শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৪:০৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, December 5, 2016 9:25 am
A- A A+ Print

নর্থ সাউথের দুই ছাত্রসহ বনানী থেকে চারজন নিখোঁজ

images

ঢাকা: রাজধানীর বনানী এলাকা থেকে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইছাত্রসহ একদিনে চার তরুণ নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তারা হল- সাফায়েত হোসেন,জায়েন হোসেন খান পাভেল, সুজন ও মেহেদী। এর মধ্যে সাফায়েত ও পাভেল বেসরকারি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। বাকিদের মধ্যে সুজন বনানী এলাকার একটি প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। অপরজন মেহেদী সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানা যায়নি। তারা চারজনই বন্ধু। তাদের বয়স ২২ থেকে ২৫-এর মধ্যে। ১ ডিসেম্বর তার নিখোঁজ হন। এ ঘটনায় ২ ডিসেম্বর নিখোঁজ পাভেলের বাবা রাসেল খান বনানী থানায় জিডি করেছেন।
বনানী থানার উপ- পরিদর্শক এসআই সোহেল রানা জানান, তাদের সর্বশেষ অবস্থান বনানী এলাকায়। এরপর আর ট্রেস করা যায়নি। আমরা সবগুলো বিষয় সামনে রেখেই অনুসন্ধান করছি। তাদের কেউ তুলে নিয়ে গেছে, নাকি স্বেচ্ছায় ঘর ছেড়ে চলে গেছেন, তা জানার চেষ্টা চলছে। বনানী থানা সূত্রে জানা গেছে, ১ ডিসেম্বর সন্ধ্যার পর বনানী কাঁচাবাজার এলাকায় নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির পাশের একটি রেস্তোরাঁয় সাফায়েত ও পাভেল খাবার খান। তাদের সঙ্গে যোগ দেন বন্ধু সুজন। এর কিছুক্ষণ পর তারা একসঙ্গে রেস্তোরাঁ থেকে বেরিয়ে যান। এরপর থেকে তাদের আর খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরে জানা যায়, তাদের সঙ্গে মেহেদী নামে আরো এক বন্ধুও নিখোঁজ হয়েছেন। পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, একসঙ্গে চার তরুণের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি রহস্যজনক। তাদের কেউ অপহরণ করলে পরিবারের কাছে মুক্তিপণ চাইত। কিন্তু নিখোঁজ হওয়ার ৩ দিন পরও এ ধরনের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। পরিবারের সদস্য ও পুলিশ কর্মকর্তারা আইনশৃংখলা বাহিনীর অন্যান্য সংস্থায় খোঁজ নিয়েছেন। এ চারজনকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করার কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। পুলিশ কর্মকর্তাদের ধারণা, প্রাথমিক তদন্তে মনে হচ্ছে নিখোঁজ তরুণরা স্বেচ্ছায় কোনো ধর্মীয় উগ্রপন্থী সংগঠনের সঙ্গে যোগ দিয়ে থাকতে পারেন। পারিবারিক সূত্র জানায়, নিখোঁজ চার তরুণের মধ্যে পাভেল নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র। সাফায়েতও এ-লেভেল এবং ও-লেভেল সম্পন্ন করে নর্থ সাউথে ভর্তি হয়েছিল। কিন্তু পড়াশোনা বন্ধ করে দিয়ে বাবা আলী হোসেনের সঙ্গে পুরান ঢাকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে মাঝে মধ্যে বসত সাফায়েত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সাফায়েতের প্রোফাইলে গিয়ে দেখা যায় ধর্মীয় নানা বিষয়ে পোস্ট। চার তরুণের তিনজনের ফেসবুক প্রোফাইল ঘেঁটে আরো দেখা গেছে, তিনজনের একজন ২০ নভেম্বর, একজন ২৩ নভেম্বর ও অন্যজন ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত ফেসবুকে সক্রিয় ছিলেন। ১ ডিসেম্বর থেকে নিখোঁজ হলেও এর আগে ফেসবুকে তাদের আর কোনো পোস্ট দেখা যায়নি। সাফায়েতের এক স্বজন জানান, সাফায়েত নিয়মিত ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়তেন। এমনকি তাহাজ্জুদের নামাজও পড়তেন। নিখোঁজ চার বন্ধুর মধ্যে তিনজনেরই মুখে দাড়ি রয়েছে। পাভেলও ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতেন। সাফায়েত ও পাভেল ছোটবেলা থেকেই ঘনিষ্ঠ বন্ধু। আর পাভেলের মাধ্যমে সুজন ও মেহেদীর সঙ্গে সাফায়েতের পরিচয় হয়। পরে চারজনই ঘনিষ্ঠ বন্ধু হয়ে উঠে।

Comments

Comments!

 নর্থ সাউথের দুই ছাত্রসহ বনানী থেকে চারজন নিখোঁজAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নর্থ সাউথের দুই ছাত্রসহ বনানী থেকে চারজন নিখোঁজ

Monday, December 5, 2016 9:25 am
images

ঢাকা: রাজধানীর বনানী এলাকা থেকে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুইছাত্রসহ একদিনে চার তরুণ নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তারা হল- সাফায়েত হোসেন,জায়েন হোসেন খান পাভেল, সুজন ও মেহেদী।

এর মধ্যে সাফায়েত ও পাভেল বেসরকারি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। বাকিদের মধ্যে সুজন বনানী এলাকার একটি প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। অপরজন মেহেদী সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানা যায়নি।

তারা চারজনই বন্ধু। তাদের বয়স ২২ থেকে ২৫-এর মধ্যে। ১ ডিসেম্বর তার নিখোঁজ হন। এ ঘটনায় ২ ডিসেম্বর নিখোঁজ পাভেলের বাবা রাসেল খান বনানী থানায় জিডি করেছেন।

বনানী থানার উপ- পরিদর্শক এসআই সোহেল রানা জানান, তাদের সর্বশেষ অবস্থান বনানী এলাকায়। এরপর আর ট্রেস করা যায়নি। আমরা সবগুলো বিষয় সামনে রেখেই অনুসন্ধান করছি। তাদের কেউ তুলে নিয়ে গেছে, নাকি স্বেচ্ছায় ঘর ছেড়ে চলে গেছেন, তা জানার চেষ্টা চলছে।

বনানী থানা সূত্রে জানা গেছে, ১ ডিসেম্বর সন্ধ্যার পর বনানী কাঁচাবাজার এলাকায় নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির পাশের একটি রেস্তোরাঁয় সাফায়েত ও পাভেল খাবার খান। তাদের সঙ্গে যোগ দেন বন্ধু সুজন। এর কিছুক্ষণ পর তারা একসঙ্গে রেস্তোরাঁ থেকে বেরিয়ে যান। এরপর থেকে তাদের আর খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরে জানা যায়, তাদের সঙ্গে মেহেদী নামে আরো এক বন্ধুও নিখোঁজ হয়েছেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, একসঙ্গে চার তরুণের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি রহস্যজনক। তাদের কেউ অপহরণ করলে পরিবারের কাছে মুক্তিপণ চাইত। কিন্তু নিখোঁজ হওয়ার ৩ দিন পরও এ ধরনের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। পরিবারের সদস্য ও পুলিশ কর্মকর্তারা আইনশৃংখলা বাহিনীর অন্যান্য সংস্থায় খোঁজ নিয়েছেন। এ চারজনকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করার কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

পুলিশ কর্মকর্তাদের ধারণা, প্রাথমিক তদন্তে মনে হচ্ছে নিখোঁজ তরুণরা স্বেচ্ছায় কোনো ধর্মীয় উগ্রপন্থী সংগঠনের সঙ্গে যোগ দিয়ে থাকতে পারেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, নিখোঁজ চার তরুণের মধ্যে পাভেল নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র। সাফায়েতও এ-লেভেল এবং ও-লেভেল সম্পন্ন করে নর্থ সাউথে ভর্তি হয়েছিল। কিন্তু পড়াশোনা বন্ধ করে দিয়ে বাবা আলী হোসেনের সঙ্গে পুরান ঢাকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে মাঝে মধ্যে বসত সাফায়েত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সাফায়েতের প্রোফাইলে গিয়ে দেখা যায় ধর্মীয় নানা বিষয়ে পোস্ট।

চার তরুণের তিনজনের ফেসবুক প্রোফাইল ঘেঁটে আরো দেখা গেছে, তিনজনের একজন ২০ নভেম্বর, একজন ২৩ নভেম্বর ও অন্যজন ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত ফেসবুকে সক্রিয় ছিলেন। ১ ডিসেম্বর থেকে নিখোঁজ হলেও এর আগে ফেসবুকে তাদের আর কোনো পোস্ট দেখা যায়নি।

সাফায়েতের এক স্বজন জানান, সাফায়েত নিয়মিত ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়তেন। এমনকি তাহাজ্জুদের নামাজও পড়তেন।

নিখোঁজ চার বন্ধুর মধ্যে তিনজনেরই মুখে দাড়ি রয়েছে। পাভেলও ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতেন। সাফায়েত ও পাভেল ছোটবেলা থেকেই ঘনিষ্ঠ বন্ধু। আর পাভেলের মাধ্যমে সুজন ও মেহেদীর সঙ্গে সাফায়েতের পরিচয় হয়। পরে চারজনই ঘনিষ্ঠ বন্ধু হয়ে উঠে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X