বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:৪৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, January 7, 2017 6:05 pm | আপডেটঃ January 07, 2017 6:09 PM
A- A A+ Print

ফেলানি হত্যার দিনে বাংলাদেশিকে পিটিয়ে মারল বিএসএফ

25

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার সীমান্ত এলাকায় বকুল মণ্ডল নামে এক বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যরা।27 শনিবার ভোরে উপজেলার চাকুলিয়া সীমান্তে বিএসএফ সদস্যরা তাকে হত্যা করা হয়। চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আমির মজিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। এই দিনেই ছয় বছর আগে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে বাংলাদেশি কিশোরী ফেলানি খাতুনকে গুলি করে হত্যা করেছিল বিএসএফ। নিহত বকুল মণ্ডলের বাড়ি দামুড়হুদা উপজেলার ফুলবাড়ি গ্রামে। তিনি মৃত সদা আলী মণ্ডলের ছেলে। তিনি গরু আনতে ভারতে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। এই ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে কড়া প্রতিবাদ জানিয়ে বিএসএফকে পতাকা বৈঠকের আহ্বান জানানো হয়েছে। ২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি কাঁটাতারের বেড়ায় নিরস্ত্র ফেলানীর মরদেহ ঝুলে থাকার ছবি প্রকাশ হলে সারা বিশ্বেই এ নিয়ে আলোচনা হয়। এই কিশোরী হত্যার ছয় বছর পূর্তির দিন কুড়িগ্রাম ও রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে সীমান্ত হত্যা নিয়ে নানা কর্মসূচি পালনের মধ্যেই চুয়াডাঙ্গা সীমান্তে এই হত্যা হলো। বিজিবি জানায়, শুক্রবার মধ্যরাতে বকুল মণ্ডলসহ পাঁচ থেকে ছয় জন গরু আনতে সীমান্তে যান। ভোরে তারা বাংলাদেশি সীমান্তের ৮৮ নং মেইন পিলারের কাছে অবস্থান করার সময় ভারতের মালুয়াপড়া বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা তাদেরকে ধাওয়া দেয়। এ সময় অন্য সদস্যরা পালিয়ে গেলেও ধরা পড়ে যান বকুল। আফসার আলী নামে বকুলের এক সহযোগী জানান, আটকের পর বিএসএফ সদস্যরা রাইফেলের বাট দিয়ে বকুলকে পেটাতে থাকে। ভোর ছয়টার দিকে তাকে মূমূর্ষ অবস্থায় সীমান্তের বাংলাদেশি অংশে ফেলে রেখে যায় বিএসএফ। পরে গ্রামবাসী তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে বকুল মণ্ডল মারা যায়।
 

Comments

Comments!

 ফেলানি হত্যার দিনে বাংলাদেশিকে পিটিয়ে মারল বিএসএফAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ফেলানি হত্যার দিনে বাংলাদেশিকে পিটিয়ে মারল বিএসএফ

Saturday, January 7, 2017 6:05 pm | আপডেটঃ January 07, 2017 6:09 PM
25

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার সীমান্ত এলাকায় বকুল মণ্ডল নামে এক বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যরা।27

শনিবার ভোরে উপজেলার চাকুলিয়া সীমান্তে বিএসএফ সদস্যরা তাকে হত্যা করা হয়। চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আমির মজিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

এই দিনেই ছয় বছর আগে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে বাংলাদেশি কিশোরী ফেলানি খাতুনকে গুলি করে হত্যা করেছিল বিএসএফ।

নিহত বকুল মণ্ডলের বাড়ি দামুড়হুদা উপজেলার ফুলবাড়ি গ্রামে। তিনি মৃত সদা আলী মণ্ডলের ছেলে। তিনি গরু আনতে ভারতে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

এই ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে কড়া প্রতিবাদ জানিয়ে বিএসএফকে পতাকা বৈঠকের আহ্বান জানানো হয়েছে।

২০১১ সালের ৭ জানুয়ারি কাঁটাতারের বেড়ায় নিরস্ত্র ফেলানীর মরদেহ ঝুলে থাকার ছবি প্রকাশ হলে সারা বিশ্বেই এ নিয়ে আলোচনা হয়। এই কিশোরী হত্যার ছয় বছর পূর্তির দিন কুড়িগ্রাম ও রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে সীমান্ত হত্যা নিয়ে নানা কর্মসূচি পালনের মধ্যেই চুয়াডাঙ্গা সীমান্তে এই হত্যা হলো।

বিজিবি জানায়, শুক্রবার মধ্যরাতে বকুল মণ্ডলসহ পাঁচ থেকে ছয় জন গরু আনতে সীমান্তে যান। ভোরে তারা বাংলাদেশি সীমান্তের ৮৮ নং মেইন পিলারের কাছে অবস্থান করার সময় ভারতের মালুয়াপড়া বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা তাদেরকে ধাওয়া দেয়। এ সময় অন্য সদস্যরা পালিয়ে গেলেও ধরা পড়ে যান বকুল।

আফসার আলী নামে বকুলের এক সহযোগী জানান, আটকের পর বিএসএফ সদস্যরা রাইফেলের বাট দিয়ে বকুলকে পেটাতে থাকে। ভোর ছয়টার দিকে তাকে মূমূর্ষ অবস্থায় সীমান্তের বাংলাদেশি অংশে ফেলে রেখে যায় বিএসএফ। পরে গ্রামবাসী তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে বকুল মণ্ডল মারা যায়।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X