শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৬:২২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, May 25, 2017 8:39 am
A- A A+ Print

নিউজল্যান্ডকে হারিয়ে এক ঢিলে তিন পাখি

2

নিউজল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশ হয়তো ত্রিদেশীয় সিরিজ জিততে পারেনি। কিন্তু তারপরেও বাংলাদেশের অন্তত তিনটি অর্জন আছে এ জয়ের সুবাদে। প্রথমত এ জয়ের ফলে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে ষষ্ঠস্থানে উঠে এলো। দ্বিতীয়ত, এর ফলে বাংলাদেশ আগামী ২০১৯এ ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সরাসরি খেলাটা নিশ্চিত করে ফেললো। আর এটাই দেশের বাইরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম জয়। তবে সব ছাপিয়ে এ জয় আসন্ন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাসের পারদটাও চড়িয়ে দেবে বেশ। এ সিরিজের প্রথম খেরাটি যদি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত না হতো তবে বাংলাদেশের শিরোপাও হতে পারতো। এ আসরে প্রথম দেখায় বাংলাদেশকে সহজেই হারিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। গতকাল তার প্রতিশোধটাও হয়ে গেল। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশের গ্রুপেই খেলবে নিউজল্যান্ড। সঙ্গে থাকবে অস্ট্রেলিয়া ও স্বাগতিক ইংল্যান্ড। ১০ বল বাকি থাকতেই ২৭১ রানের লক্ষ্যে পৌছে যায় বাংলাদেশ। ৪৮.২ ওভারে বাংলাদেশ ৫ উইকেট হারিয়ে ২৭১ রান করে মাশরাফি বাহিনী। এর আগে নিউজলাান্ডের বিপক্ষে আট জয় থাকলেও দেশের বাইরে কেবলই হার ছিল। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে দিয়ে শুরু। এরপর ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জয় থাকলেও কিউইদের বিপক্ষে ছিল না। এবার সেই আক্ষেপও ঘুচলো। বুধবার আয়ারল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে ৫ উইকেটের জয দিয়ে দেশের বাইরে সব দেশের বিপক্ষে জেতার বৃত্ত পূরণ হলো। মুশফিক-মাহমুদুল্লাহ শেষ পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন থেকে মাঠ ছাড়েন। মুশফিক ৪৫ বলে ৪৫ আর তার ভায়রা ভাই মাহমুদুল্লাহ ৩৬ বরে ৪৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। শৃুরু থেকেই লক্ষ্যের দিকে অবিচল বাংলাদেশ মাঝপথে খানিকটা চাপে পড়লেও তা কাটিয়ে ওঠে দ্রুতই। ষ্ষ্ঠ উইকেটে মুশফিক-মাহমুদুরøাহ সব চাপ উড়িয়ে দেন। ১৪৩ রানের মাথায় তামিম ইকবাল আউট হওয়ার পর ধস নামে বাংরাদেশ শিবিরে। ১৭ রান যোগ হতে সাব্বির ও মোসাদ্দেক আউট হলে সংশয় জাগে টাইগার শিবিরে। এরপর ১৯৯ রানের মাথায় ধুকতে থাকা সাকিব আল হাসান আউট হলে শঙ্কা জাগে তীরে এসে তরী ডোবার। কিন্তু এ যে নতুন বাংলাদেশ। ব্যাটিং গভীরতা যে কম নয় তা বুঝিয়ে দিলেন মুশফিক-মাহমুদুল্লাহ। ম্যাচসেরা ও সিরিজসেরার পুরস্কার পান নিউজিল্যান্ডের টম ল্যাথাম। তাব্বির আর তামিম জুটি  ১৩৬ রান যোগ করেই বাংলাদেশের জয়ের ভিত গড়ে দেন। দুজনেই আ্উট হন ৬৫ রান করে। অন্তত একজন ইনিংসটাকে তিন অঙ্কে রূপ দিতে পারলে সংশয় জাগতো না হারের। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৩৬তম অর্ধশতক পূর্ণ করেন তামিম ইকবাল। এতে দলীয় ১০০ রানের কোঠা স্পর্শ করে বাংলাদেশ। ২৯ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৫৬/৩-এ।  দ্বিতীয় উইকেটে ১৩৬ রানের জুটি গড়েন তামিম ইকবাল-সাব্বির রহমান। উইকেট দেয়ার আগে তামিম করেন ৬৫ রান। ক্যারিয়ারে পঞ্চম ফিফটি পূণ করেন সাব্বিরও। রানআউটে উইকেট খোয়ানোর আগে ৮২ বলে ৬৫ রান করেন সাব্বির। ইনিংসের প্রথম বলেই কিউই স্পিনার জিতেন প্যাটেলকে ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে সপাটে ছক্কা হাঁকান তামিম ইকবাল। দ্বিতীয় বলে সিঙ্গেল নিয়ে প্রান্ত বদল করেন বাংলাদেশি এ ওপেনার। আর ইনিংসের তৃতীয় বলে উইকেট খোয়ান বাংলাদেশের ইনফর্ম ওপেনার সৌম্য সরকার। কোরি অ্যান্ডারসনের হাতে ক্যাচ দেন গত টানা দুই ম্যাচে অর্ধশতকের কৃতিত্ব দেখানো সৌম্য। ৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৩/১। এর আগে ইনিংসের ২৮.১ ওভারে ১৫৬/১ সংগ্রহ নিয়ে বড় সংগ্রহের পথে ছিল নিউজিল্যান্ড। তবে পরের ৭০ রানে ছয় উইকেট তুলে নিয়ে কিউইদের লাগাম টানেন টাইগাররা। ৪৩.১তম ওভারে দলীয় ২২৬ রানে  কিউই আট নম্বর ব্যাটসম্যান কলিন মানরোকে সাজঘরে ফেরান মাশরাফি। আর ২৭০/৮ সংগ্রহ নিয়ে ইনিংস শেষ করে নিউজিল্যান্ড। বল হাতে সাকিব আল হাসান, নাসির হোসেন ও মাশরাফি বিন মুর্তজা নেন দুটি করে উইকেট। একটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজ ও রুবেল হোসেন। প্রথম ওভারেই মাশরাফির ডেলিভারিতে কিউই ওপেনার টম ল্যাথামের ক্যাচ হাতছাড়া করেন নাসির হোসেন। তবে টাইগারদের জন্য বিপজ্জনক হয়ে জুটি ভাঙেন অফস্পিনার নাসির হোসেনই। নাসিরের ডেলভারিতে নেইল ব্রুমের ক্যাচটি লুফে নেন মাশরাফি। পরে নাসির সরাসরি বোল্ড করে দেন ল্যাথামকে। এতে ৩০.১ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৬৭/৩-এ। ক্রিজে ব্যাট হাতে একবার করে জীবন পেয়েছিলেন উভয়েই।  আর সুযোগটা কাজে লাগান তারা দারুণভাবে। নিউজিল্যান্ড ইনিংসের  দ্বিতীয় উইকেটে ১০০ রানের জুটি গড়লেন ওপেনার টম ল্যাথাম ও ওয়ানডাউন ব্যাটসম্যান নেইল ব্রুম। ২৩ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ১২৫/১। উইকেট দেয়ার আগে ল্যাথাম ৮৪ ও ব্রুম করেন  ৬৩ রান। এর আগে ১৪.৪তম ওভারে নিজের বোলিংয়ে ফিরতি ক্যাচ মিস করেন মোসাদ্দেক হোসেন। কিউই ব্যাটসম্যান নেইল ব্রুমের আলতো ক্যাচ তালুবন্দি করতে ব্যর্থ হন মোসাদ্দেক। এ সময় মোসাদ্দেকের সামনে  ছিলেন কিউই অপর ব্যাটসম্যান টম ল্যাথাম। আর ল্যাথাম বাধা দেয়ায় ক্রাচ নিতে পারেননি বলে আম্পায়ারের  কাছে আবেদন করেন মোসাদ্দেক। তবে রিপ্লে দেখে আবেদন নাকচ করেন ম্যাচের থার্ড আম্পায়ার। ১৫ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৮৩/১-এ। ৮.৪তম ওভারে দলীয় ৫০ রান পূর্ণ হয় নিউজিল্যান্ডের । ব্যক্তিগত ৩৪ রানে ব্যাট করছিলেন ক্রিজে জীবন পাওয়া কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথাম। নিজের দ্বিতীয় ওভারেই বল হাতে আঘাত হানেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। ইনিংসের ৩.৪তম ওভারে মোস্তাফিজের ডেলিভারিতে সাকিব আল হাসানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন কিউই ওপেনার লুক রনকি। ৪ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৩/১-এ। নাটকীয় শুরুতে ব্যাট হাতে বেঁচে যান নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক টম ল্যাথাম। মাশরাফি বিন মুর্তজার প্রথম বলে কট বিহাইন্ডের আবেদন নাকচ করেন আম্পায়ার। আম্পায়ার দেন ওয়াইড বলের সিদ্ধান্ত। দ্বিতীয় বলে ল্যাথাম বাঁচেন এলবিডাব্লিউর আবেদন থেকে। আর ওভারের তৃতীয় বলটি আলতো টোকায় শর্ট লেগে তুলে দেন কিউই ওপেনার টম ল্যাথাম। কিন্তু শর্ট লেগে  সহজ ক্যাচ হাতছাড়া করেন টাইগার ফিল্ডার নাসির হোসেন।   বুধবার ত্রিদেশীয় সিরিজের  শেষ ম্যাচে টস জিতে নিউজিল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠান বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।  আগের ম্যাচে ওয়ানডে অভিষেক হয় বাঁ-হাতি স্পিনার সানজামুল ইসলামের। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বুধবার সানজামুল ইসলামের বদলে বাংলাদেশ একাদশে সুযোগ নিয়েছেন অলরাউন্ডার নাসির হোসেন। ডাবলিনে আগের ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৮ উইকেটে জয় কুড়ায় বাংলাদেশ। এতে ১৮১ রানে গুঁড়িয়ে যায় স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডের ইনিংস। বাংলাদেশের বল হাতে ৯ ওভারের স্পেলে মাত্র ২৩ রানে চার উইকেট নেন পেসার মোস্তাফিজুর রহমান। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজর প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টিতে ভেসে যায়। তবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দুইবার ও বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম সাক্ষাতে জয় নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা নিশ্চিত হয়েছে নিউজিল্যান্ডের। বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন, নাসির হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), রুবেল হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান।

Comments

Comments!

 নিউজল্যান্ডকে হারিয়ে এক ঢিলে তিন পাখিAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নিউজল্যান্ডকে হারিয়ে এক ঢিলে তিন পাখি

Thursday, May 25, 2017 8:39 am
2

নিউজল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশ হয়তো ত্রিদেশীয় সিরিজ জিততে পারেনি। কিন্তু তারপরেও বাংলাদেশের অন্তত তিনটি অর্জন আছে এ জয়ের সুবাদে। প্রথমত এ জয়ের ফলে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো আইসিসি ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে ষষ্ঠস্থানে উঠে এলো। দ্বিতীয়ত, এর ফলে বাংলাদেশ আগামী ২০১৯এ ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সরাসরি খেলাটা নিশ্চিত করে ফেললো। আর এটাই দেশের বাইরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম জয়। তবে সব ছাপিয়ে এ জয় আসন্ন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাসের পারদটাও চড়িয়ে দেবে বেশ। এ সিরিজের প্রথম খেরাটি যদি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত না হতো তবে বাংলাদেশের শিরোপাও হতে পারতো। এ আসরে প্রথম দেখায় বাংলাদেশকে সহজেই হারিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। গতকাল তার প্রতিশোধটাও হয়ে গেল। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশের গ্রুপেই খেলবে নিউজল্যান্ড। সঙ্গে থাকবে অস্ট্রেলিয়া ও স্বাগতিক ইংল্যান্ড।
১০ বল বাকি থাকতেই ২৭১ রানের লক্ষ্যে পৌছে যায় বাংলাদেশ। ৪৮.২ ওভারে বাংলাদেশ ৫ উইকেট হারিয়ে ২৭১ রান করে মাশরাফি বাহিনী। এর আগে নিউজলাান্ডের বিপক্ষে আট জয় থাকলেও দেশের বাইরে কেবলই হার ছিল। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে দিয়ে শুরু। এরপর ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জয় থাকলেও কিউইদের বিপক্ষে ছিল না। এবার সেই আক্ষেপও ঘুচলো। বুধবার আয়ারল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে ৫ উইকেটের জয দিয়ে দেশের বাইরে সব দেশের বিপক্ষে জেতার বৃত্ত পূরণ হলো। মুশফিক-মাহমুদুল্লাহ শেষ পর্যন্ত অবিচ্ছিন্ন থেকে মাঠ ছাড়েন। মুশফিক ৪৫ বলে ৪৫ আর তার ভায়রা ভাই মাহমুদুল্লাহ ৩৬ বরে ৪৫ রান করে অপরাজিত থাকেন।
শৃুরু থেকেই লক্ষ্যের দিকে অবিচল বাংলাদেশ মাঝপথে খানিকটা চাপে পড়লেও তা কাটিয়ে ওঠে দ্রুতই। ষ্ষ্ঠ উইকেটে মুশফিক-মাহমুদুরøাহ সব চাপ উড়িয়ে দেন। ১৪৩ রানের মাথায় তামিম ইকবাল আউট হওয়ার পর ধস নামে বাংরাদেশ শিবিরে। ১৭ রান যোগ হতে সাব্বির ও মোসাদ্দেক আউট হলে সংশয় জাগে টাইগার শিবিরে। এরপর ১৯৯ রানের মাথায় ধুকতে থাকা সাকিব আল হাসান আউট হলে শঙ্কা জাগে তীরে এসে তরী ডোবার। কিন্তু এ যে নতুন বাংলাদেশ। ব্যাটিং গভীরতা যে কম নয় তা বুঝিয়ে দিলেন মুশফিক-মাহমুদুল্লাহ। ম্যাচসেরা ও সিরিজসেরার পুরস্কার পান নিউজিল্যান্ডের টম ল্যাথাম।
তাব্বির আর তামিম জুটি  ১৩৬ রান যোগ করেই বাংলাদেশের জয়ের ভিত গড়ে দেন। দুজনেই আ্উট হন ৬৫ রান করে। অন্তত একজন ইনিংসটাকে তিন অঙ্কে রূপ দিতে পারলে সংশয় জাগতো না হারের। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৩৬তম অর্ধশতক পূর্ণ করেন তামিম ইকবাল। এতে দলীয় ১০০ রানের কোঠা স্পর্শ করে বাংলাদেশ। ২৯ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৫৬/৩-এ।  দ্বিতীয় উইকেটে ১৩৬ রানের জুটি গড়েন তামিম ইকবাল-সাব্বির রহমান। উইকেট দেয়ার আগে তামিম করেন ৬৫ রান। ক্যারিয়ারে পঞ্চম ফিফটি পূণ করেন সাব্বিরও। রানআউটে উইকেট খোয়ানোর আগে ৮২ বলে ৬৫ রান করেন সাব্বির।
ইনিংসের প্রথম বলেই কিউই স্পিনার জিতেন প্যাটেলকে ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে সপাটে ছক্কা হাঁকান তামিম ইকবাল। দ্বিতীয় বলে সিঙ্গেল নিয়ে প্রান্ত বদল করেন বাংলাদেশি এ ওপেনার। আর ইনিংসের তৃতীয় বলে উইকেট খোয়ান বাংলাদেশের ইনফর্ম ওপেনার সৌম্য সরকার। কোরি অ্যান্ডারসনের হাতে ক্যাচ দেন গত টানা দুই ম্যাচে অর্ধশতকের কৃতিত্ব দেখানো সৌম্য। ৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৩/১।
এর আগে ইনিংসের ২৮.১ ওভারে ১৫৬/১ সংগ্রহ নিয়ে বড় সংগ্রহের পথে ছিল নিউজিল্যান্ড। তবে পরের ৭০ রানে ছয় উইকেট তুলে নিয়ে কিউইদের লাগাম টানেন টাইগাররা। ৪৩.১তম ওভারে দলীয় ২২৬ রানে  কিউই আট নম্বর ব্যাটসম্যান কলিন মানরোকে সাজঘরে ফেরান মাশরাফি। আর ২৭০/৮ সংগ্রহ নিয়ে ইনিংস শেষ করে নিউজিল্যান্ড। বল হাতে সাকিব আল হাসান, নাসির হোসেন ও মাশরাফি বিন মুর্তজা নেন দুটি করে উইকেট। একটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজ ও রুবেল হোসেন।

প্রথম ওভারেই মাশরাফির ডেলিভারিতে কিউই ওপেনার টম ল্যাথামের ক্যাচ হাতছাড়া করেন নাসির হোসেন। তবে টাইগারদের জন্য বিপজ্জনক হয়ে জুটি ভাঙেন অফস্পিনার নাসির হোসেনই। নাসিরের ডেলভারিতে নেইল ব্রুমের ক্যাচটি লুফে নেন মাশরাফি। পরে নাসির সরাসরি বোল্ড করে দেন ল্যাথামকে। এতে ৩০.১ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৬৭/৩-এ। ক্রিজে ব্যাট হাতে একবার করে জীবন পেয়েছিলেন উভয়েই।  আর সুযোগটা কাজে লাগান তারা দারুণভাবে। নিউজিল্যান্ড ইনিংসের  দ্বিতীয় উইকেটে ১০০ রানের জুটি গড়লেন ওপেনার টম ল্যাথাম ও ওয়ানডাউন ব্যাটসম্যান নেইল ব্রুম। ২৩ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ১২৫/১। উইকেট দেয়ার আগে ল্যাথাম ৮৪ ও ব্রুম করেন  ৬৩ রান। এর আগে ১৪.৪তম ওভারে নিজের বোলিংয়ে ফিরতি ক্যাচ মিস করেন মোসাদ্দেক হোসেন। কিউই ব্যাটসম্যান নেইল ব্রুমের আলতো ক্যাচ তালুবন্দি করতে ব্যর্থ হন মোসাদ্দেক। এ সময় মোসাদ্দেকের সামনে  ছিলেন কিউই অপর ব্যাটসম্যান টম ল্যাথাম। আর ল্যাথাম বাধা দেয়ায় ক্রাচ নিতে পারেননি বলে আম্পায়ারের  কাছে আবেদন করেন মোসাদ্দেক। তবে রিপ্লে দেখে আবেদন নাকচ করেন ম্যাচের থার্ড আম্পায়ার। ১৫ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৮৩/১-এ। ৮.৪তম ওভারে দলীয় ৫০ রান পূর্ণ হয় নিউজিল্যান্ডের । ব্যক্তিগত ৩৪ রানে ব্যাট করছিলেন ক্রিজে জীবন পাওয়া কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথাম। নিজের দ্বিতীয় ওভারেই বল হাতে আঘাত হানেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। ইনিংসের ৩.৪তম ওভারে মোস্তাফিজের ডেলিভারিতে সাকিব আল হাসানের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন কিউই ওপেনার লুক রনকি। ৪ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৩/১-এ। নাটকীয় শুরুতে ব্যাট হাতে বেঁচে যান নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক টম ল্যাথাম। মাশরাফি বিন মুর্তজার প্রথম বলে কট বিহাইন্ডের আবেদন নাকচ করেন আম্পায়ার। আম্পায়ার দেন ওয়াইড বলের সিদ্ধান্ত। দ্বিতীয় বলে ল্যাথাম বাঁচেন এলবিডাব্লিউর আবেদন থেকে। আর ওভারের তৃতীয় বলটি আলতো টোকায় শর্ট লেগে তুলে দেন কিউই ওপেনার টম ল্যাথাম। কিন্তু শর্ট লেগে  সহজ ক্যাচ হাতছাড়া করেন টাইগার ফিল্ডার নাসির হোসেন।   বুধবার ত্রিদেশীয় সিরিজের  শেষ ম্যাচে টস জিতে নিউজিল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠান বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।  আগের ম্যাচে ওয়ানডে অভিষেক হয় বাঁ-হাতি স্পিনার সানজামুল ইসলামের। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বুধবার সানজামুল ইসলামের বদলে বাংলাদেশ একাদশে সুযোগ নিয়েছেন অলরাউন্ডার নাসির হোসেন।
ডাবলিনে আগের ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৮ উইকেটে জয় কুড়ায় বাংলাদেশ। এতে ১৮১ রানে গুঁড়িয়ে যায় স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডের ইনিংস। বাংলাদেশের বল হাতে ৯ ওভারের স্পেলে মাত্র ২৩ রানে চার উইকেট নেন পেসার মোস্তাফিজুর রহমান। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজর প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টিতে ভেসে যায়। তবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দুইবার ও বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম সাক্ষাতে জয় নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা নিশ্চিত হয়েছে নিউজিল্যান্ডের।
বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন, নাসির হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), রুবেল হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X