বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:১৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, December 31, 2016 8:39 pm
A- A A+ Print

বই বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন ; সমালোচনা না, পরামর্শ দিন : প্রধানমন্ত্রী

14

সমালোচনা না করে শিক্ষার মান বাড়াতে বিশেষজ্ঞদের প্রতি পরামর্শ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার সকালে গণভবনে ২০১৭ শিক্ষাবর্ষের বিভিন্ন স্তরের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগম, প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধমিক শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর হোসেন এবং জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহা প্রমুখ। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, আজ পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধনের পর আগামীকাল রোববার বছরের প্রথম দিনে দেশব্যাপী পালন করা হবে বই উৎসব। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'যারা শিক্ষার মান নিয়ে সমালোচনা করেন, তাদের বলব- এক দিনে সবকিছু হয় না। আর মানের মাত্রাটা কী, সেই ব্যাখ্যা আমরা এখনও পাইনি। যারা এই প্রশ্নটা তোলেন তাদের কাছ থেকে যদি মানের মাত্রাটা পেতাম তাহলে খুশি হতাম।' তিনি বলেন, 'পড়ালেখার মান নিয়ে যারা প্রশ্ন তোলেন তারা বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে কিছুদিন অবস্থান করে এ বিষয়ে জানালে খুশি হতাম। পাশাপাশি পড়ালেখার মান উন্নয়নে কার্যকর কী পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে সে বিষয়েও সহযোগিতা করা উচিত।'শেখ হাসিনা বলেন, 'মান সব সময় পরিবর্তনশীল। বিশ্বে সবকিছুতেই পরিবর্তন হচ্ছে। আমরা এখন বিজ্ঞান শিক্ষা, প্রযুক্তি শিক্ষাসহ সব ধরনের শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছি। শিক্ষাকে সার্বজনীন করেছি।' তিনি বলেন, 'প্রতিবছরের শুরুতেই আমরা শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিচ্ছি। এমনকি ২০১৩, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে বিএনপি-জামায়াতের দেশব্যাপী তাণ্ডবের মধ্যেও আমরা সব শিক্ষার্থীর হাতে সময়মতো বই তুলে দিয়েছি।' প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০১০ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত আমরা ২২৫ কোটি ৪৩ লাখ বই বিতরণ করেছি।' তিনি বলেন, 'নতুন বই পেলে ছেলেমেয়েদের মনে আনন্দের অনুভূতি হয়। সুন্দর এই অনুভূতি পড়ালেখার আগ্রহ বাড়ায়। এজন্যই আমরা প্রতিবছর সময়মতো শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেই।' অনুষ্ঠানে যেসব শিশুরা বই গ্রহণ করেছে তাদের সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি আরও বলেন, 'শিক্ষা মৌলিক অধিকার। এই অধিকার সবাইকে গ্রহণ করতে হবে। আমাদের উদ্দেশ্য বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করা। দারিদ্র্যমুক্ত করতে হলে সবাইকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। শিক্ষাই দারিদ্র্যমুক্তির মূল ভিত্তি।' উল্লেখ্য, এনসিটিবি চেয়ারম্যন অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহা আগেই জানিয়েছেন, সরকার ২০১৭ শিক্ষাবর্ষে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে ৩৬ কোটি ২১ লাখ ৮২ হাজার ২৪৫টি পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করবে। তিনি আরও জানান, সারাদেশে ৪ কোটি ২৬ লাখ ৩৫ হাজার ৯২৯ জন ইবতেদায়ি, দাখিল, দাখিল কারিগরি, এসএসসি ভোকেশনাল, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীর মধ্যে বিনামূল্যে এসব বই বিতরণ করা হবে।

Comments

Comments!

 বই বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন ; সমালোচনা না, পরামর্শ দিন : প্রধানমন্ত্রীAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বই বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন ; সমালোচনা না, পরামর্শ দিন : প্রধানমন্ত্রী

Saturday, December 31, 2016 8:39 pm
14

সমালোচনা না করে শিক্ষার মান বাড়াতে বিশেষজ্ঞদের প্রতি পরামর্শ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার সকালে গণভবনে ২০১৭ শিক্ষাবর্ষের বিভিন্ন স্তরের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগম, প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধমিক শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর হোসেন এবং জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, আজ পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধনের পর আগামীকাল রোববার বছরের প্রথম দিনে দেশব্যাপী পালন করা হবে বই উৎসব।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যারা শিক্ষার মান নিয়ে সমালোচনা করেন, তাদের বলব- এক দিনে সবকিছু হয় না। আর মানের মাত্রাটা কী, সেই ব্যাখ্যা আমরা এখনও পাইনি। যারা এই প্রশ্নটা তোলেন তাদের কাছ থেকে যদি মানের মাত্রাটা পেতাম তাহলে খুশি হতাম।’

তিনি বলেন, ‘পড়ালেখার মান নিয়ে যারা প্রশ্ন তোলেন তারা বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে কিছুদিন অবস্থান করে এ বিষয়ে জানালে খুশি হতাম। পাশাপাশি পড়ালেখার মান উন্নয়নে কার্যকর কী পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে সে বিষয়েও সহযোগিতা করা উচিত।’শেখ হাসিনা বলেন, ‘মান সব সময় পরিবর্তনশীল। বিশ্বে সবকিছুতেই পরিবর্তন হচ্ছে। আমরা এখন বিজ্ঞান শিক্ষা, প্রযুক্তি শিক্ষাসহ সব ধরনের শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছি। শিক্ষাকে সার্বজনীন করেছি।’

তিনি বলেন, ‘প্রতিবছরের শুরুতেই আমরা শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিচ্ছি। এমনকি ২০১৩, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে বিএনপি-জামায়াতের দেশব্যাপী তাণ্ডবের মধ্যেও আমরা সব শিক্ষার্থীর হাতে সময়মতো বই তুলে দিয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০১০ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত আমরা ২২৫ কোটি ৪৩ লাখ বই বিতরণ করেছি।’

তিনি বলেন, ‘নতুন বই পেলে ছেলেমেয়েদের মনে আনন্দের অনুভূতি হয়। সুন্দর এই অনুভূতি পড়ালেখার আগ্রহ বাড়ায়। এজন্যই আমরা প্রতিবছর সময়মতো শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেই।’

অনুষ্ঠানে যেসব শিশুরা বই গ্রহণ করেছে তাদের সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি আরও বলেন, ‘শিক্ষা মৌলিক অধিকার। এই অধিকার সবাইকে গ্রহণ করতে হবে। আমাদের উদ্দেশ্য বাংলাদেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করা। দারিদ্র্যমুক্ত করতে হলে সবাইকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। শিক্ষাই দারিদ্র্যমুক্তির মূল ভিত্তি।’

উল্লেখ্য, এনসিটিবি চেয়ারম্যন অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহা আগেই জানিয়েছেন, সরকার ২০১৭ শিক্ষাবর্ষে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিনামূল্যে ৩৬ কোটি ২১ লাখ ৮২ হাজার ২৪৫টি পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করবে।

তিনি আরও জানান, সারাদেশে ৪ কোটি ২৬ লাখ ৩৫ হাজার ৯২৯ জন ইবতেদায়ি, দাখিল, দাখিল কারিগরি, এসএসসি ভোকেশনাল, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীর মধ্যে বিনামূল্যে এসব বই বিতরণ করা হবে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X