সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৩২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, July 11, 2017 8:18 pm
A- A A+ Print

নয়টি নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে, বাড়বে আরও

13

বর্ষাকালের মধ্যবর্তী এই সময়ে দেশজুড়ে প্রচণ্ড দাপট দেখাচ্ছে বৃষ্টি। মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে বৃষ্টি ও উজান থেকে আসা ঢলের কারণে দেশের নদ-নদীগুলোর পানি বেড়েই চলেছে। আজ মঙ্গলবার সকালে ব্রহ্মপুত্র-যমুনা, তিস্তাসহ দেশের নয়টি নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে রয়েছে। বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের পূর্বাভাস থেকে জানা গেছে, আজ সকাল নয়টায় ধরলা নদী কুড়িগ্রামে ১৫, তিস্তার ডালিয়ায় ১৪, গাইবান্ধায় ঘাঘট নদ ২৭, চিলমারিতে ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপৎসীমার ২৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যমুনা নদীর পানি বাহাদুরাবাদে ৬৪, সারিয়াকান্দিতে ৪০, কাজীপুরে ৪২, সিরাজগঞ্জে ৪৫ সেন্টিমিটার, এলাসিনে ধলেশ্বরীর পানি ২৫ সেন্টিমিটার ওপরে ছিল। এ ছাড়া কানাইঘাটে সুরমা ৫৯, কুশিয়ারার পানি অমলশীদে ৬৩ ও শেওলায় ৬২ মিলিমিটার ওপর দিয়ে বয়ে চলছিল। জারিয়াজঞ্জাইলে কংস নদীর পানি ছিল বিপৎসীমার ৩১ সেন্টিমিটার ওপরে। পদ্মা, যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি আরও ৪৮ ঘণ্টা এবং সুরমা, কুশিয়ারার পানি ২৪ ঘণ্টা বৃদ্ধি পেতে পারে। এদিকে বৃষ্টির এই ধারা আরও তিন দিন থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। মঙ্গলবারের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমি বায়ুর বলয় পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে উত্তর-পূর্ব দিকে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি ও উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় সক্রিয় রয়েছে। এর ফলে সারা দেশে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে। আজ দুপুর ১২টা পর্যন্ত দেশের প্রায় সব অঞ্চলেই বৃষ্টি হয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে ডিমলায় ৬৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। বেলা তিনটা পর্যন্ত রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টির পরিমাণ ছিল ৪৩ মিলিমিটার। প্রতিবেশী ভারতের উত্তর-পূর্বের আসাম, মেঘালয়, মণিপুর, অরুণাচল প্রদেশ, সিকিম, ত্রিপুরা, মিজোরাম, উত্তর প্রদেশ, বিহার, হিমাচল প্রদেশ, ছত্তিশগড়সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, এসব রাজ্যে ১৩ জুলাই পর্যন্ত প্রচণ্ড ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এরপর ১৪ জুলাই থেকে ভারতের গুজরাট, গোয়া, পূর্ব রাজস্থানে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে পারে।

Comments

Comments!

 নয়টি নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে, বাড়বে আরওAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নয়টি নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে, বাড়বে আরও

Tuesday, July 11, 2017 8:18 pm
13

বর্ষাকালের মধ্যবর্তী এই সময়ে দেশজুড়ে প্রচণ্ড দাপট দেখাচ্ছে বৃষ্টি। মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে বৃষ্টি ও উজান থেকে আসা ঢলের কারণে দেশের নদ-নদীগুলোর পানি বেড়েই চলেছে। আজ মঙ্গলবার সকালে ব্রহ্মপুত্র-যমুনা, তিস্তাসহ দেশের নয়টি নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে রয়েছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের পূর্বাভাস থেকে জানা গেছে, আজ সকাল নয়টায় ধরলা নদী কুড়িগ্রামে ১৫, তিস্তার ডালিয়ায় ১৪, গাইবান্ধায় ঘাঘট নদ ২৭, চিলমারিতে ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপৎসীমার ২৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

যমুনা নদীর পানি বাহাদুরাবাদে ৬৪, সারিয়াকান্দিতে ৪০, কাজীপুরে ৪২, সিরাজগঞ্জে ৪৫ সেন্টিমিটার, এলাসিনে ধলেশ্বরীর পানি ২৫ সেন্টিমিটার ওপরে ছিল। এ ছাড়া কানাইঘাটে সুরমা ৫৯, কুশিয়ারার পানি অমলশীদে ৬৩ ও শেওলায় ৬২ মিলিমিটার ওপর দিয়ে বয়ে চলছিল। জারিয়াজঞ্জাইলে কংস নদীর পানি ছিল বিপৎসীমার ৩১ সেন্টিমিটার ওপরে।

পদ্মা, যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি আরও ৪৮ ঘণ্টা এবং সুরমা, কুশিয়ারার পানি ২৪ ঘণ্টা বৃদ্ধি পেতে পারে।

এদিকে বৃষ্টির এই ধারা আরও তিন দিন থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। মঙ্গলবারের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমি বায়ুর বলয় পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে উত্তর-পূর্ব দিকে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি ও উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় সক্রিয় রয়েছে। এর ফলে সারা দেশে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে।

আজ দুপুর ১২টা পর্যন্ত দেশের প্রায় সব অঞ্চলেই বৃষ্টি হয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে ডিমলায় ৬৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। বেলা তিনটা পর্যন্ত রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টির পরিমাণ ছিল ৪৩ মিলিমিটার।

প্রতিবেশী ভারতের উত্তর-পূর্বের আসাম, মেঘালয়, মণিপুর, অরুণাচল প্রদেশ, সিকিম, ত্রিপুরা, মিজোরাম, উত্তর প্রদেশ, বিহার, হিমাচল প্রদেশ, ছত্তিশগড়সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, এসব রাজ্যে ১৩ জুলাই পর্যন্ত প্রচণ্ড ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এরপর ১৪ জুলাই থেকে ভারতের গুজরাট, গোয়া, পূর্ব রাজস্থানে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে পারে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X