সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৪:১৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, December 8, 2016 10:36 pm
A- A A+ Print

প্রধানমন্ত্রীর ২০০ বছর আয়ু চান রওশন

rousan1481213122

প্রধানমন্ত্রী ও সংসদনেতা শেখ হাসিনার ২০০ বছর আয়ু কামনা করেছেন সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির নেতা রওশন এরশাদ। বৃহস্পতিবার দশম সংসদের ত্রয়োদশ অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানে তিনবার নিরাপত্তা তল্লাশি চালানোর দাবি করে তিনি একথা বলেন। রওশন এরশাদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে ত্রুটিপূর্ণ বিমানে কেন চড়ানো হলো? ওই বিমানে নাকি আগেও সমস্যা হয়েছিল। নাটবল্টু ঢিলা করে সোনা চোরাচালান করা হয়েছিল। তিনি আরও বলেন, আমরা চাই, আপনি ২০০ বছর বাঁচুন। না হলে আমাদের কে দেখবে? জাতির পিতাকে হারানো একটা দুঃস্বপ্ন ছিল। মিয়ানমারের রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘ রোহিঙ্গা বিতাড়নের বিরুদ্ধে মিয়ানমারের তথাকথিত গণতান্ত্রিক সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে না কেন? কেন চুপ করে আছে বিশ্বের পরাশক্তি, মহাশক্তিধর রাষ্ট্রগুলো। আশা করব আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সমস্যা সমাধানে কাজ করবে। মিয়ানমারে গণতান্ত্রিক সরকার বিদ্যমান। সে দেশের সরকার গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সমস্যার সমাধানের পদক্ষেপ নেবে বলে আশা প্রকাশ করেন রওশন এরশাদ। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ এতটাই ঘনবসতির দেশ যে তার পক্ষে স্থায়ী শরণার্থী গ্রহণ করা সম্ভব নয়। দীর্ঘ সময় আগে বিতাড়িত রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ ভূখণ্ডে আশ্রয় নেয় শরণার্থী হিসেবে। তারা এখন এদেশে প্রায় স্থায়ী বাসিন্দা। কিন্তু বিষয়টি বাংলাদেশের জন্য বড় সমস্যা।  এসব রোহিঙ্গা নিয়ে চলছে এনজিও এবং সাম্রাজ্যবাদী চক্রান্ত, যা শুধু দূষিত রাজনীতিই নয়, সাম্প্রদায়িকতার আগুনেও জ্বালানি যোগ করতে তৎপর। তিনি আরও বলেন, সারাবিশ্ব তাকিয়ে আছে, কিছু বলছে না। সিরিয়ার আইলান সমুদ্রে পড়েছিল, তখন সারাবিশ্ব কথা বলেছিল। সারাবিশ্বের বিবেক এখন কোথায়? জাতিসংঘ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়নি, আশ্চর্য লাগে। মিয়ানমারের সমালোচনা করে রওশন বলেন, অং সান সু চি নোবেল লরিয়েট। তিনি চুপ করে আছেন। আরেকজন আছে ড. ইউনূস, তিনিও চুপ করে আছেন।  

Comments

Comments!

 প্রধানমন্ত্রীর ২০০ বছর আয়ু চান রওশনAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

প্রধানমন্ত্রীর ২০০ বছর আয়ু চান রওশন

Thursday, December 8, 2016 10:36 pm
rousan1481213122

প্রধানমন্ত্রী ও সংসদনেতা শেখ হাসিনার ২০০ বছর আয়ু কামনা করেছেন সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির নেতা রওশন এরশাদ।

বৃহস্পতিবার দশম সংসদের ত্রয়োদশ অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানে তিনবার নিরাপত্তা তল্লাশি চালানোর দাবি করে তিনি একথা বলেন।

রওশন এরশাদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে ত্রুটিপূর্ণ বিমানে কেন চড়ানো হলো? ওই বিমানে নাকি আগেও সমস্যা হয়েছিল। নাটবল্টু ঢিলা করে সোনা চোরাচালান করা হয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, আমরা চাই, আপনি ২০০ বছর বাঁচুন। না হলে আমাদের কে দেখবে? জাতির পিতাকে হারানো একটা দুঃস্বপ্ন ছিল।

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘ রোহিঙ্গা বিতাড়নের বিরুদ্ধে মিয়ানমারের তথাকথিত গণতান্ত্রিক সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে না কেন? কেন চুপ করে আছে বিশ্বের পরাশক্তি, মহাশক্তিধর রাষ্ট্রগুলো।

আশা করব আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সমস্যা সমাধানে কাজ করবে। মিয়ানমারে গণতান্ত্রিক সরকার বিদ্যমান। সে দেশের সরকার গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সমস্যার সমাধানের পদক্ষেপ নেবে বলে আশা প্রকাশ করেন রওশন এরশাদ।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ এতটাই ঘনবসতির দেশ যে তার পক্ষে স্থায়ী শরণার্থী গ্রহণ করা সম্ভব নয়। দীর্ঘ সময় আগে বিতাড়িত রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ ভূখণ্ডে আশ্রয় নেয় শরণার্থী হিসেবে। তারা এখন এদেশে প্রায় স্থায়ী বাসিন্দা। কিন্তু বিষয়টি বাংলাদেশের জন্য বড় সমস্যা।  এসব রোহিঙ্গা নিয়ে চলছে এনজিও এবং সাম্রাজ্যবাদী চক্রান্ত, যা শুধু দূষিত রাজনীতিই নয়, সাম্প্রদায়িকতার আগুনেও জ্বালানি যোগ করতে তৎপর।

তিনি আরও বলেন, সারাবিশ্ব তাকিয়ে আছে, কিছু বলছে না। সিরিয়ার আইলান সমুদ্রে পড়েছিল, তখন সারাবিশ্ব কথা বলেছিল। সারাবিশ্বের বিবেক এখন কোথায়? জাতিসংঘ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়নি, আশ্চর্য লাগে।

মিয়ানমারের সমালোচনা করে রওশন বলেন, অং সান সু চি নোবেল লরিয়েট। তিনি চুপ করে আছেন। আরেকজন আছে ড. ইউনূস, তিনিও চুপ করে আছেন।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X