বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৪৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, July 3, 2017 6:54 pm
A- A A+ Print

পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত, এর মাঝেই ‘অপহৃতের’ ফোন

photo-1499085700

আক্ষরিক অর্থেই তখন ঘরভর্তি পুলিশ। বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা ফরহাদ মজহারের ‘অপহরণের’ বিষয়ে কথা বলছিলেন। এমন সময়ই অজ্ঞাত স্থান থেকে ফোন আসে তাঁর স্ত্রী ফরিদা আখতারের কাছে। মোবাইল ফোনটি নিয়ে তিনি দৌড়ে চলে যান পুলিশ কর্মকর্তাদের সামনে। ফোনে ‘অপহরকারীদের’ দাবির বিষয়ে কথা বলেন ফরহাদ মজহার। আজ সোমবার বিকেলে শ্যামলীর রিং রোডের এক নম্বর বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। বিশিষ্ট এই ব্যক্তি অপহৃত হয়েছেন খবর পেয়ে তাঁর বাসায় যান পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা। বিকেলে যখন ফরহাদ মজহার টেলিফোন করেন, তখন সেখানে পুলিশের একজন অতিরিক্ত উপমহাপরিদর্শক, আদাবর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) পর্যায়ের তিনজন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সকালে প্রথম দফায় ‘অপহরণকারীরা’ ৩৫ লাখ টাকা চায় বলে নিজের বাড়িতে ফোন করে জানিয়েছিলেন ফরহাদ মজহার। দুপুরের পর স্ত্রী ফরিদা আখতারের কাছে আবার ফোন আসে। ফরহাদ মজহারের স্ত্রী ফরিদা আখতার বলেন, তিনি টেলিফোনে ফরহাদ মজহারকে জানিয়েছেন যে সবাইকে টাকার কথা বলা হয়েছে। সবাই জোগাড়ের চেষ্টা করছে। কিন্তু এখনো জোগাড় হয়নি। পরে ফরহাদ মজহার বলেন, ‘টাকা না হলে ওরা আমাকে মেরে ফেলবে।’ টেলিফোন আলাপ সম্পর্কে উপস্থিত ব্যক্তিদের ফরিদা আখতার আরো বলেন, ‘(ফরহাদ মজহার) বলছে, টাকার ব্যবস্থাটা হইছে? এটা জানা দরকার ছিল। জানা দরকার বলে আমি একটু পরে ফোন করতেছি, কোথায় দিতে হবে।’ ফরিদা আখতার বলেন, ‘আমার এক নম্বর কনসার্ন হলো তাঁর ফিজিক্যাল সেফটি (শারীরিক নিরাপত্তা)। এইটার উপরে আর কোনো কথা নাই।’

Comments

Comments!

 পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত, এর মাঝেই ‘অপহৃতের’ ফোনAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত, এর মাঝেই ‘অপহৃতের’ ফোন

Monday, July 3, 2017 6:54 pm
photo-1499085700

আক্ষরিক অর্থেই তখন ঘরভর্তি পুলিশ। বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা ফরহাদ মজহারের ‘অপহরণের’ বিষয়ে কথা বলছিলেন। এমন সময়ই অজ্ঞাত স্থান থেকে ফোন আসে তাঁর স্ত্রী ফরিদা আখতারের কাছে। মোবাইল ফোনটি নিয়ে তিনি দৌড়ে চলে যান পুলিশ কর্মকর্তাদের সামনে। ফোনে ‘অপহরকারীদের’ দাবির বিষয়ে কথা বলেন ফরহাদ মজহার।

আজ সোমবার বিকেলে শ্যামলীর রিং রোডের এক নম্বর বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

বিশিষ্ট এই ব্যক্তি অপহৃত হয়েছেন খবর পেয়ে তাঁর বাসায় যান পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা। বিকেলে যখন ফরহাদ মজহার টেলিফোন করেন, তখন সেখানে পুলিশের একজন অতিরিক্ত উপমহাপরিদর্শক, আদাবর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) পর্যায়ের তিনজন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে প্রথম দফায় ‘অপহরণকারীরা’ ৩৫ লাখ টাকা চায় বলে নিজের বাড়িতে ফোন করে জানিয়েছিলেন ফরহাদ মজহার। দুপুরের পর স্ত্রী ফরিদা আখতারের কাছে আবার ফোন আসে।

ফরহাদ মজহারের স্ত্রী ফরিদা আখতার বলেন, তিনি টেলিফোনে ফরহাদ মজহারকে জানিয়েছেন যে সবাইকে টাকার কথা বলা হয়েছে। সবাই জোগাড়ের চেষ্টা করছে। কিন্তু এখনো জোগাড় হয়নি। পরে ফরহাদ মজহার বলেন, ‘টাকা না হলে ওরা আমাকে মেরে ফেলবে।’

টেলিফোন আলাপ সম্পর্কে উপস্থিত ব্যক্তিদের ফরিদা আখতার আরো বলেন, ‘(ফরহাদ মজহার) বলছে, টাকার ব্যবস্থাটা হইছে? এটা জানা দরকার ছিল। জানা দরকার বলে আমি একটু পরে ফোন করতেছি, কোথায় দিতে হবে।’

ফরিদা আখতার বলেন, ‘আমার এক নম্বর কনসার্ন হলো তাঁর ফিজিক্যাল সেফটি (শারীরিক নিরাপত্তা)। এইটার উপরে আর কোনো কথা নাই।’

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X