সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:০৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, November 30, 2016 11:37 am
A- A A+ Print

তামিম নৈপূণ্যে চিটাগাংয়ের জয়

tamim_32388_1480433659

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ- বিপিএলে খুলনাকে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে এগিয়ে গেল চিটাগং ভাইকিংস। অধিনায়কের দায়িত্বশীল অপরাজিত ৬৬ রানের সুবাদে সহজেই খুলনার দেয়া ১৩১ রানের টার্গেট টপকে যায় দলটি।
তবে ইনিংসের ৬৪ রানের মাথায় চার উইকেট হারিয়ে বসা চিটাগং বেশ ভালোই বিপদে পড়েছিল। সেই অবস্থা থেকে একাই দলকে টেনে নেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। দায়িত্বপূর্ণ ব্যাটিংয়ে অর্ধশতক আদায় করে নেন তিনি। চিটাগংয়ের হয়ে তামিমের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নামেন মারকুটে ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল। তবে জ্বলে ওঠার আগেই তাকে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান অফস্পিনার শুভাগত হোম। ১১ বলে ১৯ রান করে ফেরেন গেইল। সপ্তম ওভারে আনামুল হক (৩) ও নবম ওভারে শোয়েব মালিক (১) রানআউটের ফাঁদে পড়েন। দলীয় ৫৪ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বসে চিটাগং। ৬৪ রানের মাথায় প্যাভিলিয়েনে ফেরত যান জাকির হোসেন। ৯ বলে ৩ রান করে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হয়ে সাজ ঘরে ফেরেন তিনি। দলকে এ অবস্থা থেকে জয়ের পথে ফেরাতে চেষ্টা চালান তামিম ও জহুরুল ইসলাম। দুইজন দলকে ভালোই এগিয়ে নিচ্ছিলেন। তবে কেভন কুপারের বলে ওঠা এক দুর্দান্ত ক্যাচ ধরে জহুরুলকে ফেরত পাঠান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। দলীয় ১০১ ও ব্যক্তিগত ২২ রান করে ফেরত যান জহুরুল। এরপর আফগান ক্রিকেটার মোহাম্মদ নবীকে সঙ্গী করে তামিম ইকবাল দলকে এগিয়ে নেন। দলকে ভেরান জয়ের বন্দরে। দুটি রান আউটের বাইরে মোশাররফ হোসাইন, কেভন কুপার ও শুভাগত হোম একটি করে উইকেট নেন। এর আগে সন্ধ্যায় টস জিতে তামিম-গেইলদের ফিল্ডিংয়ে পাঠান খুলনার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তাসকিন-নবী-সাকলাইনদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শুরু থেকেই চাপের মধ্যে ছিল খুলনা। নির্ধারিত ওভার শেষে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় আট উইকেটে ১৩১। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪২ রান আসে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর ব্যাট থেকে। চিটাগংয়ের দুই পেসার তাসকিন আহমেদ ও ইমরান খান দু’টি করে উইকেট লাভ করেন। একটি করে নেন মোহাম্মদ নবী, শুভাশিষ রায় ও সাকলাইন সজিব। এরআগে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর দুর্দান্ত বোলিংয়ে টুর্নামেন্টের প্রথম দেখায় খুলনার কাছে নাটকীয়ভাবে হেরে যায় চিটাগং। এই জয়ের মধ্য দিয়ে খুলনার সমান ১২ পয়েন্ট নিয়েও টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে চিটাগং। আর ম্যাচ হেরে এক ধাপ নেমে খুলনার অবস্থান তৃতীয়।

Comments

Comments!

 তামিম নৈপূণ্যে চিটাগাংয়ের জয়AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

তামিম নৈপূণ্যে চিটাগাংয়ের জয়

Wednesday, November 30, 2016 11:37 am
tamim_32388_1480433659

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ- বিপিএলে খুলনাকে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে এগিয়ে গেল চিটাগং ভাইকিংস। অধিনায়কের দায়িত্বশীল অপরাজিত ৬৬ রানের সুবাদে সহজেই খুলনার দেয়া ১৩১ রানের টার্গেট টপকে যায় দলটি।

তবে ইনিংসের ৬৪ রানের মাথায় চার উইকেট হারিয়ে বসা চিটাগং বেশ ভালোই বিপদে পড়েছিল। সেই অবস্থা থেকে একাই দলকে টেনে নেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। দায়িত্বপূর্ণ ব্যাটিংয়ে অর্ধশতক আদায় করে নেন তিনি।

চিটাগংয়ের হয়ে তামিমের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নামেন মারকুটে ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল। তবে জ্বলে ওঠার আগেই তাকে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান অফস্পিনার শুভাগত হোম। ১১ বলে ১৯ রান করে ফেরেন গেইল।

সপ্তম ওভারে আনামুল হক (৩) ও নবম ওভারে শোয়েব মালিক (১) রানআউটের ফাঁদে পড়েন। দলীয় ৫৪ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বসে চিটাগং। ৬৪ রানের মাথায় প্যাভিলিয়েনে ফেরত যান জাকির হোসেন। ৯ বলে ৩ রান করে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হয়ে সাজ ঘরে ফেরেন তিনি।

দলকে এ অবস্থা থেকে জয়ের পথে ফেরাতে চেষ্টা চালান তামিম ও জহুরুল ইসলাম। দুইজন দলকে ভালোই এগিয়ে নিচ্ছিলেন। তবে কেভন কুপারের বলে ওঠা এক দুর্দান্ত ক্যাচ ধরে জহুরুলকে ফেরত পাঠান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। দলীয় ১০১ ও ব্যক্তিগত ২২ রান করে ফেরত যান জহুরুল।

এরপর আফগান ক্রিকেটার মোহাম্মদ নবীকে সঙ্গী করে তামিম ইকবাল দলকে এগিয়ে নেন। দলকে ভেরান জয়ের বন্দরে।

দুটি রান আউটের বাইরে মোশাররফ হোসাইন, কেভন কুপার ও শুভাগত হোম একটি করে উইকেট নেন।

এর আগে সন্ধ্যায় টস জিতে তামিম-গেইলদের ফিল্ডিংয়ে পাঠান খুলনার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

তাসকিন-নবী-সাকলাইনদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শুরু থেকেই চাপের মধ্যে ছিল খুলনা। নির্ধারিত ওভার শেষে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় আট উইকেটে ১৩১। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪২ রান আসে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর ব্যাট থেকে।

চিটাগংয়ের দুই পেসার তাসকিন আহমেদ ও ইমরান খান দু’টি করে উইকেট লাভ করেন। একটি করে নেন মোহাম্মদ নবী, শুভাশিষ রায় ও সাকলাইন সজিব।

এরআগে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর দুর্দান্ত বোলিংয়ে টুর্নামেন্টের প্রথম দেখায় খুলনার কাছে নাটকীয়ভাবে হেরে যায় চিটাগং।

এই জয়ের মধ্য দিয়ে খুলনার সমান ১২ পয়েন্ট নিয়েও টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে চিটাগং। আর ম্যাচ হেরে এক ধাপ নেমে খুলনার অবস্থান তৃতীয়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X