সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৯:২৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, September 4, 2016 10:14 pm
A- A A+ Print

পুলিশি বাধার মধ্যে বিভিন্ন স্থানে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজা

23

ঢাকা: দেশের বিভিন্নস্থানে জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী পরিষদ সদস্য মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোথাও কোথাও গায়েবানা জানাজায় পুলিশের বাধা দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। চট্টগ্রামে নগরীর ৮টি স্থানে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজা নামাজ ও সমাবেশে করেছে জামায়াত নেতৃবৃন্দ। নগরীর পুরাতন রেল স্টেশন, বাকলিয়ার চেয়ারম্যান ঘাটা, বায়েজিদ,ই.পিজেড, আকবরশাহ, পাহাড়তলী, পতেঙ্গা ও বন্দরসহ বেশ কয়েকটি স্থানে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা পূর্ব সমাবেশে জামায়াত নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেন, সরকার জামায়াতকে নেতৃত্ব শূণ্য করার জন্য মীর কাসেম আলীকে মিথ্যা মামলায় পরিকল্পিতভাবে দণ্ডিত করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করেছে। তারা বলেন, মীর কাসেম আলী জনগণের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করেছিলেন। তিনি ইসলামী ব্যাংক, ইবনে সিনাসহ বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, দাতব্য প্রতিষ্ঠান ও মিডিয়া প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে ছিলেন। (চট্টগ্রামে জানাজা শেষে বিজয় সূচক ভি চিহ্ন প্রদর্শন করে তারা) জামায়াত নেতারা বলেন, তিনি বহু মসজিদ, মাদ্রাসাসহ ইসলামী ও জনকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। সরকার তার বিরুদ্ধে আনিত কোনো অভিযোগই প্রমাণ করতে পারেনি বলে দাবি করেন তারা। তারা বলেন, তিনি সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন। তার জীবনের বিনিময়ে এদেশে ইসলামী কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার আন্দোলন আরো এগিয়ে যাবে। জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম মহানগরীর সহকারী সেক্রেটারী অধ্যক্ষ মুহাম্মদ নুরুল আমিন, নগর মজলিশে শূরার সদস্য ফয়সাল মোহাম্মদ ইউনুছ, এম.এ. আলম, আবু জাওয়াদ, আবু শাফায়াত, এম.এস সোলায়মান, জাকের হোসাইন, ২০ দলীয় ঐক্য জোট বাংলাদেশ ন্যাপের কেন্দ্রীয় নেতা ওসমান গণি সিকদার ও বাংলাদেশ লেবার পাটি চট্টগ্রাম মহানগরী নেতা মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। এদিকে সিলেট, রংপুর, সুনামগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। নিম্নে কয়েকটি জেলার তথ্যচিত্র তুলে ধরা হলো।   সিলেট ঐতিহাসিক আলিয়া মাদ্রাসা ময়দানে মীর কাসেম আলীর নামাজে জানাজা (সুনামগঞ্জে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজা) (মৌলভীবাজারে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত) (কুমিল্লা মহানগরীতে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত) (ফেনী শহরে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত) ( কুমিল্লার লাকসামে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত) (রংপুরে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত)
 

Comments

Comments!

 পুলিশি বাধার মধ্যে বিভিন্ন স্থানে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

পুলিশি বাধার মধ্যে বিভিন্ন স্থানে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজা

Sunday, September 4, 2016 10:14 pm
23

ঢাকা: দেশের বিভিন্নস্থানে জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী পরিষদ সদস্য মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোথাও কোথাও গায়েবানা জানাজায় পুলিশের বাধা দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রামে নগরীর ৮টি স্থানে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজা নামাজ ও সমাবেশে করেছে জামায়াত নেতৃবৃন্দ।

নগরীর পুরাতন রেল স্টেশন, বাকলিয়ার চেয়ারম্যান ঘাটা, বায়েজিদ,ই.পিজেড, আকবরশাহ, পাহাড়তলী, পতেঙ্গা ও বন্দরসহ বেশ কয়েকটি স্থানে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজা পূর্ব সমাবেশে জামায়াত নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেন, সরকার জামায়াতকে নেতৃত্ব শূণ্য করার জন্য মীর কাসেম আলীকে মিথ্যা মামলায় পরিকল্পিতভাবে দণ্ডিত করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করেছে।

তারা বলেন, মীর কাসেম আলী জনগণের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করেছিলেন। তিনি ইসলামী ব্যাংক, ইবনে সিনাসহ বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, দাতব্য প্রতিষ্ঠান ও মিডিয়া প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে ছিলেন।

(চট্টগ্রামে জানাজা শেষে বিজয় সূচক ভি চিহ্ন প্রদর্শন করে তারা)

জামায়াত নেতারা বলেন, তিনি বহু মসজিদ, মাদ্রাসাসহ ইসলামী ও জনকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। সরকার তার বিরুদ্ধে আনিত কোনো অভিযোগই প্রমাণ করতে পারেনি বলে দাবি করেন তারা।

তারা বলেন, তিনি সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন। তার জীবনের বিনিময়ে এদেশে ইসলামী কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার আন্দোলন আরো এগিয়ে যাবে।

জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম মহানগরীর সহকারী সেক্রেটারী অধ্যক্ষ মুহাম্মদ নুরুল আমিন, নগর মজলিশে শূরার সদস্য ফয়সাল মোহাম্মদ ইউনুছ, এম.এ. আলম, আবু জাওয়াদ, আবু শাফায়াত, এম.এস সোলায়মান, জাকের হোসাইন, ২০ দলীয় ঐক্য জোট বাংলাদেশ ন্যাপের কেন্দ্রীয় নেতা ওসমান গণি সিকদার ও বাংলাদেশ লেবার পাটি চট্টগ্রাম মহানগরী নেতা মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

এদিকে সিলেট, রংপুর, সুনামগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। নিম্নে কয়েকটি জেলার তথ্যচিত্র তুলে ধরা হলো।

  সিলেট ঐতিহাসিক আলিয়া মাদ্রাসা ময়দানে মীর কাসেম আলীর নামাজে জানাজা

(সুনামগঞ্জে মীর কাসেমের গায়েবানা জানাজা)


(মৌলভীবাজারে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত)


(কুমিল্লা মহানগরীতে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত)

(ফেনী শহরে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত)

( কুমিল্লার লাকসামে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত)

(রংপুরে মীর কাসেম আলীর গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত)

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X