সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৭:৩৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, December 8, 2016 2:33 am
A- A A+ Print

নওয়াজ শরীফের ‘স্যার’ পদবি নিয়ে বিতর্ক

43783_f55

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের ‘স্যার’ পদবি নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। দাবি করা হয়েছে, ১৯৯৭ সালে পাকিস্তানের সুবর্ণজয়ন্তীতে তখনকার প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফকে ‘স্যার’ খেতাব দিয়েছিলেন বৃটেনের রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ। কিন্তু এর প্রতিবাদে আদালতে পিটিশন দিয়েছেন ব্যারিস্টার জাভেদ ইকবাল জাফরি। তার আবেদনের প্রেক্ষিতে লাহোর হাইকোর্ট মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় সরকারের কাউন্সেলরকে নির্দেশ দিয়েছেন এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে জবাব জানাতে। এ খবর দিয়েছে পাকিস্তানের অনলাইন ডন। ব্যারিস্টার জাভেদ তার আবেদনে দাবি করেন, একই পদবী ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে প্রস্তাব করা হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানান। আবেদনে তিনি আরো বলেন, ওই পদবী  গ্রহণ করার আগে এ বিষয়ে পার্লামেন্টের অনুমোদন নেননি নওয়াজ শরীফ। এ বিষয়ে কোনো গেজেটও প্রকাশ করা হয়নি। তাই নওয়াজ শরীফকে ‘স্যার’ পদবী বন্ধ করতে আদালতের নির্দেশ প্রার্থনা করেন তিনি। মঙ্গলবারের শুনানিতে নওয়াজের পক্ষে আদালতে উপস্থিত ছিলেন স্ট্যান্ডিং কাউন্সেল নাদিম আনজুম। এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী নওয়াজের জবাব দাখিলের জন্য সময় প্রার্থনা করেন। কিন্তু এ মামলাটি বার বার মুলতবি হয়ে যাওয়ায় আদালত ক্ষুব্ধ হন। তিনি কঠোর কোনো নির্দেশ দেয়ার আগে প্রধানমন্ত্রীর জবাব দাখিলের জন্য নাজিম আনজুমকে নির্দেশ দেন বিচারপতি মামুন রশিদ শেখ। এরপর আগামী ১৯শে ডিসেম্বর তিনি শুনানি মুলতবি করেন। সেদিন প্রধানমন্ত্রীর জবাবসহ আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেন আনজুমকে। ওদিকে কথিত দুর্নীতির অভিযোগে প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরীফকে অযোগ্য ঘোষণার একটি আবেদন প্রত্যাখ্যান করেছেন লাহোর হাইকোর্টের বিচারক শামস মাহমুদ মির্জা।

Comments

Comments!

 নওয়াজ শরীফের ‘স্যার’ পদবি নিয়ে বিতর্কAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নওয়াজ শরীফের ‘স্যার’ পদবি নিয়ে বিতর্ক

Thursday, December 8, 2016 2:33 am
43783_f55

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের ‘স্যার’ পদবি নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। দাবি করা হয়েছে, ১৯৯৭ সালে পাকিস্তানের সুবর্ণজয়ন্তীতে তখনকার প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফকে ‘স্যার’ খেতাব দিয়েছিলেন বৃটেনের রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ। কিন্তু এর প্রতিবাদে আদালতে পিটিশন দিয়েছেন ব্যারিস্টার জাভেদ ইকবাল জাফরি। তার আবেদনের প্রেক্ষিতে লাহোর হাইকোর্ট মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় সরকারের কাউন্সেলরকে নির্দেশ দিয়েছেন এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে জবাব জানাতে। এ খবর দিয়েছে পাকিস্তানের অনলাইন ডন। ব্যারিস্টার জাভেদ তার আবেদনে দাবি করেন, একই পদবী ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে প্রস্তাব করা হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানান। আবেদনে তিনি আরো বলেন, ওই পদবী  গ্রহণ করার আগে এ বিষয়ে পার্লামেন্টের অনুমোদন নেননি নওয়াজ শরীফ। এ বিষয়ে কোনো গেজেটও প্রকাশ করা হয়নি। তাই নওয়াজ শরীফকে ‘স্যার’ পদবী বন্ধ করতে আদালতের নির্দেশ প্রার্থনা করেন তিনি। মঙ্গলবারের শুনানিতে নওয়াজের পক্ষে আদালতে উপস্থিত ছিলেন স্ট্যান্ডিং কাউন্সেল নাদিম আনজুম। এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী নওয়াজের জবাব দাখিলের জন্য সময় প্রার্থনা করেন। কিন্তু এ মামলাটি বার বার মুলতবি হয়ে যাওয়ায় আদালত ক্ষুব্ধ হন। তিনি কঠোর কোনো নির্দেশ দেয়ার আগে প্রধানমন্ত্রীর জবাব দাখিলের জন্য নাজিম আনজুমকে নির্দেশ দেন বিচারপতি মামুন রশিদ শেখ। এরপর আগামী ১৯শে ডিসেম্বর তিনি শুনানি মুলতবি করেন। সেদিন প্রধানমন্ত্রীর জবাবসহ আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেন আনজুমকে। ওদিকে কথিত দুর্নীতির অভিযোগে প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরীফকে অযোগ্য ঘোষণার একটি আবেদন প্রত্যাখ্যান করেছেন লাহোর হাইকোর্টের বিচারক শামস মাহমুদ মির্জা।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X