রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৮:৪৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, January 31, 2017 5:33 pm
A- A A+ Print

নাগরিকত্ব নিশ্চিত হলে রোহিঙ্গা সঙ্কট দূর হবে: আনান কমিশন

21

ঢাকা: মায়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে দেশটিতে তাদের নাগরিকত্ব নিশ্চিত করা জরুরি বলে মনে করেন বাংলাদেশ সফররত আনান কমিশনের প্রতিনিধিরা। প্রতিনিধিদলের সদস্য ঘাশান সালামে বলেন, মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব নিশ্চিত করা হলে তাদের নিয়ে সেখানে যে সমস্যা তার অনেকটাই সমাধান হবে। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের (বিআইআইএসএস-বিস) মিলনায়তনে নাগরিক সমাজের সঙ্গে মতবিনিময়ের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন। এ কমিশনের প্রতিনিধিদলে রয়েছেন মায়ানমারের নাগরিক উইন ম্রা ও আই লুইন এবং লেবানিজ নাগরিক ঘাশান সালামে। ঘাশান সালামে বলেন, ‘বাংলাদেশ সফরে আমাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে, গত অক্টোবরে রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনী রোহিঙ্গাদের ওপর অভিযান চালানোর পর তাদের বর্তমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা। বিশেষ করে, ওই সময় থেকে রোহিঙ্গারা কোন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে এসেছেন, সেটা জানাটাই এ সফরের অন্যতম উদ্দেশ্য।’ ধর্মীয় কারণেই রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়ন চালানো হচ্ছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কেবল ধর্মীয় কারণে নিপীড়নের ফলেই যে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে চলে এসেছেন, তা নয়। এ সঙ্গে তাদের অধিকার, নাগরিকত্ব ও জীবিকার প্রশ্নগুলোও জড়িত। কাজেই তাদের নাগরিকত্বের সমস্যা সমাধান করাটাই অন্যতম প্রধান বিষয়।’ সফরকালে প্রতিনিধিদলটি কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকার কয়েকটি রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করে। শরণার্থীশিবিরের রোহিঙ্গারা প্রতিনিধিদলের কাছে মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে তাদের ওপর নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরেন। তারা গত বছরের অক্টোবর থেকে এ পর্যন্ত রাখাইন রাজ্যে সে দেশের সেনাবাহিনী ও পুলিশের অত্যাচার-নির্যাতনের বিষয়ে একটি চিঠিও প্রতিনিধিদলের কাছে হস্তান্তর করেন। ওই চিঠিতে এলাকা, স্থান ও সময় উল্লেখ করে বলা হয়, রাখাইন রাজ্যে অন্তত ৫০টি মসজিদ, ৫৪টি ধর্মীয় স্কুল ও ৩ হাজার ৩২৯টি ঘরবাড়ি, ১৯৬টি দোকানে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুর করা হয়েছে। এতে আরো উল্লেখ করা হয়, ৭৯৮ জন নারী ও কিশোরীকে ধর্ষণ, ৪৬৯ জনকে গুলি করে হত্যা, বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন চালিয়ে খুন করা হয়েছে ১০৮ জনকে, নৌকা ডুবিয়ে হত্যা করা হয়েছে ৭৮ জনকে এবং ৯২০ জনকে গ্রেপ্তার করে নির্যাতন চালানো হয়েছে। নাগরিক সমাজের সঙ্গে মতবিনিময়ে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক ইমতিয়াজ আহমেদ, ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, অভিবাসন-বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘রিফিউজি অ্যান্ড মাইগ্রেটরি মুভমেন্ট রিসার্চ ইউনিট’-এর (রামরু) অধ্যাপক সি আর আবরার ও অধ্যাপক তাসনীম সিদ্দিকী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক মেঘনা গুহঠাকুরতা, ব্রতীর নির্বাহী পরিচালক শারমিন মুর্শিদ, পররাষ্ট্রসচিব মো. শহিদুল হক, সাবেক রাষ্ট্রদূত আশফাকুর রহমান প্রমুখ।
 

Comments

Comments!

 নাগরিকত্ব নিশ্চিত হলে রোহিঙ্গা সঙ্কট দূর হবে: আনান কমিশনAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নাগরিকত্ব নিশ্চিত হলে রোহিঙ্গা সঙ্কট দূর হবে: আনান কমিশন

Tuesday, January 31, 2017 5:33 pm
21

ঢাকা: মায়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে দেশটিতে তাদের নাগরিকত্ব নিশ্চিত করা জরুরি বলে মনে করেন বাংলাদেশ সফররত আনান কমিশনের প্রতিনিধিরা। প্রতিনিধিদলের সদস্য ঘাশান সালামে বলেন, মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব নিশ্চিত করা হলে তাদের নিয়ে সেখানে যে সমস্যা তার অনেকটাই সমাধান হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের (বিআইআইএসএস-বিস) মিলনায়তনে নাগরিক সমাজের সঙ্গে মতবিনিময়ের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন।

এ কমিশনের প্রতিনিধিদলে রয়েছেন মায়ানমারের নাগরিক উইন ম্রা ও আই লুইন এবং লেবানিজ নাগরিক ঘাশান সালামে।

ঘাশান সালামে বলেন, ‘বাংলাদেশ সফরে আমাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে, গত অক্টোবরে রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনী রোহিঙ্গাদের ওপর অভিযান চালানোর পর তাদের বর্তমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা। বিশেষ করে, ওই সময় থেকে রোহিঙ্গারা কোন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে এসেছেন, সেটা জানাটাই এ সফরের অন্যতম উদ্দেশ্য।’

ধর্মীয় কারণেই রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়ন চালানো হচ্ছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কেবল ধর্মীয় কারণে নিপীড়নের ফলেই যে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে চলে এসেছেন, তা নয়। এ সঙ্গে তাদের অধিকার, নাগরিকত্ব ও জীবিকার প্রশ্নগুলোও জড়িত। কাজেই তাদের নাগরিকত্বের সমস্যা সমাধান করাটাই অন্যতম প্রধান বিষয়।’

সফরকালে প্রতিনিধিদলটি কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকার কয়েকটি রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করে। শরণার্থীশিবিরের রোহিঙ্গারা প্রতিনিধিদলের কাছে মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে তাদের ওপর নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরেন।

তারা গত বছরের অক্টোবর থেকে এ পর্যন্ত রাখাইন রাজ্যে সে দেশের সেনাবাহিনী ও পুলিশের অত্যাচার-নির্যাতনের বিষয়ে একটি চিঠিও প্রতিনিধিদলের কাছে হস্তান্তর করেন। ওই চিঠিতে এলাকা, স্থান ও সময় উল্লেখ করে বলা হয়, রাখাইন রাজ্যে অন্তত ৫০টি মসজিদ, ৫৪টি ধর্মীয় স্কুল ও ৩ হাজার ৩২৯টি ঘরবাড়ি, ১৯৬টি দোকানে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুর করা হয়েছে।

এতে আরো উল্লেখ করা হয়, ৭৯৮ জন নারী ও কিশোরীকে ধর্ষণ, ৪৬৯ জনকে গুলি করে হত্যা, বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন চালিয়ে খুন করা হয়েছে ১০৮ জনকে, নৌকা ডুবিয়ে হত্যা করা হয়েছে ৭৮ জনকে এবং ৯২০ জনকে গ্রেপ্তার করে নির্যাতন চালানো হয়েছে।

নাগরিক সমাজের সঙ্গে মতবিনিময়ে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক ইমতিয়াজ আহমেদ, ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, অভিবাসন-বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘রিফিউজি অ্যান্ড মাইগ্রেটরি মুভমেন্ট রিসার্চ ইউনিট’-এর (রামরু) অধ্যাপক সি আর আবরার ও অধ্যাপক তাসনীম সিদ্দিকী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক মেঘনা গুহঠাকুরতা, ব্রতীর নির্বাহী পরিচালক শারমিন মুর্শিদ, পররাষ্ট্রসচিব মো. শহিদুল হক, সাবেক রাষ্ট্রদূত আশফাকুর রহমান প্রমুখ।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X