মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৯:৪১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, January 28, 2017 11:29 pm
A- A A+ Print

প্লেট নিয়ে আসব, মেয়র খাবার দিলেই হবে : হকার নেতারা

65

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনকে উদ্দেশ করে হকার নেতারা বলেছেন, উচ্ছেদের কারণে হকার ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা না খেয়ে আছেন। এভাবে চলতে থাকলে তাঁরা নগর ভবনের চারপাশে অবস্থান নেবেন। তাঁরা বলেন, ‘আমরা হকাররা প্লেট নিয়ে যাব, মেয়র শুধু খাবারটা সরবরাহ করলেই হবে।’ আজ শনিবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে হকার সংগঠনগুলোর এক যৌথসভায় তাঁরা এসব কথা বলেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) দিনের বেলা হকার বসতে না দেওয়ার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এই সভা আয়োজন করা হয়। হকারদের ১৬টি সংগঠনের জোট ‘হকার সমন্বয় পরিষদ’, বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়ন, জাতীয় সম্মিলিত হকার্স জোট যৌথভাবে এই সভার আয়োজন করে। সভার সভাপতি হকার সমন্বয় পরিষদের সমন্বয়ক আবুল হোসেন বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে, মেয়রের বিরুদ্ধে হকাররা আন্দোলনে নামেননি। মেয়র হকারদের পেটে লাথি মেরেছেন, হকারদের পরিবার না খেয়ে আছে। হকারদের পুনর্বাসন না করে, সুনির্দিষ্ট আইন ও নীতিমালা না করে হকারদের উচ্ছেদ করলে তা মানা হবে না। ১১ জানুয়ারি নগর ভবনে হকারদের বিভিন্ন সংগঠন, জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের সঙ্গে বৈঠকে ডিএসসিসির মেয়র সাঈদ খোকন। এ বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৫ জানুয়ারি থেকে সাপ্তাহিক কর্মদিবসে গুলিস্তান ও আশপাশের এলাকায় দিনের বেলা হকার বসা নিষেধ। তবে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার পরে তাঁরা ব্যবসা করতে পারবেন। যৌথসভায় ছিন্নমূল হকার্স সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম মেয়র সাঈদ খোকনকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘হকারদের ক্ষুধা বাড়ছে। হকাররা যদি খাবার না পায় তবে পরিবার নিয়ে নগর ভবনের চারপাশে বসে পড়বে। আপনার প্লেট কিনতে হবে না। আমরা প্লেট নিয়ে আসব, আপনি শুধু খাবারটা দিয়েন।’ আগামীকাল হকার সমন্বয় পরিষদের পক্ষ থেকে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে স্মারকলিপি দেওয়া হবে বলে সভায় ঘোষণা দেওয়া হয়। বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে হকাররা জমায়েত হবেন এবং সেখান থেকে স্মারকলিপি দিতে যাবেন। সভায় আরও বক্তব্য দেন হকার্স ইউনিয়নের উপদেষ্টা সেকেন্দার হায়াৎ, জাতীয় হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি আরিফ চৌধুরী, সম্মিলিত হকার্স জোটের আহ্বায়ক মোহাম্মদ আলী প্রমুখ। ১৫ জানুয়ারি থেকে ডিএসসিসি লাগাতার উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ, গুলিস্তান, ফুলবাড়িয়া, ইমপিরিয়াল হোটেল, খদ্দর বাজার শপিং কমপ্লেক্স, পীর ইয়ামেনী মার্কেটের সামনে, মতিঝিল, দিলকুশা, দৈনিক বাংলা, বায়তুল মোকাররম ও পল্টনে ফুটপাত এবং সড়ক থেকে অবৈধ কয়েক শতাধিক দোকান উচ্ছেদ করেছে ডিএসসিসি। মেয়র ইতিমধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন, শহরের ফুটপাত পথচারীবান্ধব না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে।

Comments

Comments!

 প্লেট নিয়ে আসব, মেয়র খাবার দিলেই হবে : হকার নেতারাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

প্লেট নিয়ে আসব, মেয়র খাবার দিলেই হবে : হকার নেতারা

Saturday, January 28, 2017 11:29 pm
65

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনকে উদ্দেশ করে হকার নেতারা বলেছেন, উচ্ছেদের কারণে হকার ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা না খেয়ে আছেন। এভাবে চলতে থাকলে তাঁরা নগর ভবনের চারপাশে অবস্থান নেবেন। তাঁরা বলেন, ‘আমরা হকাররা প্লেট নিয়ে যাব, মেয়র শুধু খাবারটা সরবরাহ করলেই হবে।’

আজ শনিবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে হকার সংগঠনগুলোর এক যৌথসভায় তাঁরা এসব কথা বলেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) দিনের বেলা হকার বসতে না দেওয়ার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এই সভা আয়োজন করা হয়। হকারদের ১৬টি সংগঠনের জোট ‘হকার সমন্বয় পরিষদ’, বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়ন, জাতীয় সম্মিলিত হকার্স জোট যৌথভাবে এই সভার আয়োজন করে।

সভার সভাপতি হকার সমন্বয় পরিষদের সমন্বয়ক আবুল হোসেন বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে, মেয়রের বিরুদ্ধে হকাররা আন্দোলনে নামেননি। মেয়র হকারদের পেটে লাথি মেরেছেন, হকারদের পরিবার না খেয়ে আছে। হকারদের পুনর্বাসন না করে, সুনির্দিষ্ট আইন ও নীতিমালা না করে হকারদের উচ্ছেদ করলে তা মানা হবে না।

১১ জানুয়ারি নগর ভবনে হকারদের বিভিন্ন সংগঠন, জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের সঙ্গে বৈঠকে ডিএসসিসির মেয়র সাঈদ খোকন। এ বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৫ জানুয়ারি থেকে সাপ্তাহিক কর্মদিবসে গুলিস্তান ও আশপাশের এলাকায় দিনের বেলা হকার বসা নিষেধ। তবে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার পরে তাঁরা ব্যবসা করতে পারবেন।

যৌথসভায় ছিন্নমূল হকার্স সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম মেয়র সাঈদ খোকনকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘হকারদের ক্ষুধা বাড়ছে। হকাররা যদি খাবার না পায় তবে পরিবার নিয়ে নগর ভবনের চারপাশে বসে পড়বে। আপনার প্লেট কিনতে হবে না। আমরা প্লেট নিয়ে আসব, আপনি শুধু খাবারটা দিয়েন।’

আগামীকাল হকার সমন্বয় পরিষদের পক্ষ থেকে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে স্মারকলিপি দেওয়া হবে বলে সভায় ঘোষণা দেওয়া হয়। বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে হকাররা জমায়েত হবেন এবং সেখান থেকে স্মারকলিপি দিতে যাবেন।

সভায় আরও বক্তব্য দেন হকার্স ইউনিয়নের উপদেষ্টা সেকেন্দার হায়াৎ, জাতীয় হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি আরিফ চৌধুরী, সম্মিলিত হকার্স জোটের আহ্বায়ক মোহাম্মদ আলী প্রমুখ।

১৫ জানুয়ারি থেকে ডিএসসিসি লাগাতার উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ, গুলিস্তান, ফুলবাড়িয়া, ইমপিরিয়াল হোটেল, খদ্দর বাজার শপিং কমপ্লেক্স, পীর ইয়ামেনী মার্কেটের সামনে, মতিঝিল, দিলকুশা, দৈনিক বাংলা, বায়তুল মোকাররম ও পল্টনে ফুটপাত এবং সড়ক থেকে অবৈধ কয়েক শতাধিক দোকান উচ্ছেদ করেছে ডিএসসিসি। মেয়র ইতিমধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন, শহরের ফুটপাত পথচারীবান্ধব না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X