শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১২:১৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, December 15, 2016 8:42 am
A- A A+ Print

পুত্র সন্তান লাভ নিয়ে ভারতীয় পত্রিকার কাণ্ড

%e0%a7%aa

দিল্লি: পুত্র সন্তান লাভের জন্য কিভাবে গর্ভধারণ করতে হবে তার উপায় বাতলে দিয়ে ভারতের একটি পত্রিকা কিছু পরামর্শ দিয়েছে। যেখানে কন্যা সন্তানের পরিবর্তে কিভাবে পুত্র সন্তান পাওয়া যায় তা বলা হয়েছে। ভারতের কেরালা রাজ্যের একটি পত্রিকায় বলা হয়েছে যেসব মহিলা পুত্র সন্তানের মা হতে চায়, তাদেরকে ছয়টি পরামর্শ মেনে চলতে বলা হয়েছে। পত্রিকায় প্রকাশিত নিবন্ধে দেয়া পরামর্শগুলোর মধ্যে রয়েছে- সন্তান-সম্ভবা মহিলাদের প্রচুর খাওয়া-দাওয়া করতে হবে এবং ঘুমানোর সময় পশ্চিম দিকে মুখ রেখে শুতে হবে। কিন্তু বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে এসবের কোন ভিত্তি নেই। ভারতের সমাজে অনেকেই সন্তান হিসেবে ছেলেদের জন্য বেশি আকাঙ্ক্ষা করেন। লন্ডনের পোর্টল্যান্ড হাসপাতালের চিকিৎসক ডা: সাজিয়া মালিক বলেন, ‘কন্যা কিংবা পুত্র সন্তানের জন্য গর্ভধারণের বিষয়টি সম্পূর্ণ অপ্রত্যাশিত বিষয়। এর জন্য সুনির্দিষ্ট কোনো পন্থা নেই’। কেরালার পত্রিকাটির স্বাস্থ্য বিষয়ক পাতায় এ পরামর্শ দেয়া হয়েছে। মা হতে ইচ্ছুক নারীদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে যে, তারা যেন অবশ্যই সকালের নাস্তা করেন এবং সপ্তাহের কয়েকটি নির্দিষ্ট দিনে যখন পুরুষের স্পার্ম জোরালো থাকে তখন যেন যৌন-সঙ্গম করেন। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলেন, পুরুষের স্পার্ম জোরালো হবার সাথে সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণের কোনো সম্পর্ক নেই। বিজ্ঞানের ভাষায় স্পার্ম যদি Y ক্রোমোজোম বহন করে তাহলে সেটি পুত্র সন্তান হবে।কেরালা প্রদেশে এ পত্রিকাটির প্রকাশিত নিবন্ধের কড়া সমালোচনা করছেন অনেকে। ভারতীয় লেখক গীতা আরাভামুদান এ বিষয়টিকে ‘হাস্যকর’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘সরকার এবং এনজিওদের নানা পদেক্ষেপ স্বত্বেও এ ধরনের চিন্তা-ধারা যে বাড়ছে এ নিবন্ধ তারই প্রমাণ বহন করে।’ বিবিসি অবলম্বনে
 

Comments

Comments!

 পুত্র সন্তান লাভ নিয়ে ভারতীয় পত্রিকার কাণ্ডAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

পুত্র সন্তান লাভ নিয়ে ভারতীয় পত্রিকার কাণ্ড

Thursday, December 15, 2016 8:42 am
%e0%a7%aa

দিল্লি: পুত্র সন্তান লাভের জন্য কিভাবে গর্ভধারণ করতে হবে তার উপায় বাতলে দিয়ে ভারতের একটি পত্রিকা কিছু পরামর্শ দিয়েছে। যেখানে কন্যা সন্তানের পরিবর্তে কিভাবে পুত্র সন্তান পাওয়া যায় তা বলা হয়েছে। ভারতের কেরালা রাজ্যের একটি পত্রিকায় বলা হয়েছে যেসব মহিলা পুত্র সন্তানের মা হতে চায়, তাদেরকে ছয়টি পরামর্শ মেনে চলতে বলা হয়েছে।

পত্রিকায় প্রকাশিত নিবন্ধে দেয়া পরামর্শগুলোর মধ্যে রয়েছে- সন্তান-সম্ভবা মহিলাদের প্রচুর খাওয়া-দাওয়া করতে হবে এবং ঘুমানোর সময় পশ্চিম দিকে মুখ রেখে শুতে হবে। কিন্তু বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে এসবের কোন ভিত্তি নেই।

ভারতের সমাজে অনেকেই সন্তান হিসেবে ছেলেদের জন্য বেশি আকাঙ্ক্ষা করেন।

লন্ডনের পোর্টল্যান্ড হাসপাতালের চিকিৎসক ডা: সাজিয়া মালিক বলেন, ‘কন্যা কিংবা পুত্র সন্তানের জন্য গর্ভধারণের বিষয়টি সম্পূর্ণ অপ্রত্যাশিত বিষয়। এর জন্য সুনির্দিষ্ট কোনো পন্থা নেই’।

কেরালার পত্রিকাটির স্বাস্থ্য বিষয়ক পাতায় এ পরামর্শ দেয়া হয়েছে। মা হতে ইচ্ছুক নারীদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে যে, তারা যেন অবশ্যই সকালের নাস্তা করেন এবং সপ্তাহের কয়েকটি নির্দিষ্ট দিনে যখন পুরুষের স্পার্ম জোরালো থাকে তখন যেন যৌন-সঙ্গম করেন।

কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলেন, পুরুষের স্পার্ম জোরালো হবার সাথে সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণের কোনো সম্পর্ক নেই। বিজ্ঞানের ভাষায় স্পার্ম যদি Y ক্রোমোজোম বহন করে তাহলে সেটি পুত্র সন্তান হবে।কেরালা প্রদেশে এ পত্রিকাটির প্রকাশিত নিবন্ধের কড়া সমালোচনা করছেন অনেকে। ভারতীয় লেখক গীতা আরাভামুদান এ বিষয়টিকে ‘হাস্যকর’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

তিনি বলেন, ‘সরকার এবং এনজিওদের নানা পদেক্ষেপ স্বত্বেও এ ধরনের চিন্তা-ধারা যে বাড়ছে এ নিবন্ধ তারই প্রমাণ বহন করে।’

বিবিসি অবলম্বনে

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X