শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১০:১৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, July 31, 2016 8:16 pm | আপডেটঃ July 31, 2016 8:16 PM
A- A A+ Print

দশ টাকা চাঁদা নিয়ে ৫ টাকার রশিদ দেওয়ার প্রতিবাদ, বুয়েটের প্রকৌশলীকে পিটিয়ে আহত

press conference_136897

পাঁচ টাকার রশিদ দিয়ে ১০ টাকা চাঁদা আদায়ের প্রতিবাদ করায় বুয়েটের শফটওয়ার প্রকৌশলীকে পিটিয়ে আহত করলেও পুলিশ ছিল নিরব। এ ঘটনার বিচার চাইতে গিয়ে স্থানীয় থানা, পুলিশ সদর দপ্তর, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এবং উচ্চ আদালতের আইনজীবীর কাছে প্রতারণার শিকার হয়েছি। আজ রোববার দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে হামলার শিকার প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ এ অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন,গত ২০১৪ সালের নভেম্বর নড়াইল গ্রামের বাড়ি থেকে ঢাকায় ফেরার পথে কাউড়াকান্দির ঘাটের ইজারাদারের লোক মজিবর ও জমির হাওলাদার ১০ টাকা চাঁদা নিয়ে ৫ টাকার রশিদ দেন। আমি ১০ টাকার রশিদ দাবি করি। এনিয়ে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তারা আমাকে মাটিতে ফেলে ঘেওরা করে আঁখ দিয়ে গণপিটুনী দেয়। এতে আমি গুরুতর আহত হলে একজন পথচারী আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে শিবচর থানায় মামলা করতে যাই। কিন্তু পুলিশ মামলা এমনকি একটি জিডিও নেয়নি। পরে পুলিশ সদর দপ্তর ও স্বরাস্ট্র মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ করি। এরপর পুলিশ সদরদপ্তরের একজন কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়ে আমার অভিযোগের সত্যতা পাননি বলে আমাকে জানান। প্রকৌশলী জানান, উপায়ন্তর না পেয়ে উচ্চ আদালতের এক আইনজীবীর কাছে যাই। তিনি ২০ হাজার টাকার চুক্তিতে প্রথমে ৬ হাজার টাকা দেওয়া হয়। এর ৬ মাস পর উক্ত টাকা ফেরত দেন। পরে অন্য আইনজীবী মামলা করার কথা বলে ১৭ হাজার টাকা নেন। কিন্তু মামলা করতে পারেননি তিনি। আবুল কালাম আজাদ বলেন, কাওড়াকান্দি ঘাটে ইজারাদারের হাতে যাত্রীরা নির্যাতন, হয়রানী এবং লাঞ্চিত হচ্ছেন। তাই ঘটনাটি তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্থা নিলে নিরীহ ব্যক্তিরা এদের হাত থেকে রক্ষা পেতেন।

Comments

Comments!

 দশ টাকা চাঁদা নিয়ে ৫ টাকার রশিদ দেওয়ার প্রতিবাদ, বুয়েটের প্রকৌশলীকে পিটিয়ে আহতAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

দশ টাকা চাঁদা নিয়ে ৫ টাকার রশিদ দেওয়ার প্রতিবাদ, বুয়েটের প্রকৌশলীকে পিটিয়ে আহত

Sunday, July 31, 2016 8:16 pm | আপডেটঃ July 31, 2016 8:16 PM
press conference_136897

পাঁচ টাকার রশিদ দিয়ে ১০ টাকা চাঁদা আদায়ের প্রতিবাদ করায় বুয়েটের শফটওয়ার প্রকৌশলীকে পিটিয়ে আহত করলেও পুলিশ ছিল নিরব। এ ঘটনার বিচার চাইতে গিয়ে স্থানীয় থানা, পুলিশ সদর দপ্তর, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এবং উচ্চ আদালতের আইনজীবীর কাছে প্রতারণার শিকার হয়েছি।

আজ রোববার দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে হামলার শিকার প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ এ অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন,গত ২০১৪ সালের নভেম্বর নড়াইল গ্রামের বাড়ি থেকে ঢাকায় ফেরার পথে কাউড়াকান্দির ঘাটের ইজারাদারের লোক মজিবর ও জমির হাওলাদার ১০ টাকা চাঁদা নিয়ে ৫ টাকার রশিদ দেন। আমি ১০ টাকার রশিদ দাবি করি। এনিয়ে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তারা আমাকে মাটিতে ফেলে ঘেওরা করে আঁখ দিয়ে গণপিটুনী দেয়। এতে আমি গুরুতর আহত হলে একজন পথচারী আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে শিবচর থানায় মামলা করতে যাই। কিন্তু পুলিশ মামলা এমনকি একটি জিডিও নেয়নি। পরে পুলিশ সদর দপ্তর ও স্বরাস্ট্র মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ করি। এরপর পুলিশ সদরদপ্তরের একজন কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়ে আমার অভিযোগের সত্যতা পাননি বলে আমাকে জানান।

প্রকৌশলী জানান, উপায়ন্তর না পেয়ে উচ্চ আদালতের এক আইনজীবীর কাছে যাই। তিনি ২০ হাজার টাকার চুক্তিতে প্রথমে ৬ হাজার টাকা দেওয়া হয়। এর ৬ মাস পর উক্ত টাকা ফেরত দেন। পরে অন্য আইনজীবী মামলা করার কথা বলে ১৭ হাজার টাকা নেন। কিন্তু মামলা করতে পারেননি তিনি।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, কাওড়াকান্দি ঘাটে ইজারাদারের হাতে যাত্রীরা নির্যাতন, হয়রানী এবং লাঞ্চিত হচ্ছেন। তাই ঘটনাটি তদন্ত পূর্বক ব্যাবস্থা নিলে নিরীহ ব্যক্তিরা এদের হাত থেকে রক্ষা পেতেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X