রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ২:০৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, May 9, 2017 4:25 pm
A- A A+ Print

প্রধান বিচারপতিসহ ৮জনকে দণ্ডের পর বিচারপতি কারনানকে ছয়মাসের দণ্ড

174348_1

দিল্লি: প্রধান বিচারপতিসহ আটজনকে কারাদণ্ড দেয়ার একদিনের মাথায় আদালত অবমাননার দায়ে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সিএস কারনানকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে ভারতের সূপ্রিম কোর্ট। সোমবার ভারতের প্রধান বিচারপতিসহ আট বিচারপতিকে পাঁচ বছর করে ‘সশ্রম কারাদণ্ড’ দেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সি এস কারনান। এরপর আজ মঙ্গলবার কারনানকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন সূপ্রিম কোর্ট। এই ‘আদেশ’ দেওয়ার আগেই কলকাতার বিচারপতি কারনানের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অগ্রাহ্য করায় আদালত অবমাননার অভিযোগ উঠে। কিন্তু তিনি সেগুলোকে পাত্তা না দিয়ে পাল্টা পদক্ষেপ নিলেন। বর্ণবৈষম্য, ষড়যন্ত্র, হয়রানি ও কাজে বাধা দেওয়ার ‘দায়ে’ ভারতের প্রধান বিচারপতিসহ আট বিচারপতিকে ‘কারাদণ্ডাদেশ’ দেন বিচারপতি সি এস কারনান। ভারতের প্রধান বিচারপতি জে এস খেহর ছাড়া অন্য ‘দণ্ডপ্রাপ্ত’ বিচারপতিরা হলেন- দীপক মিশ্র, জে চেলামেশ্বর, রঞ্জন গগৈ, মদন বি লোকুর, পিনাকী চন্দ্র ঘোষ, কুরিয়েন জোসেফ ও আর ভানুমতী। তাদের মধ্যে বিচারপতি ভানুমতী বাদে বাকি সাতজন বিচারপতি একই বেঞ্চের সদস্য। প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন এই বেঞ্চ বিচারপতি সি এস কারনানকে বিচার এবং প্রশাসনিক কাজকর্ম থেকে বিরত রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন। বলা হচ্ছে, এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন বিচারপতি সি এস কারনান। সুপ্রিম কোর্টের ওই নির্দেশকে তিনি পাত্তা দেননি। পরে সুপ্রিম কোর্ট তার মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু বিচারপতি কারনান সাফ জানিয়ে দেন, তিনি সুস্থ আছেন। তার মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার কিছু নেই। এরপর এই বিচারপতি পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের বেঞ্চ ও বিচারপতি আর ভানুমতী তাকে কাজ করতে দিচ্ছেন না। এরপর নিজেই ওই বিচারপতিদের বিরুদ্ধে ‘রায়’ দেন। বিচারপতি সি এস কারনানের চাকরির মেয়াদ আছে আর মাত্র মাস খানেক।
 

Comments

Comments!

 প্রধান বিচারপতিসহ ৮জনকে দণ্ডের পর বিচারপতি কারনানকে ছয়মাসের দণ্ডAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

প্রধান বিচারপতিসহ ৮জনকে দণ্ডের পর বিচারপতি কারনানকে ছয়মাসের দণ্ড

Tuesday, May 9, 2017 4:25 pm
174348_1

দিল্লি: প্রধান বিচারপতিসহ আটজনকে কারাদণ্ড দেয়ার একদিনের মাথায় আদালত অবমাননার দায়ে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সিএস কারনানকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে ভারতের সূপ্রিম কোর্ট।

সোমবার ভারতের প্রধান বিচারপতিসহ আট বিচারপতিকে পাঁচ বছর করে ‘সশ্রম কারাদণ্ড’ দেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সি এস কারনান। এরপর আজ মঙ্গলবার কারনানকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন সূপ্রিম কোর্ট।

এই ‘আদেশ’ দেওয়ার আগেই কলকাতার বিচারপতি কারনানের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অগ্রাহ্য করায় আদালত অবমাননার অভিযোগ উঠে। কিন্তু তিনি সেগুলোকে পাত্তা না দিয়ে পাল্টা পদক্ষেপ নিলেন। বর্ণবৈষম্য, ষড়যন্ত্র, হয়রানি ও কাজে বাধা দেওয়ার ‘দায়ে’ ভারতের প্রধান বিচারপতিসহ আট বিচারপতিকে ‘কারাদণ্ডাদেশ’ দেন বিচারপতি সি এস কারনান।

ভারতের প্রধান বিচারপতি জে এস খেহর ছাড়া অন্য ‘দণ্ডপ্রাপ্ত’ বিচারপতিরা হলেন- দীপক মিশ্র, জে চেলামেশ্বর, রঞ্জন গগৈ, মদন বি লোকুর, পিনাকী চন্দ্র ঘোষ, কুরিয়েন জোসেফ ও আর ভানুমতী।

তাদের মধ্যে বিচারপতি ভানুমতী বাদে বাকি সাতজন বিচারপতি একই বেঞ্চের সদস্য। প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন এই বেঞ্চ বিচারপতি সি এস কারনানকে বিচার এবং প্রশাসনিক কাজকর্ম থেকে বিরত রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

বলা হচ্ছে, এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন বিচারপতি সি এস কারনান। সুপ্রিম কোর্টের ওই নির্দেশকে তিনি পাত্তা দেননি। পরে সুপ্রিম কোর্ট তার মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু বিচারপতি কারনান সাফ জানিয়ে দেন, তিনি সুস্থ আছেন। তার মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার কিছু নেই।

এরপর এই বিচারপতি পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের বেঞ্চ ও বিচারপতি আর ভানুমতী তাকে কাজ করতে দিচ্ছেন না। এরপর নিজেই ওই বিচারপতিদের বিরুদ্ধে ‘রায়’ দেন।

বিচারপতি সি এস কারনানের চাকরির মেয়াদ আছে আর মাত্র মাস খানেক।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X