রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:০৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, July 4, 2017 10:57 am
A- A A+ Print

ফরহাদ মজহার ঢাকায়

majhar_51081_1499141733

যশোরের নওয়াপাড়া থেকে উদ্ধারের পর কবি, প্রাবন্ধিক ও গবেষক ফরহাদ মজহারকে ঢাকা আনা হয়েছে। রাজধানীর আদাবর থানায় আনা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে তাকে ঢাকায় আনার পর আদাবর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। আদাবর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) সুজিত কুমার সাহা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে একটি দল ফরহাদ মজহারকে ঢাকায় নিয়ে আসে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। পরে সকাল ১০টার দিকে তাকে পুলিশের তেঁজগাও জোনের ডিসি কার্যালয়ে নিয়ে ‍যাওয়াা হয়। ফরহাদ মজহারকে ঢাকার আদাবর থানায় আনার পর তার পরিবারের সদস্যরা সেখানে তার সঙ্গে দেখা করেছেন। ফরহাদ মজহারের স্ত্রী ফরিদা আখতার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারে আমরা খুশি। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী চাইলে সব সম্ভব। তবে বাসায় না ফেরা পর্যন্ত উৎকণ্ঠায় আছি। এর আগে নিখোঁজের ১৯ ঘণ্টা পর সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে যশোরেরে নওয়াপাড়া বেঙ্গল টেক্সটাইল মিলের সামনে ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাস থেকে তাকে উদ্ধার করে র‌্যাব। বাসটি খুলনা থেকে ছেড়ে আসে। পরে তাকে স্থানীয় অভয়নগর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে রাতেই কড়া প্রহরায় তাকে পার্শ্ববর্তী ফুলতলা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে আজ আনা হয় ঢাকা আদাবর থানায়। পরিবারের দাবি, ঢাকার শ্যামলীর নিজের বাসা থেকে সোমবার ভোর পাঁচটার দিকে একটা ফোন পেয়ে বের হয়ে যান ফরহাদ মজহার। এরপর তার মোবাইল ফোন ব্যবহার করে একাধিকবার মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এরপরই ফরহাদর মজহারকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না জানিয়ে তার পরিবার আদাবর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে। এদিকে ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারের পর সোমবার রাত ১টার দিকে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহমেদ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, প্রাথমিকভাবে আমাদের মনে হয়েছে, তিনি ঢাকা থেকে স্বেচ্ছায় খুলনায় ভ্রমণ করেন। দৈনন্দিন ব্যবহারের জিনিসসহ তার সঙ্গে ব্যাগপত্র ছিল। তবে এখনই এ বিষয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত করে কিছু বলা যাবে না। তাকে ঢাকায় এনে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। পুলিশের এ দাবি নাকচ করে পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ‘বাসার সিসিটিভির ভিডিও ফুটেজে তারা দেখেছেন, বাসা থেকে বের হওয়ার সময় তার হাতে কোনো ধরনের ব্যাগপত্র ছিল না।’ পরিবারের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, উদ্ধারের পর ফরহাদ মজহার পরিবারকে জানিয়েছেন- ‘সন্ধ্যার পর তার চোখের বাঁধন খোলা হয়’।

Comments

Comments!

 ফরহাদ মজহার ঢাকায়AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ফরহাদ মজহার ঢাকায়

Tuesday, July 4, 2017 10:57 am
majhar_51081_1499141733

যশোরের নওয়াপাড়া থেকে উদ্ধারের পর কবি, প্রাবন্ধিক ও গবেষক ফরহাদ মজহারকে ঢাকা আনা হয়েছে। রাজধানীর আদাবর থানায় আনা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে তাকে ঢাকায় আনার পর আদাবর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

আদাবর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) সুজিত কুমার সাহা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে একটি দল ফরহাদ মজহারকে ঢাকায় নিয়ে আসে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পরে সকাল ১০টার দিকে তাকে পুলিশের তেঁজগাও জোনের ডিসি কার্যালয়ে নিয়ে ‍যাওয়াা হয়।

ফরহাদ মজহারকে ঢাকার আদাবর থানায় আনার পর তার পরিবারের সদস্যরা সেখানে তার সঙ্গে দেখা করেছেন।

ফরহাদ মজহারের স্ত্রী ফরিদা আখতার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারে আমরা খুশি। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী চাইলে সব সম্ভব। তবে বাসায় না ফেরা পর্যন্ত উৎকণ্ঠায় আছি।

এর আগে নিখোঁজের ১৯ ঘণ্টা পর সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে যশোরেরে নওয়াপাড়া বেঙ্গল টেক্সটাইল মিলের সামনে ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাস থেকে তাকে উদ্ধার করে র‌্যাব। বাসটি খুলনা থেকে ছেড়ে আসে।

পরে তাকে স্থানীয় অভয়নগর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে রাতেই কড়া প্রহরায় তাকে পার্শ্ববর্তী ফুলতলা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে আজ আনা হয় ঢাকা আদাবর থানায়।

পরিবারের দাবি, ঢাকার শ্যামলীর নিজের বাসা থেকে সোমবার ভোর পাঁচটার দিকে একটা ফোন পেয়ে বের হয়ে যান ফরহাদ মজহার। এরপর তার মোবাইল ফোন ব্যবহার করে একাধিকবার মুক্তিপণ দাবি করা হয়।

এরপরই ফরহাদর মজহারকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না জানিয়ে তার পরিবার আদাবর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে।

এদিকে ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারের পর সোমবার রাত ১টার দিকে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহমেদ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, প্রাথমিকভাবে আমাদের মনে হয়েছে, তিনি ঢাকা থেকে স্বেচ্ছায় খুলনায় ভ্রমণ করেন। দৈনন্দিন ব্যবহারের জিনিসসহ তার সঙ্গে ব্যাগপত্র ছিল। তবে এখনই এ বিষয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত করে কিছু বলা যাবে না। তাকে ঢাকায় এনে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

পুলিশের এ দাবি নাকচ করে পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ‘বাসার সিসিটিভির ভিডিও ফুটেজে তারা দেখেছেন, বাসা থেকে বের হওয়ার সময় তার হাতে কোনো ধরনের ব্যাগপত্র ছিল না।’

পরিবারের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, উদ্ধারের পর ফরহাদ মজহার পরিবারকে জানিয়েছেন- ‘সন্ধ্যার পর তার চোখের বাঁধন খোলা হয়’।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X