শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১১:৩৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, October 5, 2017 9:04 am
A- A A+ Print

‘ফুল’-কে ‘পুল’ শোনার ভুলেই মুম্বাইয়ের দুর্ঘটনা!

1507170222

ছিল ‘ফুল’, হল ‘পুল’। একটা শব্দের এ দিক ও দিক। আর তা-ই কেড়ে নিল ২৯টি প্রাণ। শোনার একটুখানি ভুলেই ছড়ায় গুজব। আর তার জেরেই গত শুক্রবার মুম্বাইয়ের এলফিনস্টোন রোড স্টেশনে পদপিষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় ২৯ জনের। জখম হন আরও ৩৯ জন। ঘটনার তদন্তে তৈরি হয়েছিল তিন জনের একটি বিশেষ তদন্তদল। সোমবার দুর্ঘটনায় আহত বিশ্বকর্মা নামে এক ছাত্রী ওই তদন্তকারী দলের কাছে নিজের বয়ান জমা দেন। বিশ্বকর্মার বয়ান ও সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, বোঝার ভুলেই গুজব রটে। আর তার জেরেই দুর্ঘটনা। শুক্রবারের সকাল স্টেশনে তখন নিত্যযাত্রীদের ব্যস্ততা। কয়েক দিন ধরেই মুম্বাইয়ে টানা বৃষ্টি চলছিল। তার মধ্যেই স্টেশনে নেমে হাজার হাজার যাত্রী পারেলে যাওয়ার জন্য ছুটছিলেন ফুটব্রিজের দিকে। বৃষ্টি থেকে মাথা বাঁচাতে ফুটব্রিজের উপরেই আশ্রয় নিয়েছিলেন অনেকে। তার মধ্যেই চলছিল যাত্রীদের যাতায়াত। সেই সময়েই ঘটে বিপত্তি। তদন্তকারীদের ১৯ বছরের বিশ্বকর্মা জানান, বৃষ্টিতে ভিজে পিচ্ছিল হয়েছিল ফুটব্রিজ। এক ফুলওয়ালা কোনও ভাবে পা পিছলে সিঁড়িতে পড়ে যান। হাত থেকে ফুল পড়ে যাওয়ায় তিনি ‘ফুল গির গ্যয়া’ বলে আর্তনাদ করে উঠেছিলেন। আর সেটা শুনেই অনেকে ভেবে নিয়েছিলেন ‘পুল গির গ্যয়া’, অর্থাৎ কিনা ব্রিজ ভেঙে গিয়েছে। আর তার পরেই আতঙ্কে সবাই হুটোপাটি করে নামার চেষ্টা করতে থাকেন। পড়েও যান অনেকে। তাঁদের উপর দিয়েই চলতে থাকে পালানোর চেষ্টা। তবে শুধু গুজবের জন্যই দুর্ঘটনা, তা মানতে নারাজ যাত্রীদের একাংশ। ওই জীর্ণ ব্রিজ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ জানিয়ে আসছেন যাত্রীরা। তাঁদের দাবি, ব্রিজের অবস্থা এতটাই খারাপ যে নীচ দিয়ে ট্রেন গেলে কাঁপতে থাকে সেটি। বৃষ্টিতে পিছল ব্রিজের সরু সিড়ি বেয়ে ওঠানামা করাও ঝুঁকির। ভিড় সামলানোরও কোনও ব্যবস্থাও নেই ওই ব্রিজটিতে। সূত্র: আনন্দবাজার

Comments

Comments!

 ‘ফুল’-কে ‘পুল’ শোনার ভুলেই মুম্বাইয়ের দুর্ঘটনা!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘ফুল’-কে ‘পুল’ শোনার ভুলেই মুম্বাইয়ের দুর্ঘটনা!

Thursday, October 5, 2017 9:04 am
1507170222

ছিল ‘ফুল’, হল ‘পুল’। একটা শব্দের এ দিক ও দিক। আর তা-ই কেড়ে নিল ২৯টি প্রাণ। শোনার একটুখানি ভুলেই ছড়ায় গুজব। আর তার জেরেই গত শুক্রবার মুম্বাইয়ের এলফিনস্টোন রোড স্টেশনে পদপিষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় ২৯ জনের। জখম হন আরও ৩৯ জন।
ঘটনার তদন্তে তৈরি হয়েছিল তিন জনের একটি বিশেষ তদন্তদল। সোমবার দুর্ঘটনায় আহত বিশ্বকর্মা নামে এক ছাত্রী ওই তদন্তকারী দলের কাছে নিজের বয়ান জমা দেন। বিশ্বকর্মার বয়ান ও সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, বোঝার ভুলেই গুজব রটে। আর তার জেরেই দুর্ঘটনা।
শুক্রবারের সকাল স্টেশনে তখন নিত্যযাত্রীদের ব্যস্ততা। কয়েক দিন ধরেই মুম্বাইয়ে টানা বৃষ্টি চলছিল। তার মধ্যেই স্টেশনে নেমে হাজার হাজার যাত্রী পারেলে যাওয়ার জন্য ছুটছিলেন ফুটব্রিজের দিকে। বৃষ্টি থেকে মাথা বাঁচাতে ফুটব্রিজের উপরেই আশ্রয় নিয়েছিলেন অনেকে। তার মধ্যেই চলছিল যাত্রীদের যাতায়াত।

সেই সময়েই ঘটে বিপত্তি। তদন্তকারীদের ১৯ বছরের বিশ্বকর্মা জানান, বৃষ্টিতে ভিজে পিচ্ছিল হয়েছিল ফুটব্রিজ। এক ফুলওয়ালা কোনও ভাবে পা পিছলে সিঁড়িতে পড়ে যান। হাত থেকে ফুল পড়ে যাওয়ায় তিনি ‘ফুল গির গ্যয়া’ বলে আর্তনাদ করে উঠেছিলেন। আর সেটা শুনেই অনেকে ভেবে নিয়েছিলেন ‘পুল গির গ্যয়া’, অর্থাৎ কিনা ব্রিজ ভেঙে গিয়েছে। আর তার পরেই আতঙ্কে সবাই হুটোপাটি করে নামার চেষ্টা করতে থাকেন। পড়েও যান অনেকে। তাঁদের উপর দিয়েই চলতে থাকে পালানোর চেষ্টা।
তবে শুধু গুজবের জন্যই দুর্ঘটনা, তা মানতে নারাজ যাত্রীদের একাংশ। ওই জীর্ণ ব্রিজ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ জানিয়ে আসছেন যাত্রীরা। তাঁদের দাবি, ব্রিজের অবস্থা এতটাই খারাপ যে নীচ দিয়ে ট্রেন গেলে কাঁপতে থাকে সেটি। বৃষ্টিতে পিছল ব্রিজের সরু সিড়ি বেয়ে ওঠানামা করাও ঝুঁকির। ভিড় সামলানোরও কোনও ব্যবস্থাও নেই ওই ব্রিজটিতে।
সূত্র: আনন্দবাজার

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X