রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:২৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, June 27, 2017 8:14 pm
A- A A+ Print

দু’পক্ষে উত্তেজনায় সীমান্তে শক্তিবৃদ্ধি, ভারতের বিরুদ্ধে ‘অনুপ্রবেশের’ অভিযোগ চীনের

177426_1

বেইজিং: চীন-ভারতের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করেছে। এরই মধ্যে দু’দেশের মধ্যে ঘনঘটা বেজে উঠেছে। উভয়পক্ষ সীমান্তে শক্তি বৃদ্ধি করার খবর পাওয়া যাচ্ছে। যেকোনো মুহূর্তে এই যুদ্ধ বেঁধে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, চীন অভিযোগ করেছে, সিকিম ও তিব্বতের মাঝখানে তাদের ভূখন্ডের ভেতরে অনুপ্রবেশ করেছে ভারতীয় সেনারা। এ নিয়ে বিতন্ডার কারণে দু’দেশের মধ্যেকার সম্পর্কে উত্তেজনা বেড়ে গিয়েছে। কর্মকর্তারা বলছেন, ভারতের সীমান্তরক্ষীরা চীনের ভূখন্ডে ঢুকে স্বাভাবিক কাজকর্মে বিঘ্ন সৃষ্টি করেছে, এবং তারা তাদেরকে অবিলম্বে প্রত্যাহার করে নিতে ভারতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। চীন আরো অভিযোগ করছে যে তাদের ভূখন্ডের মধ্যে একটি রাস্তা তৈরির কাজেও ভারত বাধা সৃষ্টি করছে। কিছুদিন আগে ভারতও অভিযোগ করেছিল যে চীনের সৈন্যরা তাদের ভূখন্ডে ঢুকে পড়েছে। নাত্থু লা গিরিপথ নামের এই জায়গাটি ভারতীয়রা ব্যবহার করে - যাতে তারা তিব্বতের হিন্দু ও বৌদ্ধ ধর্মীয় স্থানগুলোতে যেতে পারে। ভারতের সংবাদ মাধ্যমে খবর বেরিয়েছে, গত কয়েক সপ্তাহে ভারতীয় ও চীনা সীমান্তরক্ষীদের মধ্যে উভয় দিক থেকেই উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। সে সময় অভিযোগ ওঠে যে চীন সৈন্যরা সিকিমেরে ভেতরে ঢুকে ভারতীয় সৈন্যদের দুটি বাংকার ধ্বংস করে দিয়েছে। এর পরই বেজিং সীমান্ত পেরিয়ে তীর্থযাত্রীদের যাওয়া-আসা বন্ধ করে দেয়। চীন ও ভারতের মধ্যে ১৯৬৭ সালে এই জায়গাটিতেই সংঘর্ষ হয়েছিল। এখনো মাঝে মাঝেই এখানে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়ে থাকে। রয়টার বার্তা সংস্থা বলছে, চীনা কর্মকর্তারা সতর্ক করে দিয়েছেন যে সবশেষ এ ঘটনা 'শান্তি বিঘ্নিত' হতে পারে। ভারতের দিক থেকে এসব অভিযোগের ব্যাপারে কোনো আনুষ্ঠানিক মন্তব্য পাওয়া যায় নি।

Comments

Comments!

 দু’পক্ষে উত্তেজনায় সীমান্তে শক্তিবৃদ্ধি, ভারতের বিরুদ্ধে ‘অনুপ্রবেশের’ অভিযোগ চীনেরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

দু’পক্ষে উত্তেজনায় সীমান্তে শক্তিবৃদ্ধি, ভারতের বিরুদ্ধে ‘অনুপ্রবেশের’ অভিযোগ চীনের

Tuesday, June 27, 2017 8:14 pm
177426_1

বেইজিং: চীন-ভারতের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করেছে। এরই মধ্যে দু’দেশের মধ্যে ঘনঘটা বেজে উঠেছে। উভয়পক্ষ সীমান্তে শক্তি বৃদ্ধি করার খবর পাওয়া যাচ্ছে। যেকোনো মুহূর্তে এই যুদ্ধ বেঁধে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, চীন অভিযোগ করেছে, সিকিম ও তিব্বতের মাঝখানে তাদের ভূখন্ডের ভেতরে অনুপ্রবেশ করেছে ভারতীয় সেনারা।

এ নিয়ে বিতন্ডার কারণে দু’দেশের মধ্যেকার সম্পর্কে উত্তেজনা বেড়ে গিয়েছে।

কর্মকর্তারা বলছেন, ভারতের সীমান্তরক্ষীরা চীনের ভূখন্ডে ঢুকে স্বাভাবিক কাজকর্মে বিঘ্ন সৃষ্টি করেছে, এবং তারা তাদেরকে অবিলম্বে প্রত্যাহার করে নিতে ভারতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

চীন আরো অভিযোগ করছে যে তাদের ভূখন্ডের মধ্যে একটি রাস্তা তৈরির কাজেও ভারত বাধা সৃষ্টি করছে।

কিছুদিন আগে ভারতও অভিযোগ করেছিল যে চীনের সৈন্যরা তাদের ভূখন্ডে ঢুকে পড়েছে।

নাত্থু লা গিরিপথ নামের এই জায়গাটি ভারতীয়রা ব্যবহার করে – যাতে তারা তিব্বতের হিন্দু ও বৌদ্ধ ধর্মীয় স্থানগুলোতে যেতে পারে।

ভারতের সংবাদ মাধ্যমে খবর বেরিয়েছে, গত কয়েক সপ্তাহে ভারতীয় ও চীনা সীমান্তরক্ষীদের মধ্যে উভয় দিক থেকেই উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। সে সময় অভিযোগ ওঠে যে চীন সৈন্যরা সিকিমেরে ভেতরে ঢুকে ভারতীয় সৈন্যদের দুটি বাংকার ধ্বংস করে দিয়েছে।

এর পরই বেজিং সীমান্ত পেরিয়ে তীর্থযাত্রীদের যাওয়া-আসা বন্ধ করে দেয়।

চীন ও ভারতের মধ্যে ১৯৬৭ সালে এই জায়গাটিতেই সংঘর্ষ হয়েছিল। এখনো মাঝে মাঝেই এখানে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়ে থাকে।

রয়টার বার্তা সংস্থা বলছে, চীনা কর্মকর্তারা সতর্ক করে দিয়েছেন যে সবশেষ এ ঘটনা ‘শান্তি বিঘ্নিত’ হতে পারে।

ভারতের দিক থেকে এসব অভিযোগের ব্যাপারে কোনো আনুষ্ঠানিক মন্তব্য পাওয়া যায় নি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X