে পারছিলেন না। এদিকে অফিসেরও সময় প্রায় হয়ে যাচ্ছিলো। ঠিক তখনি মাথায় আসে উবারের কথা। নিজের স্মার্ট  ফোনে আগে থেকেই অ্যাপ নামানো ছিলো। তাই আর দেরি হয় নাই। সঙ্গে সঙ্গে একটি রিকুয়েস্ট পাঠিয়ে দেন। কিছুক্ষণের মধ্যে ফিরতি এসএমএস-এ জানিয়ে দেয়া হয় প্রত্যেকের অবস্থান সঙ্গে চালক এবং যাত্রীর উভয়ের মোবাইল নম্বর। দশ মিনিট যেতে না যেতে উবারের ট্যাক্সিচালক এসে হাজির। মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে কাওরান বাজার ওয়াসা ভবনের সামনে নামার পর বিল আসে ২শ’ টাকা। সময় লাগে ৪০ মিনিট। বোনের বিয়েতে পরিবারের সঙ্গে বাড়ি গিয়েছিলেন উৎপল। পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়ি থেকে রওয়ানা দিয়ে গাবতলী বাসস্ট্যান্ডে যখন বাস এসে পৌঁছায় তখন ঘড়িতে বাজে সাড়ে ১০টা। বাস টার্মিনালে নামার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় ঝড়-তুফান। মহাখালীর বাসায় যাবার জন্য সিএনজি বাস কিছুই পাওয়া যায়নি। কোন উপায়ন্তর না পেয়ে উবারের ট্যাক্সির আমন্ত্রণ জানান। কিছুক্ষণ পরই চালক এসে ফোন দেন। ঝামেলা ছাড়াই বাসায় পৌঁছে যান। মিলু এবং উৎপল দু’জনেই তাদের সনু্তষ্টির কথা জানিয়েছেন। তারা বলেন, যানজটের শহরে এ ধরনের উদ্যোগে সত্যিই ভালো সুবিধা নেয়া যাচ্ছে। কম খরচে, এসি গাড়িতে যাতায়াত করা যাচ্ছে। তবে এর সেবাটা সঠিকভাবে ধরে রাখতে হবে। তাতেই মানুষ উপকৃত হবে। ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ট্যাক্সি-সেবা  প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান উবারের কার্যক্রম দিন দিন বাড়ছে। এবং এর সেবা গ্রহীতারাও তাদের সন্তুষ্টির কথা বিভিন্ন মাধ্যমে শেয়ার করছেন। গত পাঁচ মাস ধরে প্রতি মাসে ১০ শতাংশের বেশি হারে চালক ও যাত্রী বেড়েছে তাদের। এশিয়ার শহরগুলোর মধ্যে এই বৃদ্ধির হার ঢাকাতেই সবচেয়ে  বেশি বলে জানা যায়। তবে উবারের এই সেবার স্থায়িত্বকাল নিয়ে অনেকেই ভিন্নমত পোষণ করছেন। সেবাগ্রহীতা একাধিক যাত্রী জানিয়েছেন ভবিষ্যতে এই সেবা যেন ঢাকার সিএনজিচালিত অটোরিকশা বা ট্যাক্সির মতো না হয়ে যায়। উবারের নিজস্ব কোনো গাড়ি নেই। এটি স্মার্ট ফোনে অ্যাপের মাধ্যমে গাড়ির মালিক-চালকদের সঙ্গে যাত্রীদের সংযোগ ঘটিয়ে দেয়ার একটি প্ল্যাটফর্র্ম হিসেবে কাজ করে। এখানে গাড়িচালক ও যাত্রী দুই পক্ষকেই আগে থেকে নিবন্ধিত হতে হয়, যা এই অ্যাপ ব্যবহারকারী যাত্রী ও চালক উভয়েরই নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। সূত্রে জানা যায়, উবার ট্যাক্সি- সেবাদাতা না শুধু অ্যাপ হিসেবে নিবন্ধিত হবে, তা নিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছে। উবার নিজেকে স্মার্টফোন অ্যাপ হিসেবে দাবি করে। এটি ব্যবহার করে ঢাকায় যে গাড়িগুলো ভাড়ায় চলছে, সেগুলোর সবই ব্যক্তিগত হিসেবে নিবন্ধিত। ভাড়ায় গাড়ি চালাতে হলে সরকারকে রাজস্ব দিয়ে রুট পারমিট নিতে হয়। গত বছরের ২২ নভেম্বর ঢাকায় উবার চালুর ঘোষণা দেয়ার তিন দিন পর সড়ক যোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিআরটিএ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে উবারকে  বেআইনি ও অবৈধ ঘোষণা করে। এই নিষেধাজ্ঞা এখনো বহাল রয়েছে। তবে এ ঘোষণার পরও উবারের সেবা বন্ধ হয়নি। উবার বলছে তারা এখন একটি সঠিক নীতিমালায় আসতে চায়। এবং সেজন্য আলোচনা শুরু হয়েছে। যদি আলোচনা ফলপ্রসূ হয় তবে তারা খুম হবে। কারণ এখানে রাইড শেয়ারিং এর সম্ভাবনা আছে। যা শহরে খুবই প্রভাব ফেলবে। সমপ্রতি এক অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, উবার লেটেস্ট  টেকনোলজি, এর বিরোধিতা আমি করি না। নতুন  টেকনোলজিকে স্বাগত জানাতে হবে। এটাকে সিস্টেমের আওতায় আনতে একটি কমিটি করা হয়েছে এবং আলাপ-আলোচনা চলছে। এটি চলুক, বন্ধ করে না দিয়ে একটি সিস্টেমে আনতে হবে। ঢাকায় উবারে চলা গাড়িগুলোর প্রায় সবই টয়োটার। বাংলাদেশে আসা টয়োটার সর্বশেষ মডেলের প্রিমিও, এলিয়ন, করোলা (এক্সিও), ফিল্ডার থেকে শুরু করে ১৯৯০ মডেলের গাড়ি পর্যন্ত উবারে চলছে। এখানে উবারের পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত কর্মকর্তা গাড়ির শীতাতপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্র ঠিক রাখা এবং গাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছেন। উবারে গাড়ি চালাচ্ছেন, এ রকম মালিকদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, তাদের প্রায় সবাই পেশাদার ট্যাক্সি চালক দিয়ে গাড়ি চালান। কয়েকজন একাধিক গাড়ি উবারে চালাচ্ছেন। প্রতিদিন সব খরচ বাদ দিয়ে গাড়ি প্রতি গড়ে দেড় থেকে দুই হাজার টাকা করে মুনাফা থাকছে। ভালো ও নতুন গাড়ি হলে আয়ও বেশি হয়। চালকরা জানান, মোট পাওয়া ভাড়ার ২৫ শতাংশ প্রতিদিন সার্ভিস চার্জ হিসেবে কেটে নেয় উবার কর্তৃপক্ষ। উবারের দেয়া একটি হটলাইন নম্বরে ফোন করলে তারা জানিয়ে দেয়, কোন এলাকা  থেকে বেশি কল আসছে। তারা সেসব এলাকায় চালকদের ছড়িয়ে পড়ার পরামর্শ দেয়। এদিকে  চালু হওয়ার দুই মাসের মাথায় গত ২৩শে জানুয়ারি থেকে উবারের ভাড়া বেড়েছে। শুরুতেই প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ১৮ টাকা ছিল, বর্তমানে তা  বেড়ে ২১ টাকা হয়েছে। থেমে থাকা অবস্থায় প্রতি মিনিটের জন্য ২ টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ৩ টাকা। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ৫০ টাকা ভিত্তি ভাড়া (বেজ ফেয়ার)। আর এর মধ্যে ঢাকায় প্রতি ট্রিপের ২৫ শতাংশ অর্থ পায় উবার। বাকিটা গাড়ির মালিক ও চালক পাবেন।

Comments

Comments!

 ঢাকায় বাড়ছে উবারের চাহিদাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ঢাকায় বাড়ছে উবারের চাহিদা

Saturday, May 6, 2017 8:25 am
8

কাওরান বাজারের একটি বেসরকারি অফিসে কাজ করেন মিলু। সকাল ১০টায় অফিস থাকার সুবাদে প্রতিদিন  ৯টায় বাসা থেকে বের হতে হয়। কিন্তু গতকাল বাসায় কাজ থাকার কারণে বের হতে প্রায় সাড়ে ন’টা বাজে। মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ডে প্রায় আধাঘণ্টা দাঁড়িয়ে বাস-সিএনজি কোনটাতেই উঠতে পারছিলেন না। এদিকে অফিসেরও সময় প্রায় হয়ে যাচ্ছিলো। ঠিক তখনি মাথায় আসে উবারের কথা। নিজের স্মার্ট  ফোনে আগে থেকেই অ্যাপ নামানো ছিলো। তাই আর দেরি হয় নাই। সঙ্গে সঙ্গে একটি রিকুয়েস্ট পাঠিয়ে দেন। কিছুক্ষণের মধ্যে ফিরতি এসএমএস-এ জানিয়ে দেয়া হয় প্রত্যেকের অবস্থান সঙ্গে চালক এবং যাত্রীর উভয়ের মোবাইল নম্বর। দশ মিনিট যেতে না যেতে উবারের ট্যাক্সিচালক এসে হাজির। মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে কাওরান বাজার ওয়াসা ভবনের সামনে নামার পর বিল আসে ২শ’ টাকা। সময় লাগে ৪০ মিনিট। বোনের বিয়েতে পরিবারের সঙ্গে বাড়ি গিয়েছিলেন উৎপল। পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়ি থেকে রওয়ানা দিয়ে গাবতলী বাসস্ট্যান্ডে যখন বাস এসে পৌঁছায় তখন ঘড়িতে বাজে সাড়ে ১০টা। বাস টার্মিনালে নামার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় ঝড়-তুফান। মহাখালীর বাসায় যাবার জন্য সিএনজি বাস কিছুই পাওয়া যায়নি। কোন উপায়ন্তর না পেয়ে উবারের ট্যাক্সির আমন্ত্রণ জানান। কিছুক্ষণ পরই চালক এসে ফোন দেন। ঝামেলা ছাড়াই বাসায় পৌঁছে যান। মিলু এবং উৎপল দু’জনেই তাদের সনু্তষ্টির কথা জানিয়েছেন। তারা বলেন, যানজটের শহরে এ ধরনের উদ্যোগে সত্যিই ভালো সুবিধা নেয়া যাচ্ছে। কম খরচে, এসি গাড়িতে যাতায়াত করা যাচ্ছে। তবে এর সেবাটা সঠিকভাবে ধরে রাখতে হবে। তাতেই মানুষ উপকৃত হবে। ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ট্যাক্সি-সেবা  প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান উবারের কার্যক্রম দিন দিন বাড়ছে। এবং এর সেবা গ্রহীতারাও তাদের সন্তুষ্টির কথা বিভিন্ন মাধ্যমে শেয়ার করছেন। গত পাঁচ মাস ধরে প্রতি মাসে ১০ শতাংশের বেশি হারে চালক ও যাত্রী বেড়েছে তাদের। এশিয়ার শহরগুলোর মধ্যে এই বৃদ্ধির হার ঢাকাতেই সবচেয়ে  বেশি বলে জানা যায়। তবে উবারের এই সেবার স্থায়িত্বকাল নিয়ে অনেকেই ভিন্নমত পোষণ করছেন। সেবাগ্রহীতা একাধিক যাত্রী জানিয়েছেন ভবিষ্যতে এই সেবা যেন ঢাকার সিএনজিচালিত অটোরিকশা বা ট্যাক্সির মতো না হয়ে যায়।
উবারের নিজস্ব কোনো গাড়ি নেই। এটি স্মার্ট ফোনে অ্যাপের মাধ্যমে গাড়ির মালিক-চালকদের সঙ্গে যাত্রীদের সংযোগ ঘটিয়ে দেয়ার একটি প্ল্যাটফর্র্ম হিসেবে কাজ করে। এখানে গাড়িচালক ও যাত্রী দুই পক্ষকেই আগে থেকে নিবন্ধিত হতে হয়, যা এই অ্যাপ ব্যবহারকারী যাত্রী ও চালক উভয়েরই নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। সূত্রে জানা যায়, উবার ট্যাক্সি- সেবাদাতা না শুধু অ্যাপ হিসেবে নিবন্ধিত হবে, তা নিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছে। উবার নিজেকে স্মার্টফোন অ্যাপ হিসেবে দাবি করে। এটি ব্যবহার করে ঢাকায় যে গাড়িগুলো ভাড়ায় চলছে, সেগুলোর সবই ব্যক্তিগত হিসেবে নিবন্ধিত। ভাড়ায় গাড়ি চালাতে হলে সরকারকে রাজস্ব দিয়ে রুট পারমিট নিতে হয়। গত বছরের ২২ নভেম্বর ঢাকায় উবার চালুর ঘোষণা দেয়ার তিন দিন পর সড়ক যোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিআরটিএ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে উবারকে  বেআইনি ও অবৈধ ঘোষণা করে। এই নিষেধাজ্ঞা এখনো বহাল রয়েছে। তবে এ ঘোষণার পরও উবারের সেবা বন্ধ হয়নি। উবার বলছে তারা এখন একটি সঠিক নীতিমালায় আসতে চায়। এবং সেজন্য আলোচনা শুরু হয়েছে। যদি আলোচনা ফলপ্রসূ হয় তবে তারা খুম হবে। কারণ এখানে রাইড শেয়ারিং এর সম্ভাবনা আছে। যা শহরে খুবই প্রভাব ফেলবে।
সমপ্রতি এক অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, উবার লেটেস্ট  টেকনোলজি, এর বিরোধিতা আমি করি না। নতুন  টেকনোলজিকে স্বাগত জানাতে হবে। এটাকে সিস্টেমের আওতায় আনতে একটি কমিটি করা হয়েছে এবং আলাপ-আলোচনা চলছে। এটি চলুক, বন্ধ করে না দিয়ে একটি সিস্টেমে আনতে হবে। ঢাকায় উবারে চলা গাড়িগুলোর প্রায় সবই টয়োটার। বাংলাদেশে আসা টয়োটার সর্বশেষ মডেলের প্রিমিও, এলিয়ন, করোলা (এক্সিও), ফিল্ডার থেকে শুরু করে ১৯৯০ মডেলের গাড়ি পর্যন্ত উবারে চলছে। এখানে উবারের পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত কর্মকর্তা গাড়ির শীতাতপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্র ঠিক রাখা এবং গাড়ি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছেন। উবারে গাড়ি চালাচ্ছেন, এ রকম মালিকদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, তাদের প্রায় সবাই পেশাদার ট্যাক্সি চালক দিয়ে গাড়ি চালান। কয়েকজন একাধিক গাড়ি উবারে চালাচ্ছেন। প্রতিদিন সব খরচ বাদ দিয়ে গাড়ি প্রতি গড়ে দেড় থেকে দুই হাজার টাকা করে মুনাফা থাকছে। ভালো ও নতুন গাড়ি হলে আয়ও বেশি হয়। চালকরা জানান, মোট পাওয়া ভাড়ার ২৫ শতাংশ প্রতিদিন সার্ভিস চার্জ হিসেবে কেটে নেয় উবার কর্তৃপক্ষ। উবারের দেয়া একটি হটলাইন নম্বরে ফোন করলে তারা জানিয়ে দেয়, কোন এলাকা  থেকে বেশি কল আসছে। তারা সেসব এলাকায় চালকদের ছড়িয়ে পড়ার পরামর্শ দেয়। এদিকে  চালু হওয়ার দুই মাসের মাথায় গত ২৩শে জানুয়ারি থেকে উবারের ভাড়া বেড়েছে। শুরুতেই প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ১৮ টাকা ছিল, বর্তমানে তা  বেড়ে ২১ টাকা হয়েছে। থেমে থাকা অবস্থায় প্রতি মিনিটের জন্য ২ টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ৩ টাকা। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ৫০ টাকা ভিত্তি ভাড়া (বেজ ফেয়ার)। আর এর মধ্যে ঢাকায় প্রতি ট্রিপের ২৫ শতাংশ অর্থ পায় উবার। বাকিটা গাড়ির মালিক ও চালক পাবেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X