বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:১৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, July 30, 2016 10:30 pm
A- A A+ Print

নতুন দাম্পত্য জীবন সুখি করতে চান…?

148589_1

   
ঢাকা: বিয়ে এমন-ই এক পারস্পরিক সম্পর্ক, যেখানে পারস্পরিক শ্রদ্ধা-দায়িত্ব ভাগাভাগিতে নিয়োজিত থাকতে হয় দুই মেরুর দুই বাসিন্দাকেও। হয়তো আপনার সঙ্গীটি খুব বদরাগী। কিন্তু খুব সহজেই আপনি তার মেজাজকে বাগে আনতে পারেন, এইতো সম্পর্কের রসায়ন। এই রসায়নে যদি এগিয়েই চলেন তবে কে বলে পস্তানো আছে এই যৌথ জীবনে? বিয়ে পরবর্তী জীবন একটা অনুভূতির মধ্য দিয়ে প্রবাহমান। এই সম্পর্কে ভালোবাসা-শ্রদ্ধা নিত্যসঙ্গী। যৌথ জীবনের শুরুতে নিজেদের পারস্পরিক বোঝাপড়াটা ঠিক করে নিতে হবে সবার আগে।
যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডের বিয়ে এবং পরিবার বিশেষজ্ঞ ওলগা বচ মনে করেন, বিয়ের ক্ষেত্রে অনেকে ভাবেন সন্তান জন্মদানের মধ্য দিয়ে হয়তো বিয়ের সম্পর্কটা আরো সুন্দর হতে পারে। কিন্তু সব ক্ষেত্রে কথাটা যুক্তিসঙ্গত নয়। কারণ যারা বিবাহিত জীবনে সত্যিকার অর্থে সুখী তাদের ঘরে সন্তান আসলে সেই সুখটা বেড়ে যায় আরো। তিনি যোগ করেন, কিন্তু বিবাহিত জীবন যার সারাক্ষণ খিটিমিটিতে চলে যায় সেই সংসারে সন্তান বরং নতুন দুশ্চিন্তার জন্ম দেয়। কারণ একটি শিশু লালন পালন করা খুবই কৌশল এবং পরিশ্রমের বিষয়। দ্বিধাদন্দ্ব-ভয়ের যে সম্পর্কগুলো তাতে দম্পত্তিদের সন্তান নেওয়া হয়তো সম্পর্কের সুরটাকে তালের চেয়ে বেতাল করে দেয় অনেকখানি। বিবাহিত জীবন সম্পর্কে কলোরোডের বিয়ে এবং পরিবার বিশেষজ্ঞ আরন এন্ডারসন বলেন, একটি সম্পর্কে জটিলতা থাকে নানা ধরনের। নিজ জীবনের জটিলতায় অনেক সময় দাম্পত্য জীবনেও প্রভাব ফেলে নেতিবাচক। আমার কাছে যেসব দম্পত্তিরা তাদের জীবনের সমস্যাগুলো নিয়ে আসেন দেখা যায় কারো সমস্যার সমাধান হয়ে যায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে। তিনি বলেন, কারো কারো লেগে যায় সপ্তাহখানেক। কারো আবার ক্যালেন্ডারের পাতায় ঘুরে যায় বছর। কেউ কেউ সচেতন থাকেন সঙ্গী বা সঙ্গীনীর পছন্দের ব্যাপারটিতে। কেউবা উদাসীন। সচেতন যারা তারাই জীবনটাকে উপভোগ করতে পারেন শতভাগ। এন্ডারসন বলেন, প্রতিটি সম্পর্ক হচ্ছে একটা মঞ্চ নাটকের মতো। আপনি যত সুন্দর করে পারফর্ম করবেন সম্পর্ক তত সুন্দর হবে। নইলে তো দুই ধরনের চারিত্রিক সম্পর্কের দুজন মানুষ একসঙ্গে বসবাস করতে পারতেন না। তবে সম্পর্কের ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে দুইজনের কাছাকাছি থাকা। আমি এমন অনেক সম্পর্ক দেখেছি যেখানে স্বামী-স্ত্রী আলাদা থাকার কারণে ক্রমেই জটিল হয়ে উঠে সম্পর্ক। আরন এন্ডারসন বিবাহিত জীবন নিয়ে তার ভাবনার ক্ষেত্রে আবারো মনে করিয়ে দেন-অনেকে ভাবেন বিয়ে করলে পারস্পরিক যে রোমাঞ্চকর সম্পর্কটি থাকে দুজনের তা কমে যায়। কিন্তু আসলে তা পুরোটা ঠিক নয়। মন থেকে যে অনুভূতি আসে সেই ভালোবাসাটি যদি পুষে রাখেন জীবনে তাহলে সম্পর্কে একঘেয়েমিতে আক্রান্ত হবেন না। প্রেমিক যুগলের মতো বিবাহিত যুগলেও সফল হতে পারবেন আপনারা। মানুষ তার স্বভাবগুণেই ভাবতে বসে সে যা পছন্দ করে, তার যা চাহিদা খুব সহজেই তার সঙ্গী সেটা বুঝতে পারবে। এবং সেই অনুযায়ী সে তার চাহিদা পূরণ করবে। যদি কোনো কিছু পছন্দ-ই হয় কিংবা চাওয়া-পাওয়ার থাকে তবে তা মুখ ফুঠে বলে কিংবা আলাপ-আলোচনার মধ্যেই মিটিয়ে নেয়া ভালো বলে মনে করেন ক্যালিফোর্নিয়ার বিয়ে এবং পরিবার বিশেষজ্ঞ এন্ড্রো ওয়াচার। টেনেসির দম্পত্তি বিশেষজ্ঞ জিয়ানি ইংগ্রাম মনে করেন, ভালোবাসা হচ্ছে একটি লোভনীয় সম্পর্ক। এবং প্রতিটি মানুষ চায় তার জীবনে এই অনুভূতিটুকু আসুক ঘুরে ফিরে। সত্যিকারের বিবাহিত জীবন কিংবা ভালোবাসা যাই বলুন না কেন আপনাকে হতে হবে দায়িত্বশীল। দায়িত্ব, গাঢ় শ্রদ্ধাবোধের মধ্য দিয়ে প্রতি মুহূর্তে আপনার সঙ্গীটিকে আপনি প্রমাণ করতে পারেন কত ভালো তাকে বাসেন আপনি।
 

Comments

Comments!

 নতুন দাম্পত্য জীবন সুখি করতে চান…?AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নতুন দাম্পত্য জীবন সুখি করতে চান…?

Saturday, July 30, 2016 10:30 pm
148589_1

 

 

ঢাকা: বিয়ে এমন-ই এক পারস্পরিক সম্পর্ক, যেখানে পারস্পরিক শ্রদ্ধা-দায়িত্ব ভাগাভাগিতে নিয়োজিত থাকতে হয় দুই মেরুর দুই বাসিন্দাকেও। হয়তো আপনার সঙ্গীটি খুব বদরাগী।

কিন্তু খুব সহজেই আপনি তার মেজাজকে বাগে আনতে পারেন, এইতো সম্পর্কের রসায়ন। এই রসায়নে যদি এগিয়েই চলেন তবে কে বলে পস্তানো আছে এই যৌথ জীবনে?

বিয়ে পরবর্তী জীবন একটা অনুভূতির মধ্য দিয়ে প্রবাহমান। এই সম্পর্কে ভালোবাসা-শ্রদ্ধা নিত্যসঙ্গী। যৌথ জীবনের শুরুতে নিজেদের পারস্পরিক বোঝাপড়াটা ঠিক করে নিতে হবে সবার আগে।

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডের বিয়ে এবং পরিবার বিশেষজ্ঞ ওলগা বচ মনে করেন, বিয়ের ক্ষেত্রে অনেকে ভাবেন সন্তান জন্মদানের মধ্য দিয়ে হয়তো বিয়ের সম্পর্কটা আরো সুন্দর হতে পারে। কিন্তু সব ক্ষেত্রে কথাটা যুক্তিসঙ্গত নয়। কারণ যারা বিবাহিত জীবনে সত্যিকার অর্থে সুখী তাদের ঘরে সন্তান আসলে সেই সুখটা বেড়ে যায় আরো।

তিনি যোগ করেন, কিন্তু বিবাহিত জীবন যার সারাক্ষণ খিটিমিটিতে চলে যায় সেই সংসারে সন্তান বরং নতুন দুশ্চিন্তার জন্ম দেয়। কারণ একটি শিশু লালন পালন করা খুবই কৌশল এবং পরিশ্রমের বিষয়। দ্বিধাদন্দ্ব-ভয়ের যে সম্পর্কগুলো তাতে দম্পত্তিদের সন্তান নেওয়া হয়তো সম্পর্কের সুরটাকে তালের চেয়ে বেতাল করে দেয় অনেকখানি।

বিবাহিত জীবন সম্পর্কে কলোরোডের বিয়ে এবং পরিবার বিশেষজ্ঞ আরন এন্ডারসন বলেন, একটি সম্পর্কে জটিলতা থাকে নানা ধরনের। নিজ জীবনের জটিলতায় অনেক সময় দাম্পত্য জীবনেও প্রভাব ফেলে নেতিবাচক। আমার কাছে যেসব দম্পত্তিরা তাদের জীবনের সমস্যাগুলো নিয়ে আসেন দেখা যায় কারো সমস্যার সমাধান হয়ে যায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে।

তিনি বলেন, কারো কারো লেগে যায় সপ্তাহখানেক। কারো আবার ক্যালেন্ডারের পাতায় ঘুরে যায় বছর। কেউ কেউ সচেতন থাকেন সঙ্গী বা সঙ্গীনীর পছন্দের ব্যাপারটিতে। কেউবা উদাসীন। সচেতন যারা তারাই জীবনটাকে উপভোগ করতে পারেন শতভাগ।

এন্ডারসন বলেন, প্রতিটি সম্পর্ক হচ্ছে একটা মঞ্চ নাটকের মতো। আপনি যত সুন্দর করে পারফর্ম করবেন সম্পর্ক তত সুন্দর হবে। নইলে তো দুই ধরনের চারিত্রিক সম্পর্কের দুজন মানুষ একসঙ্গে বসবাস করতে পারতেন না। তবে সম্পর্কের ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে দুইজনের কাছাকাছি থাকা। আমি এমন অনেক সম্পর্ক দেখেছি যেখানে স্বামী-স্ত্রী আলাদা থাকার কারণে ক্রমেই জটিল হয়ে উঠে সম্পর্ক।

আরন এন্ডারসন বিবাহিত জীবন নিয়ে তার ভাবনার ক্ষেত্রে আবারো মনে করিয়ে দেন-অনেকে ভাবেন বিয়ে করলে পারস্পরিক যে রোমাঞ্চকর সম্পর্কটি থাকে দুজনের তা কমে যায়। কিন্তু আসলে তা পুরোটা ঠিক নয়। মন থেকে যে অনুভূতি আসে সেই ভালোবাসাটি যদি পুষে রাখেন জীবনে তাহলে সম্পর্কে একঘেয়েমিতে আক্রান্ত হবেন না। প্রেমিক যুগলের মতো বিবাহিত যুগলেও সফল হতে পারবেন আপনারা।

মানুষ তার স্বভাবগুণেই ভাবতে বসে সে যা পছন্দ করে, তার যা চাহিদা খুব সহজেই তার সঙ্গী সেটা বুঝতে পারবে। এবং সেই অনুযায়ী সে তার চাহিদা পূরণ করবে। যদি কোনো কিছু পছন্দ-ই হয় কিংবা চাওয়া-পাওয়ার থাকে তবে তা মুখ ফুঠে বলে কিংবা আলাপ-আলোচনার মধ্যেই মিটিয়ে নেয়া ভালো বলে মনে করেন ক্যালিফোর্নিয়ার বিয়ে এবং পরিবার বিশেষজ্ঞ এন্ড্রো ওয়াচার।

টেনেসির দম্পত্তি বিশেষজ্ঞ জিয়ানি ইংগ্রাম মনে করেন, ভালোবাসা হচ্ছে একটি লোভনীয় সম্পর্ক। এবং প্রতিটি মানুষ চায় তার জীবনে এই অনুভূতিটুকু আসুক ঘুরে ফিরে। সত্যিকারের বিবাহিত জীবন কিংবা ভালোবাসা যাই বলুন না কেন আপনাকে হতে হবে দায়িত্বশীল। দায়িত্ব, গাঢ় শ্রদ্ধাবোধের মধ্য দিয়ে প্রতি মুহূর্তে আপনার সঙ্গীটিকে আপনি প্রমাণ করতে পারেন কত ভালো তাকে বাসেন আপনি।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X