রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১২:০০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, October 26, 2016 7:19 am
A- A A+ Print

নতুন কমিটি মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ ?

253202_1

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনের সাজসজ্জার চমক ছিল দলটির ইতিহাসে স্মরণীয়। এর আগে একাধিকবার সম্মেলন পিছিয়ে যাওয়ায় দলের নেতাকর্মীসহ নানা মহলের লোকজন ধরে নিয়েছিল আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিতে চমক থাকছে। কিন্তু সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে নতুন কমিটিতে ২১ জন ও মঙ্গলবার আরও ২২ জনের যে নাম ঘোষণা করা হয়েছে তাতে নতুন মুখ মাত্র ৪ জন। বাকি ৩৯ জনই পুরাতন। কমিটিতে যাদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে, এতে দেখা যায় ঘুরেফিরে পুরাতনরাই নতুন কমিটিতে। অর্থাৎ, দলের পুরাতন আর নতুন কমিটির পার্থক্য হলো একই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। ২০১৬-২০১৯ সাল পযর্ন্ত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ এ কমিটি পাস করা হয়েছে। প্রায় চার মাস ধরে প্রস্তুতির পর দলটির শীর্ষ নেতারাও বিভিন্ন সভা-সেমিনারে বলে আসছিলেন নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে সাজতে যাচ্ছে এবারের নতুন নেতৃত্ব। আসছেও নতুন মুখ। তবে এ নিয়ে জল্পনা-কল্পনার কমতি ছিল না। অপরদিকে এই আভাসের পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্রলীগের সাবেক নেতারাসহ দলের সহযোগী সংগঠনের এক ঝাঁক তরুণ নেতা আস্থা ফেরাতে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখেছেন শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে। দলের প্রায় প্রতিটি সভা-সেমিনারে উপস্থিত থেকে কেন্দ্রীয় নেতাদের দৃষ্টি কেড়েছেন। সম্মেলেনের দ্বিতীয় দিন কাউন্সিল অধিবেশনে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা (বয়সের কথা উল্লেখ করে) পদ থেকে সরে যাওয়ার কথা বললেও কাউন্সিলরদের চরম বিরোধিতার মুখে তিনি তা পারেননি। পরে তাকেই স্বপদে বহাল থাকতে হয়েছে। অন্যদিকে, দলের সাধারণ সম্পাদক পদে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বহাল থাকছেন এ বিষয়ে নিশ্চিত ছিলেন দলীয় নেতাকর্মীদের অনেকেই। তবে, সম্মেলনের আগের দিন এর মোড় ঘুরে যায়। এই পদে প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আসছেন বলে পুরোদমে গুঞ্জন ওঠে। অবশেষে নির্বাচনের মাধ্যমে তাকেই সব শেষে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হয়। বাদ পড়ে যান আশরাফুল ইসলাম। এদিকে, সভা-সেমিনারগুলোতে দলের নীতি-নির্ধারকরা পদ বাড়ানোর তাগিদ দিয়ে পরিবর্তনের কথা উল্লেখ করলেও ঘোষিত নতুন কমিটিতে দেখা গেছে, পুরাতনরাই ঘুরেফিরে নতুন চমক। কাউন্সিল অধিবেশনে ঘোষিত সভাপতি মণ্ডলীর সদস্যদের মধ্যে স্বপদে বহাল বয়েছেন, সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি, বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি, শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, মোহাম্মদ নাসিম এমপি, কাজী জাফর উল্লাহ, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি, ইঞ্জি. মোশাররফ হোসেন এমপি। একই ভাবে পুরাতন কিমিটির অন্যান্য পদ থেকে নতুন এসেছেন, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এমপি, শ্রী পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য্য, নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এমপি, লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি, শ্রী রমেশ চন্দ্র সেন এমপি ও অ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নান খান। এছাড়া, তিন সদস্যপদ ফাঁকা রয়েছে। যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে, মাহবুব উল-আলম হানিফ এমপি, ডা. দীপু মণি এমপি, জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি স্বপদে বহাল। নতুন এসেছেন, আব্দুর রহমান এমপি। অন্যান্য পদে বহাল রয়েছেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল মতিন খসরু এমপি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাড. আফজাল হোসেন, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ অ্যাড. শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মহিলা ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন নেছা ইন্দিরা এমপি, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. আব্দুছ ছাত্তার, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ। পদে নতুন যারা, অর্থ ও পরিকল্পনা সম্পাদক টিপু মুন্সি এমপি, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক শ্রী সুজিত রায় নন্দী, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মৃণাল কান্তি দাস এমপি, শিক্ষা ও মানব সম্পদ সম্পাদক শামসুন নাহার চাঁপা, সাংস্কৃতিক সম্পাদক শ্রী অসীম কুমার উকিল, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা। সাংগঠনিক সম্পাদক রয়েছেন ৮ জন। তারা হলেন, আহমদ হোসেন,মো. মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ অ্যাড. বি. এম মোজাম্মেল হক এমপি, আ. ফ. ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি, একেএম এনামুল হক শামীম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি ও ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। পুরাতন কমিটির মধ্য বীর বাহাদুরের জায়গায় একেএম এনামুল হক শামীম এবং নতুন মহিবুল চৌধুরী নওফেল ছাড়া সবাই স্বপদে বহাল হয়েছেন। কোষাধ্যক্ষ পদে অপরিবর্তিত রয়েছেন এইচ. এন আশিকুর রহমান এমপি।

Comments

Comments!

 নতুন কমিটি মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ ?AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নতুন কমিটি মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ ?

Wednesday, October 26, 2016 7:19 am
253202_1

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনের সাজসজ্জার চমক ছিল দলটির ইতিহাসে স্মরণীয়। এর আগে একাধিকবার সম্মেলন পিছিয়ে যাওয়ায় দলের নেতাকর্মীসহ নানা মহলের লোকজন ধরে নিয়েছিল আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিতে চমক থাকছে।

কিন্তু সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে নতুন কমিটিতে ২১ জন ও মঙ্গলবার আরও ২২ জনের যে নাম ঘোষণা করা হয়েছে তাতে নতুন মুখ মাত্র ৪ জন। বাকি ৩৯ জনই পুরাতন। কমিটিতে যাদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে, এতে দেখা যায় ঘুরেফিরে পুরাতনরাই নতুন কমিটিতে। অর্থাৎ, দলের পুরাতন আর নতুন কমিটির পার্থক্য হলো একই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ।

২০১৬-২০১৯ সাল পযর্ন্ত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ এ কমিটি পাস করা হয়েছে।

প্রায় চার মাস ধরে প্রস্তুতির পর দলটির শীর্ষ নেতারাও বিভিন্ন সভা-সেমিনারে বলে আসছিলেন নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে সাজতে যাচ্ছে এবারের নতুন নেতৃত্ব। আসছেও নতুন মুখ। তবে এ নিয়ে জল্পনা-কল্পনার কমতি ছিল না।

অপরদিকে এই আভাসের পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্রলীগের সাবেক নেতারাসহ দলের সহযোগী সংগঠনের এক ঝাঁক তরুণ নেতা আস্থা ফেরাতে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখেছেন শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে। দলের প্রায় প্রতিটি সভা-সেমিনারে উপস্থিত থেকে কেন্দ্রীয় নেতাদের দৃষ্টি কেড়েছেন।

সম্মেলেনের দ্বিতীয় দিন কাউন্সিল অধিবেশনে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা (বয়সের কথা উল্লেখ করে) পদ থেকে সরে যাওয়ার কথা বললেও কাউন্সিলরদের চরম বিরোধিতার মুখে তিনি তা পারেননি। পরে তাকেই স্বপদে বহাল থাকতে হয়েছে।

অন্যদিকে, দলের সাধারণ সম্পাদক পদে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বহাল থাকছেন এ বিষয়ে নিশ্চিত ছিলেন দলীয় নেতাকর্মীদের অনেকেই। তবে, সম্মেলনের আগের দিন এর মোড় ঘুরে যায়। এই পদে প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আসছেন বলে পুরোদমে গুঞ্জন ওঠে। অবশেষে নির্বাচনের মাধ্যমে তাকেই সব শেষে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হয়। বাদ পড়ে যান আশরাফুল ইসলাম।

এদিকে, সভা-সেমিনারগুলোতে দলের নীতি-নির্ধারকরা পদ বাড়ানোর তাগিদ দিয়ে পরিবর্তনের কথা উল্লেখ করলেও ঘোষিত নতুন কমিটিতে দেখা গেছে, পুরাতনরাই ঘুরেফিরে নতুন চমক।

কাউন্সিল অধিবেশনে ঘোষিত সভাপতি মণ্ডলীর সদস্যদের মধ্যে স্বপদে বহাল বয়েছেন, সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি, বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি, শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, মোহাম্মদ নাসিম এমপি, কাজী জাফর উল্লাহ, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি, ইঞ্জি. মোশাররফ হোসেন এমপি।

একই ভাবে পুরাতন কিমিটির অন্যান্য পদ থেকে নতুন এসেছেন, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এমপি, শ্রী পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য্য, নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এমপি, লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি, শ্রী রমেশ চন্দ্র সেন এমপি ও অ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নান খান। এছাড়া, তিন সদস্যপদ ফাঁকা রয়েছে।

যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে, মাহবুব উল-আলম হানিফ এমপি, ডা. দীপু মণি এমপি, জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি স্বপদে বহাল। নতুন এসেছেন, আব্দুর রহমান এমপি।

অন্যান্য পদে বহাল রয়েছেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল মতিন খসরু এমপি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাড. আফজাল হোসেন, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ অ্যাড. শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মহিলা ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন নেছা ইন্দিরা এমপি, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. আব্দুছ ছাত্তার, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ।

পদে নতুন যারা, অর্থ ও পরিকল্পনা সম্পাদক টিপু মুন্সি এমপি, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক শ্রী সুজিত রায় নন্দী, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মৃণাল কান্তি দাস এমপি, শিক্ষা ও মানব সম্পদ সম্পাদক শামসুন নাহার চাঁপা, সাংস্কৃতিক সম্পাদক শ্রী অসীম কুমার উকিল, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা।

সাংগঠনিক সম্পাদক রয়েছেন ৮ জন। তারা হলেন, আহমদ হোসেন,মো. মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ অ্যাড. বি. এম মোজাম্মেল হক এমপি, আ. ফ. ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি, একেএম এনামুল হক শামীম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি ও ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। পুরাতন কমিটির মধ্য বীর বাহাদুরের জায়গায় একেএম এনামুল হক শামীম এবং নতুন মহিবুল চৌধুরী নওফেল ছাড়া সবাই স্বপদে বহাল হয়েছেন। কোষাধ্যক্ষ পদে অপরিবর্তিত রয়েছেন এইচ. এন আশিকুর রহমান এমপি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X