রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:২৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, July 24, 2017 9:59 pm
A- A A+ Print

ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ করায় চড়াও আ’লীগ নেতা : সিলেটে প্রকাশ্যে কান ধরে টানাহেঁচড়া মারধর

syl_pic_22-07-17_(1)_52929_1500753078

সিলেটে বন্যাদুর্গত এলাকার এক বাসিন্দা ত্রাণ পাননি এমন অভিযোগ করার পর ক্ষমতাসীন দলের নেতার হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন। মারধর করার পর তার কান টেনে ধরেন ওই আওয়ামী লীগ নেতা। এ নিয়ে ক্ষোভ বিরাজ করছে স্থানীয়দের মধ্যে। ন্যক্কারজনক এ ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ সুরমা উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নে। ত্রাণ নিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সুধী সমাবেশের আয়োজন করেন। এ সমাবেশে তাকে প্রকাশ্যে কান ধরে টানাহেঁচড়া, মারধর করা হয়। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদে ইনাতআলীপুর গ্রামের সোনা মিয়ার ছেলে লুৎফুর রহমান লকুসকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল বাছিত বকুল মারধর করেছেন। শুধু মারধর করেই ক্ষান্ত হননি। তাকে তাড়িয়ে দিয়েছেন ইউনিয়ন পরিষদ থেকে। এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যানসহ গণমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল মিয়া জানান, ত্রাণ পাননি এমন অভিযোগ করার পর জনরোষের শিকার হন লকুস। ক্ষুব্ধ জনতার হাত থেকে তাকে বাঁচাতে ধাক্কা দিয়ে একটি কক্ষে নিয়ে রক্ষা করেছি। স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার হিরা মিয়া জানান, এর আগে ভিজিএফ দেয়া হয়েছে। কিন্তু সে ত্রাণ পায়নি এমন অভিযোগ করার পর স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা ক্ষেপে যান। সে বিত্তশালী, ত্রাণ পাওয়ার উপযুক্ত নয়। এর বেশি তিনি কিছু বলতে চাননি। ইউপি চেয়ারম্যান এইচএম খলিল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সুধী সমাবেশে অনেকেই অনেক অভিযোগ করেছেন। লকুস মিয়া ত্রাণ পাননি অভিযোগ করার পর স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল মিয়া জনগণের রোষানল থেকে বাঁচাতে তাকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে নেন। এর বাইরে কিছু ঘটে থাকলে তার জানা নেই।

Comments

Comments!

 ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ করায় চড়াও আ’লীগ নেতা : সিলেটে প্রকাশ্যে কান ধরে টানাহেঁচড়া মারধরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ করায় চড়াও আ’লীগ নেতা : সিলেটে প্রকাশ্যে কান ধরে টানাহেঁচড়া মারধর

Monday, July 24, 2017 9:59 pm
syl_pic_22-07-17_(1)_52929_1500753078

সিলেটে বন্যাদুর্গত এলাকার এক বাসিন্দা ত্রাণ পাননি এমন অভিযোগ করার পর ক্ষমতাসীন দলের নেতার হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন। মারধর করার পর তার কান টেনে ধরেন ওই আওয়ামী লীগ নেতা।

এ নিয়ে ক্ষোভ বিরাজ করছে স্থানীয়দের মধ্যে। ন্যক্কারজনক এ ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ সুরমা উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নে। ত্রাণ নিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সুধী সমাবেশের আয়োজন করেন।

এ সমাবেশে তাকে প্রকাশ্যে কান ধরে টানাহেঁচড়া, মারধর করা হয়। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদে ইনাতআলীপুর গ্রামের সোনা মিয়ার ছেলে লুৎফুর রহমান লকুসকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল বাছিত বকুল মারধর করেছেন।

শুধু মারধর করেই ক্ষান্ত হননি। তাকে তাড়িয়ে দিয়েছেন ইউনিয়ন পরিষদ থেকে। এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যানসহ গণমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল মিয়া জানান, ত্রাণ পাননি এমন অভিযোগ করার পর জনরোষের শিকার হন লকুস। ক্ষুব্ধ জনতার হাত থেকে তাকে বাঁচাতে ধাক্কা দিয়ে একটি কক্ষে নিয়ে রক্ষা করেছি।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার হিরা মিয়া জানান, এর আগে ভিজিএফ দেয়া হয়েছে। কিন্তু সে ত্রাণ পায়নি এমন অভিযোগ করার পর স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা ক্ষেপে যান।

সে বিত্তশালী, ত্রাণ পাওয়ার উপযুক্ত নয়। এর বেশি তিনি কিছু বলতে চাননি। ইউপি চেয়ারম্যান এইচএম খলিল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সুধী সমাবেশে অনেকেই অনেক অভিযোগ করেছেন।

লকুস মিয়া ত্রাণ পাননি অভিযোগ করার পর স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল মিয়া জনগণের রোষানল থেকে বাঁচাতে তাকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে নেন। এর বাইরে কিছু ঘটে থাকলে তার জানা নেই।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X