সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:৩৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, May 5, 2017 12:05 am
A- A A+ Print

পৃথিবীতে মানুষের আয়ু আর মাত্র ১০০ বছর!

---

প্রখ্যাত পদার্থবিদ স্টিফেন হকিং মনে করেন, অস্তিত্ব রক্ষা করতে হলে আগামী এক শতাব্দীর মধ্যেই মানবজাতিকে পৃথিবী ছাড়তে হবে। বেঁচে থাকার জন্য অন্য কোনো গ্রহে আবাস গড়তে হবে মানুষকে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব, মহামারি ও জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে এই গ্রহের অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়ছে বলে মনে করেন ব্রিটিশ এই বিজ্ঞানী। স্টিফেন হকিং ‘এক্সপেডিশন নিউ আর্থ’ নামের বিবিসির একটি নতুন তথ্যচিত্রে এ মন্তব্য করেছেন। বিবিসি টু’তে ওই তথ্যচিত্র সম্প্রচার করা হয়েছে। এই তথ্যচিত্রের নির্মাতা হকিং নিজেই। এই তথ্যচিত্রটি বিবিসির সায়েন্স সিজন ‘টুমোরোস ওয়ার্ল্ড’-এর অংশ। তথ্যচিত্রটিতে হকিং বলেছেন, জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাব, উল্কার আঘাত, মহামারি এবং জনসংখ্যা বৃদ্ধি এই গ্রহটিকে ‘ক্রমাগতভাবে বিপজ্জনক’ করে তুলেছে। অস্তিত্ব রক্ষা করতে হলে আমাদের এই পৃথিবী ত্যাগ করা প্রয়োজন। হকিংয়ের ধারণা, আমরা যদি নতুন একটি পৃথিবী খুঁজে পেতে ব্যর্থ হই, তবে মানবজাতির অস্তিত্ব সর্বোচ্চ ১০০ বছর পর্যন্ত টিকবে। যুগান্তকারী ধারাবাহিক অনুষ্ঠান ‘টুমোরোস ওয়ার্ল্ড’ তৈরির জন্য হকিং ও তাঁর সাবেক ছাত্র ক্রিস্টোফ গালফার্ড মহাকাশে কীভাবে মানুষ বাঁচতে পারবে—তা অনুসন্ধান করতে পুরো বিশ্ব ভ্রমণ করবেন। ভবিষ্যৎ সম্পর্কিত বিষয়াদি নিয়ে তৈরি টুমোরোস ওয়ার্ল্ড ধারাবাহিকটি ৩৮ বছর ধরে সম্প্রচারিত হওয়ার পর ১৪ বছর আগে বিবিসি বাতিল করে। তবে বিজ্ঞানীদের অংশগ্রহণ ও সবার সহযোগিতার মাধ্যমে নতুন করে শুরু হওয়া এই ধারাবাহিক অনুষ্ঠানটি আগের চেয়ে আরও ভালো হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পদার্থবিজ্ঞানী ও টিভি উপস্থাপক প্রফেসর ব্রায়ান কক্স এই ধারাবাহিক তৈরিতে সহযোগিতা করছেন। তিনি বলেন, ‘একবিংশ শতাব্দীর টুমোরোস ওয়ার্ল্ড আরও নতুন কিছু উপস্থাপন করবে।’ বিবিসির মহাপরিচালক টনি হল বলেন, ‘সাধারণ ও খুবই দৃঢ় স্বপ্ন নিয়ে আমরা একত্র হয়েছি। সামগ্রিক জ্ঞান ও বোঝাপড়ার মাধ্যমে আমাদের জীবন ও ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জানা প্রয়োজন।’ সূত্র: টেলিগ্রাফ

Comments

Comments!

 পৃথিবীতে মানুষের আয়ু আর মাত্র ১০০ বছর!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

পৃথিবীতে মানুষের আয়ু আর মাত্র ১০০ বছর!

Friday, May 5, 2017 12:05 am
---

প্রখ্যাত পদার্থবিদ স্টিফেন হকিং মনে করেন, অস্তিত্ব রক্ষা করতে হলে আগামী এক শতাব্দীর মধ্যেই মানবজাতিকে পৃথিবী ছাড়তে হবে। বেঁচে থাকার জন্য অন্য কোনো গ্রহে আবাস গড়তে হবে মানুষকে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব, মহামারি ও জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে এই গ্রহের অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়ছে বলে মনে করেন ব্রিটিশ এই বিজ্ঞানী।

স্টিফেন হকিং ‘এক্সপেডিশন নিউ আর্থ’ নামের বিবিসির একটি নতুন তথ্যচিত্রে এ মন্তব্য করেছেন। বিবিসি টু’তে ওই তথ্যচিত্র সম্প্রচার করা হয়েছে। এই তথ্যচিত্রের নির্মাতা হকিং নিজেই। এই তথ্যচিত্রটি বিবিসির সায়েন্স সিজন ‘টুমোরোস ওয়ার্ল্ড’-এর অংশ।

তথ্যচিত্রটিতে হকিং বলেছেন, জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাব, উল্কার আঘাত, মহামারি এবং জনসংখ্যা বৃদ্ধি এই গ্রহটিকে ‘ক্রমাগতভাবে বিপজ্জনক’ করে তুলেছে। অস্তিত্ব রক্ষা করতে হলে আমাদের এই পৃথিবী ত্যাগ করা প্রয়োজন।

হকিংয়ের ধারণা, আমরা যদি নতুন একটি পৃথিবী খুঁজে পেতে ব্যর্থ হই, তবে মানবজাতির অস্তিত্ব সর্বোচ্চ ১০০ বছর পর্যন্ত টিকবে।

যুগান্তকারী ধারাবাহিক অনুষ্ঠান ‘টুমোরোস ওয়ার্ল্ড’ তৈরির জন্য হকিং ও তাঁর সাবেক ছাত্র ক্রিস্টোফ গালফার্ড মহাকাশে কীভাবে মানুষ বাঁচতে পারবে—তা অনুসন্ধান করতে পুরো বিশ্ব ভ্রমণ করবেন। ভবিষ্যৎ সম্পর্কিত বিষয়াদি নিয়ে তৈরি টুমোরোস ওয়ার্ল্ড ধারাবাহিকটি ৩৮ বছর ধরে সম্প্রচারিত হওয়ার পর ১৪ বছর আগে বিবিসি বাতিল করে। তবে বিজ্ঞানীদের অংশগ্রহণ ও সবার সহযোগিতার মাধ্যমে নতুন করে শুরু হওয়া এই ধারাবাহিক অনুষ্ঠানটি আগের চেয়ে আরও ভালো হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পদার্থবিজ্ঞানী ও টিভি উপস্থাপক প্রফেসর ব্রায়ান কক্স এই ধারাবাহিক তৈরিতে সহযোগিতা করছেন। তিনি বলেন, ‘একবিংশ শতাব্দীর টুমোরোস ওয়ার্ল্ড আরও নতুন কিছু উপস্থাপন করবে।’ বিবিসির মহাপরিচালক টনি হল বলেন, ‘সাধারণ ও খুবই দৃঢ় স্বপ্ন নিয়ে আমরা একত্র হয়েছি। সামগ্রিক জ্ঞান ও বোঝাপড়ার মাধ্যমে আমাদের জীবন ও ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জানা প্রয়োজন।’

সূত্র: টেলিগ্রাফ

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X