শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:৫০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, November 20, 2016 10:30 am
A- A A+ Print

নয় রানে ১০ উইকেট!

photo-1479570170

এক ইনিংসে ১০ উইকেট নেওয়ার অসামান্য কারিশমা দেখাতে পারা বেশ বিরল ঘটনা। এমন বিরল দৃষ্টান্ত দেখিয়ে ইতিহাসের পাতায় স্থান করে নিয়েছিলেন ইংলিশ অফস্পিনার জিম লেকার ও ভারতের লেগস্পিনার অনিল কুম্বলে। সম্প্রতি বিরল এই কীর্তির দেখা মিলল ভারতের স্কুল ক্রিকেটেও। ১৫ বছর বয়সী অফস্পিনার দেব প্যাটেলও আউট করেছে প্রতিপক্ষের সব ব্যাটসম্যানকে। অসাধারণ বোলিং করে অবিশ্বাস্য এক বোলিং ফিগারের জন্ম দিয়েছে মুম্বাইয়ের এই কিশোর। ১০টি উইকেট নেওয়ার জন্য তাকে খরচ করতে হয়েছে মাত্র ৯ রান। অফস্পিনের ঘূর্ণিজাদু দেখিয়ে প্রতিপক্ষকে একাই কুপোকাৎ করে দিয়েছে যমুনাবাই নার্সি হাই স্কুলের এই প্রতিভাবান ক্রিকেটার। পরে ব্যাট হাতেও ভালো নৈপুণ্য দেখিয়েছে দেব। খেলেছে ৩৫ রানের লড়াকু ইনিংস। ১৯৫৬ সালে জিম লেকার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে চতুর্থ টেস্টের প্রথম ইনিংসে নিয়েছিলেন ৩৭ রানের বিনিময়ে ৯টি উইকেট এবং দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৫৩ রান খরচ করে নিয়েছিলেন ১০টি উইকেট। তাঁর এই অভূতপূর্ব কীর্তি ক্রিকেট ইতিহাসে তাঁকে অমর করে রাখবে। এক টেস্টে সবচেয়ে বেশি ১৯ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড এখনো আছে লেকারের দখলে। সেই ম্যাচে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েছিল ইনিংস ও ১৭০ রানের পাহাড়সম ব্যবধানে। ১৯৯৯ সালে অনিল কুম্বলে পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইংনিসে ৭৪ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ১০টি উইকেট। ভারত পেয়েছিল ২১২ রানের সহজ জয়। ভারতের স্কুল ক্রিকেটে সম্প্রতি আরও একটি তাক লাগিয়ে দেওয়ার মতো স্কোরকার্ডের দেখা মিলেছে দুই কিশোরের দুর্দান্ত ব্যাটিং নৈপুণ্যের কারণে। ঐতিহ্যবাহী হ্যারিস শিল্ড টুর্নামেন্টে ৪২৫ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েছে শ্রেয়ান পাই ও আরিয়ান মোরে। এই বিশাল রানের জুটিটি তারা গড়েছে মাত্র ৪৫ ওভার ব্যাটিং করে। শ্রেয়ান পাই ১৫০ বলে ২১৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত ছিল। আর আরিয়ান মোরে ১২০ বল খেলে করেছে ১৬১ রান। পাই-মোরের এই কীর্তি দেখে অনেকেরই মনে পড়ে গেছে শচীন টেন্ডুলকার-বিনোদ কাম্বলির সেই রেকর্ডগড়া জুটির কথা। ১৯৮৯ সালে ভারতের সাবেক এই দুই ক্রিকেটার গড়েছিলেন ৬৬৪ রানের জুটি।

Comments

Comments!

 নয় রানে ১০ উইকেট!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

নয় রানে ১০ উইকেট!

Sunday, November 20, 2016 10:30 am
photo-1479570170

এক ইনিংসে ১০ উইকেট নেওয়ার অসামান্য কারিশমা দেখাতে পারা বেশ বিরল ঘটনা। এমন বিরল দৃষ্টান্ত দেখিয়ে ইতিহাসের পাতায় স্থান করে নিয়েছিলেন ইংলিশ অফস্পিনার জিম লেকার ও ভারতের লেগস্পিনার অনিল কুম্বলে। সম্প্রতি বিরল এই কীর্তির দেখা মিলল ভারতের স্কুল ক্রিকেটেও। ১৫ বছর বয়সী অফস্পিনার দেব প্যাটেলও আউট করেছে প্রতিপক্ষের সব ব্যাটসম্যানকে।

অসাধারণ বোলিং করে অবিশ্বাস্য এক বোলিং ফিগারের জন্ম দিয়েছে মুম্বাইয়ের এই কিশোর। ১০টি উইকেট নেওয়ার জন্য তাকে খরচ করতে হয়েছে মাত্র ৯ রান। অফস্পিনের ঘূর্ণিজাদু দেখিয়ে প্রতিপক্ষকে একাই কুপোকাৎ করে দিয়েছে যমুনাবাই নার্সি হাই স্কুলের এই প্রতিভাবান ক্রিকেটার। পরে ব্যাট হাতেও ভালো নৈপুণ্য দেখিয়েছে দেব। খেলেছে ৩৫ রানের লড়াকু ইনিংস।

১৯৫৬ সালে জিম লেকার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে চতুর্থ টেস্টের প্রথম ইনিংসে নিয়েছিলেন ৩৭ রানের বিনিময়ে ৯টি উইকেট এবং দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৫৩ রান খরচ করে নিয়েছিলেন ১০টি উইকেট। তাঁর এই অভূতপূর্ব কীর্তি ক্রিকেট ইতিহাসে তাঁকে অমর করে রাখবে। এক টেস্টে সবচেয়ে বেশি ১৯ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড এখনো আছে লেকারের দখলে। সেই ম্যাচে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েছিল ইনিংস ও ১৭০ রানের পাহাড়সম ব্যবধানে। ১৯৯৯ সালে অনিল কুম্বলে পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইংনিসে ৭৪ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ১০টি উইকেট। ভারত পেয়েছিল ২১২ রানের সহজ জয়।

ভারতের স্কুল ক্রিকেটে সম্প্রতি আরও একটি তাক লাগিয়ে দেওয়ার মতো স্কোরকার্ডের দেখা মিলেছে দুই কিশোরের দুর্দান্ত ব্যাটিং নৈপুণ্যের কারণে। ঐতিহ্যবাহী হ্যারিস শিল্ড টুর্নামেন্টে ৪২৫ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েছে শ্রেয়ান পাই ও আরিয়ান মোরে। এই বিশাল রানের জুটিটি তারা গড়েছে মাত্র ৪৫ ওভার ব্যাটিং করে। শ্রেয়ান পাই ১৫০ বলে ২১৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত ছিল। আর আরিয়ান মোরে ১২০ বল খেলে করেছে ১৬১ রান। পাই-মোরের এই কীর্তি দেখে অনেকেরই মনে পড়ে গেছে শচীন টেন্ডুলকার-বিনোদ কাম্বলির সেই রেকর্ডগড়া জুটির কথা। ১৯৮৯ সালে ভারতের সাবেক এই দুই ক্রিকেটার গড়েছিলেন ৬৬৪ রানের জুটি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X