শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৮:৫৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, June 6, 2017 9:15 am
A- A A+ Print

‘দানবীয়’ রকেট

ad1fb57d8fb8336d7b6969b2631fc0fa-5935b440dcfa3

রকেটটি ২০০টি হাতি কিংবা পাঁচটি সুবিশাল জেট বিমানের সমান। এটিই ভারতের সবচেয়ে ভারী রকেট, যার ওজন ৬৪০ টন। সুবিশাল এই মহাকাশযান গতকাল সোমবার বঙ্গোপসাগরের শ্রীহরিকোটা (অন্ধ্র প্রদেশ) থেকে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে।

স্থানীয় একটি সংবাদপত্র এই রকেটকে ‘দানবীয়’ আখ্যা দিয়েছে। ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থার (ইসরো) ভাষ্য, এটা দেশের জন্য এক গুরুত্বপূর্ণ অর্জনের দিন। এখন থেকে ভারতকে আর ভারী স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের জন্য ইউরোপীয় রকেটের ওপর ভরসা করে থাকতে হবে না।

বাণিজ্যিক স্যাটেলাইটের বিশ্ববাজারে ভারতের অংশীদার দিনে দিনে বাড়ছে। ১৪০ ফুট লম্বা রকেটটির নাম জিএসএলভি মার্ক দ্য থার্ড। এটি কক্ষপথের সমান উচ্চতায় তিন টনের বেশি জিনিসপত্র পরিবহন করতে পারে। অবশ্য এটি স্যাটার্ন দ্য ফিফথ রকেটের চেয়ে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসার ওই রকেট ১৯৬৭ থেকে ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত ব্যবহৃত হয়েছে।

ইসরোর আশা, তারা ২০২৪ নাগাদ এই দানবীয় রকেটে করে একজন নভোচারীকে মহাকাশে পাঠাতে পারবে।

যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও রাশিয়ার পর মহাশূন্যে মানুষ পাঠানোর কৃতিত্বের অধিকারী চতুর্থ দেশ হওয়ার স্বপ্ন দেখছে ভারত।

এনডিটিভি লিখেছে, ভারতের নতুন রকেটটি পাঁচটি জাম্বো জেটবিমানের সমান ভারী। বেশি ওজনের কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট পাঠানোর ক্ষেত্রে রকেটের ওজনও বেশি হওয়া জরুরি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিভিন্ন ধরনের স্যাটেলাইট পাঠানোর ক্ষেত্রে ভারত এখন আগের চেয়ে স্বচ্ছন্দ হতে পারবে।

ইনস্টিটিউট ফর ডিফেন্স স্টাডিজ অ্যান্ড অ্যানালাইসিসের বিশ্লেষক অজয় লেলে বলেন, ভারত আগে দুই টন পর্যন্ত ওজনের স্যাটেলাইট পাঠাতে পারত। এখন সেই সামর্থ্য দ্বিগুণ হলো।

Comments

Comments!

 ‘দানবীয়’ রকেটAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘দানবীয়’ রকেট

Tuesday, June 6, 2017 9:15 am
ad1fb57d8fb8336d7b6969b2631fc0fa-5935b440dcfa3

রকেটটি ২০০টি হাতি কিংবা পাঁচটি সুবিশাল জেট বিমানের সমান। এটিই ভারতের সবচেয়ে ভারী রকেট, যার ওজন ৬৪০ টন। সুবিশাল এই মহাকাশযান গতকাল সোমবার বঙ্গোপসাগরের শ্রীহরিকোটা (অন্ধ্র প্রদেশ) থেকে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে।

স্থানীয় একটি সংবাদপত্র এই রকেটকে ‘দানবীয়’ আখ্যা দিয়েছে। ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থার (ইসরো) ভাষ্য, এটা দেশের জন্য এক গুরুত্বপূর্ণ অর্জনের দিন। এখন থেকে ভারতকে আর ভারী স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের জন্য ইউরোপীয় রকেটের ওপর ভরসা করে থাকতে হবে না।

বাণিজ্যিক স্যাটেলাইটের বিশ্ববাজারে ভারতের অংশীদার দিনে দিনে বাড়ছে। ১৪০ ফুট লম্বা রকেটটির নাম জিএসএলভি মার্ক দ্য থার্ড। এটি কক্ষপথের সমান উচ্চতায় তিন টনের বেশি জিনিসপত্র পরিবহন করতে পারে। অবশ্য এটি স্যাটার্ন দ্য ফিফথ রকেটের চেয়ে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসার ওই রকেট ১৯৬৭ থেকে ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত ব্যবহৃত হয়েছে।

ইসরোর আশা, তারা ২০২৪ নাগাদ এই দানবীয় রকেটে করে একজন নভোচারীকে মহাকাশে পাঠাতে পারবে।

যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও রাশিয়ার পর মহাশূন্যে মানুষ পাঠানোর কৃতিত্বের অধিকারী চতুর্থ দেশ হওয়ার স্বপ্ন দেখছে ভারত।

এনডিটিভি লিখেছে, ভারতের নতুন রকেটটি পাঁচটি জাম্বো জেটবিমানের সমান ভারী। বেশি ওজনের কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট পাঠানোর ক্ষেত্রে রকেটের ওজনও বেশি হওয়া জরুরি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিভিন্ন ধরনের স্যাটেলাইট পাঠানোর ক্ষেত্রে ভারত এখন আগের চেয়ে স্বচ্ছন্দ হতে পারবে।

ইনস্টিটিউট ফর ডিফেন্স স্টাডিজ অ্যান্ড অ্যানালাইসিসের বিশ্লেষক অজয় লেলে বলেন, ভারত আগে দুই টন পর্যন্ত ওজনের স্যাটেলাইট পাঠাতে পারত। এখন সেই সামর্থ্য দ্বিগুণ হলো।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X