বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:৫৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, September 12, 2016 7:45 pm
A- A A+ Print

নারী নিয়ে ফুর্তির সময় বাগানবাড়িতে আওয়ামী এমপিপুত্রকে হাতেনাতে ধরা, গণপিটুনি ও অতপর —

242876_1

সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য সাতক্ষীরার রিফাত আমিনের ছেলে রাশেদ সরোয়ার রুমন। পুরোনো ছবি সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য সাতক্ষীরার রিফাত আমিনের ছেলে রাশেদ সরোয়ার রুমনকে এবার পিটুনি দিয়েছে লোকজন। খবর পেয়ে এক তরুণীসহ তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেন জেলা যুবলীগের সভাপতি আবদুল মান্নানসহ অন্যরা। আজ সোমবার বেলা ১২টার দিকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার লাবসা ইউনিয়নের মাগুরা গ্রামের বাঁশতলা এলাকার একটি বাগানবাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সাতক্ষীরা পৌরসভা চত্বরে কাটিয়া এলাকায় জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জুলফিকার রহমান উজ্জ্বলকে রড দিয়ে পেটান রুমন। তাঁকে বাঁচাতে গেলে আরো তিন যুবককে পেটান রুমন ও তাঁর সঙ্গীরা। ঘটনার পর উজ্জ্বলকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর রাত ১০টার দিকে সাতক্ষীরার ভোমরায় দুর্ঘটনার কবলে পড়েন রুমন। এতে তিনি অক্ষত থাকলেও দুমড়েমুচড়ে যায় তাঁর মায়ের ব্যবহৃত মিনি পাজেরো (ঢাকা মেট্রো ঘ ১৫-১৬৩০)। ঘটনার পরপর রুমন দ্রুত গাড়ি থেকে নেমে অজ্ঞাত স্থানে চলে যান। লাবসা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য আবদুল হান্নান জানান, সকালে এলাকায় খবর ছড়িয়ে পড়ে যে রুমন এক নারীসহ তাঁর এলাকার মিলন পালের বাগানবাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন। রুমনের বন্ধু মিলন বর্তমানে সোনা চোরাচালান মামলায় জেলে আটক রয়েছেন। খবর পেয়ে পরে সেখানে যেতেই দেখেন পৌরসভার কাটিয়া এলাকার বহু মানুষ। তাঁরা রুমনকে খুঁজছেন। রুমন মারপিটের ভয়ে রুমের ভেতর থেকে আটকে দেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে। পুলিশও সাধ্যমতো চেষ্টা করে রুমনকে রুম থেকে বের করার। কিন্তু ব্যর্থ হয়। আবদুল হান্নান আরো জানান, এর কিছু সময় পর জেলা যুবলীগ নেতা আবদুল মান্নান সেখানে পৌঁছান। সঙ্গে ছিলেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা অ্যাডভোকেট তামিম আহমেদ সোহাগ ও সাতক্ষীরা পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক মনোয়ার হোসেন অনু। তাঁরা রুমনকে রুম থেকে বের করতেই শুরু হয়ে যায় এলোপাতাড়ি গণপিটুনি। লোকজন রুমনকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। এ সময় রুমন মাটিতে পড়ে যান। তাঁকে দ্রুত উদ্ধার করে আহত অবস্থায় মোটরসাইকেলে নিয়ে যান যুবলীগ নেতা আবদুল মান্নান ও তাঁর লোকজন। সেই সঙ্গে রুম থেকে বের হওয়া অজ্ঞাতনামা এক তরুণীকেও নিয়ে যান। গ্রামের লোকজন জানান, আবদুল মান্নান তাদের চোখ রাঙিয়ে শাসিয়েছেন। এ ব্যাপারে কথা না বলতে হুমকিও দিয়েছেন তিনি। জানতে চাইলে জেলা যুবলীগের সভাপতি আবদুল মান্নান বলেন, ‘রুমনকে আমরা উদ্ধার করে নিয়ে এসেছি। এখন সে কোথায় তা আমার জানা নেই। তবে মারপিট একটু আধটু হয়েছে বৈকি। তা এসব নিয়ে না লিখলে হয় না!’ রুমনকে উদ্ধার করতে যাওয়া অ্যাডভোকেট তামিম আহমেদ সোহাগ বলেন, ‘ওর (রুমন) মাথাটাই খারাপ হয়ে গেছে। আমি সকাল পর্যন্ত ওর সম্পর্কে জানতাম। পরে সম্ভবত সে ঢাকার দিকে চলে গেছে।’ একই বিষয়ে জানতে চাইলে সাতক্ষীরা পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক মনোয়ার হোসেন অনু বলেন, ‘আমরা রুমনকে উদ্ধার করেছি। এখন তিনি বাড়িতেই আছেন। মারপিটে তিনি অনেকটাই আহত।’ এদিকে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ হোসেন মোল্লা জানান, রোববার রাতে যুবলীগ নেতা জুলফিকার রহমান উজ্জ্বলকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিটের ঘটনায় রুমনকে প্রধান আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে। এই মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তারের জন্য উপপরিদর্শক (এসআই) রফিক ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) পাইক দেলোয়ারকে পাঠানো হয় মাগুরা গ্রামের বাঁশতলার সেই মিলন পালের বাগানবাড়িতে। কিন্তু সেখানে রুমনকে পাওয়া যায়নি।’ এদিকে ‘রুমন এক নারীকে নিয়ে তাঁর বাগানবাড়িতে উঠেছে’ এ খবর পেয়ে কারাগারে থাকা মিলন পালের স্ত্রী শম্পা রানী পাল আজ সকালে এসে রুমনকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন। কিন্তু রুমন তা শোনেননি। তিনি এ সময় বিষয়টি গ্রামের লোকজনকে জানান। গ্রামের লোকজনকে রুমনের বিষয়টি জানানোর কারণ জানতে চাইলে শম্পা অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার স্বামী মিলন পাল জেলে রয়েছেন। আমিও কিছুদিন ধরে বাবার বাড়িতে থাকছি। এই সুযোগে রুমন আমার বাড়িতে এসে কমপক্ষে ১৩টি গরু বিক্রি করে দিয়েছে যার দাম প্রায় ১৩ লাখ টাকা। এ ছাড়া আমার স্বামীকে জেল থেকে মুক্ত করার নামে নগদ ২০ লাখ টাকা নিয়েছে রুমন। আরো ১০ লাখ টাকা না হলে মিলনের প্রাইভেট কারটি দিতে বলেন রুমন।’ শম্পা জানান, এক নারীসহ রুমনকে বের করে নিয়ে যাওয়ার পর তিনি বাড়িতে তালা ঝুলিয়ে দেন। এদিকে রুমনের এসব ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তাঁর মা সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য রিফাত আমিন বলেন, ‘রুমন সেখানে যাবে কেন। সে তো বাড়িতেই আছে। কারা তাঁর সম্পর্কে এসব অপপ্রচার দেয় বলেন তো? সে তো উজ্জ্বলের সাথে মারামারিও করেনি। মারামারি করেছে যুবলীগের মান্নান গ্রুপ আর উজ্জ্বল গ্রুপ। এ নিয়ে আমার ছেলের বিরুদ্ধে আবার মামলা কিসের? তা ছাড়া কারো বাগানবাড়িতে যাওয়ার কথাও সত্য নয়। এগুলো অপপ্রচার মাত্র।’ এর আগে গত রমজান মাসে সাহেব আলী নামের এক গরু ব্যবসায়ীকে রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ রয়েছে রুমনের বিরুদ্ধে। তার আগে জাতীয় সংসদের স্টিকারযুক্ত গাড়িসহ কয়েকজন তরুণীকে নিয়ে শ্যামনগরের একটি রিসোর্টে ধরা পড়ে জেল খাটেন রুমন।

Comments

Comments!

 নারী নিয়ে ফুর্তির সময় বাগানবাড়িতে আওয়ামী এমপিপুত্রকে হাতেনাতে ধরা, গণপিটুনি ও অতপর —AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নারী নিয়ে ফুর্তির সময় বাগানবাড়িতে আওয়ামী এমপিপুত্রকে হাতেনাতে ধরা, গণপিটুনি ও অতপর —

Monday, September 12, 2016 7:45 pm
242876_1

সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য সাতক্ষীরার রিফাত আমিনের ছেলে রাশেদ সরোয়ার রুমন। পুরোনো ছবি

সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য সাতক্ষীরার রিফাত আমিনের ছেলে রাশেদ সরোয়ার রুমনকে এবার পিটুনি দিয়েছে লোকজন। খবর পেয়ে এক তরুণীসহ তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেন জেলা যুবলীগের সভাপতি আবদুল মান্নানসহ অন্যরা।

আজ সোমবার বেলা ১২টার দিকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার লাবসা ইউনিয়নের মাগুরা গ্রামের বাঁশতলা এলাকার একটি বাগানবাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সাতক্ষীরা পৌরসভা চত্বরে কাটিয়া এলাকায় জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জুলফিকার রহমান উজ্জ্বলকে রড দিয়ে পেটান রুমন। তাঁকে বাঁচাতে গেলে আরো তিন যুবককে পেটান রুমন ও তাঁর সঙ্গীরা। ঘটনার পর উজ্জ্বলকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এরপর রাত ১০টার দিকে সাতক্ষীরার ভোমরায় দুর্ঘটনার কবলে পড়েন রুমন। এতে তিনি অক্ষত থাকলেও দুমড়েমুচড়ে যায় তাঁর মায়ের ব্যবহৃত মিনি পাজেরো (ঢাকা মেট্রো ঘ ১৫-১৬৩০)। ঘটনার পরপর রুমন দ্রুত গাড়ি থেকে নেমে অজ্ঞাত স্থানে চলে যান।

লাবসা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য আবদুল হান্নান জানান, সকালে এলাকায় খবর ছড়িয়ে পড়ে যে রুমন এক নারীসহ তাঁর এলাকার মিলন পালের বাগানবাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন। রুমনের বন্ধু মিলন বর্তমানে সোনা চোরাচালান মামলায় জেলে আটক রয়েছেন। খবর পেয়ে পরে সেখানে যেতেই দেখেন পৌরসভার কাটিয়া এলাকার বহু মানুষ। তাঁরা রুমনকে খুঁজছেন। রুমন মারপিটের ভয়ে রুমের ভেতর থেকে আটকে দেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে। পুলিশও সাধ্যমতো চেষ্টা করে রুমনকে রুম থেকে বের করার। কিন্তু ব্যর্থ হয়।

আবদুল হান্নান আরো জানান, এর কিছু সময় পর জেলা যুবলীগ নেতা আবদুল মান্নান সেখানে পৌঁছান। সঙ্গে ছিলেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা অ্যাডভোকেট তামিম আহমেদ সোহাগ ও সাতক্ষীরা পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক মনোয়ার হোসেন অনু। তাঁরা রুমনকে রুম থেকে বের করতেই শুরু হয়ে যায় এলোপাতাড়ি গণপিটুনি। লোকজন রুমনকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। এ সময় রুমন মাটিতে পড়ে যান। তাঁকে দ্রুত উদ্ধার করে আহত অবস্থায় মোটরসাইকেলে নিয়ে যান যুবলীগ নেতা আবদুল মান্নান ও তাঁর লোকজন। সেই সঙ্গে রুম থেকে বের হওয়া অজ্ঞাতনামা এক তরুণীকেও নিয়ে যান।

গ্রামের লোকজন জানান, আবদুল মান্নান তাদের চোখ রাঙিয়ে শাসিয়েছেন। এ ব্যাপারে কথা না বলতে হুমকিও দিয়েছেন তিনি।

জানতে চাইলে জেলা যুবলীগের সভাপতি আবদুল মান্নান বলেন, ‘রুমনকে আমরা উদ্ধার করে নিয়ে এসেছি। এখন সে কোথায় তা আমার জানা নেই। তবে মারপিট একটু আধটু হয়েছে বৈকি। তা এসব নিয়ে না লিখলে হয় না!’

রুমনকে উদ্ধার করতে যাওয়া অ্যাডভোকেট তামিম আহমেদ সোহাগ বলেন, ‘ওর (রুমন) মাথাটাই খারাপ হয়ে গেছে। আমি সকাল পর্যন্ত ওর সম্পর্কে জানতাম। পরে সম্ভবত সে ঢাকার দিকে চলে গেছে।’

একই বিষয়ে জানতে চাইলে সাতক্ষীরা পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক মনোয়ার হোসেন অনু বলেন, ‘আমরা রুমনকে উদ্ধার করেছি। এখন তিনি বাড়িতেই আছেন। মারপিটে তিনি অনেকটাই আহত।’

এদিকে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ হোসেন মোল্লা জানান, রোববার রাতে যুবলীগ নেতা জুলফিকার রহমান উজ্জ্বলকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিটের ঘটনায় রুমনকে প্রধান আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে। এই মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তারের জন্য উপপরিদর্শক (এসআই) রফিক ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) পাইক দেলোয়ারকে পাঠানো হয় মাগুরা গ্রামের বাঁশতলার সেই মিলন পালের বাগানবাড়িতে। কিন্তু সেখানে রুমনকে পাওয়া যায়নি।’

এদিকে ‘রুমন এক নারীকে নিয়ে তাঁর বাগানবাড়িতে উঠেছে’ এ খবর পেয়ে কারাগারে থাকা মিলন পালের স্ত্রী শম্পা রানী পাল আজ সকালে এসে রুমনকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন। কিন্তু রুমন তা শোনেননি। তিনি এ সময় বিষয়টি গ্রামের লোকজনকে জানান।

গ্রামের লোকজনকে রুমনের বিষয়টি জানানোর কারণ জানতে চাইলে শম্পা অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার স্বামী মিলন পাল জেলে রয়েছেন। আমিও কিছুদিন ধরে বাবার বাড়িতে থাকছি। এই সুযোগে রুমন আমার বাড়িতে এসে কমপক্ষে ১৩টি গরু বিক্রি করে দিয়েছে যার দাম প্রায় ১৩ লাখ টাকা। এ ছাড়া আমার স্বামীকে জেল থেকে মুক্ত করার নামে নগদ ২০ লাখ টাকা নিয়েছে রুমন। আরো ১০ লাখ টাকা না হলে মিলনের প্রাইভেট কারটি দিতে বলেন রুমন।’

শম্পা জানান, এক নারীসহ রুমনকে বের করে নিয়ে যাওয়ার পর তিনি বাড়িতে তালা ঝুলিয়ে দেন।

এদিকে রুমনের এসব ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তাঁর মা সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য রিফাত আমিন বলেন, ‘রুমন সেখানে যাবে কেন। সে তো বাড়িতেই আছে। কারা তাঁর সম্পর্কে এসব অপপ্রচার দেয় বলেন তো? সে তো উজ্জ্বলের সাথে মারামারিও করেনি। মারামারি করেছে যুবলীগের মান্নান গ্রুপ আর উজ্জ্বল গ্রুপ। এ নিয়ে আমার ছেলের বিরুদ্ধে আবার মামলা কিসের? তা ছাড়া কারো বাগানবাড়িতে যাওয়ার কথাও সত্য নয়। এগুলো অপপ্রচার মাত্র।’

এর আগে গত রমজান মাসে সাহেব আলী নামের এক গরু ব্যবসায়ীকে রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ রয়েছে রুমনের বিরুদ্ধে। তার আগে জাতীয় সংসদের স্টিকারযুক্ত গাড়িসহ কয়েকজন তরুণীকে নিয়ে শ্যামনগরের একটি রিসোর্টে ধরা পড়ে জেল খাটেন রুমন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X