রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:৪৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, October 21, 2016 9:27 pm
A- A A+ Print

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কাজ অর্ধেক হয়েছে : তারানা

photo-1477058838

প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম আজ শুক্রবার সকালে বিটিসিএল গুলশান-১ এক্সচেঞ্জ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন। ছবি : এফএনএস
ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’-এর ৫০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এর মধ্যে স্যাটেলাইটের ইঞ্জিনিয়ারিং কাজ ৪৩ ভাগ, এন্টিনা তৈরির কাজ ৫৬ ভাগ এবং যোগাযোগ ও সার্ভিস মডুলসের ৬৫ ভাগ কাজ হয়েছে। প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম আজ শুক্রবার সকালে বিটিসিএল গুলশান-১ এক্সচেঞ্জ কার্যালয়ে স্যাটেলাইট ও বিটিসিএলের অপটিক ফাইবার নেটওয়ার্ক সম্পর্কে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন। স্যাটেলাইট সিস্টেম রিকয়ারমেন্ট রিভিউ (এসআরআর), প্রিলিমিনারি ডিজাইন রিভিউ (পিডিআর)-এর উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী বছরের ১৬ ডিসেম্বর মহাকাশে এটি উৎক্ষেপণের পর আমরা ২০১৮ সালের মার্চ মাস থেকে বাণিজ্যিক অপারেশন শুরু করব।’ ‘বর্তমান কাজের গতিধারা অব্যাহত থাকলে ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে স্যাটেলাইটটির নির্মাণকাজ শেষ হবে। স্যাটেলাইটটি কেপ কার্নিভাল লাঞ্চ প্যাড থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ভেহিকেল স্পেস এবং ফলকন-৯ ব্যবহার করে উৎক্ষেপণ করা হবে।’ প্রতিমন্ত্রী বলেন, উৎক্ষেপণের এক মাস আগে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা ও মহড়া, বিশেষ করে স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণের জন্য বিভিন্ন অংশ সংযোজন করা হবে। এরপর নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানটি ফ্রান্সের থালেস এলেনিয়া পরীক্ষা শেষে এটি ক্যাপ কার্নিভালের কাছে হস্তান্তর করবে। গ্রাউন্ড স্টেশনের প্রায় ৪০ ভাগ নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়েছে উল্লেখ করে বাকি কাজ শিগগির সম্পন্ন হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তারানা হালিম। তিনি বলেন, থালেস এলেনিয়া গ্রাউন্ড স্টেশনের যন্ত্রপাতি কেনার কাজ নভেম্বর মাসে হবে। স্যাটেলাইট প্রকল্প পরিচালক গোলাম রাজ্জাক বলেন, চূড়ান্ত পর্যায়ে উৎক্ষেপণের আগে উৎক্ষেপণ প্যাডে প্রস্তুতির জন্য প্রায় দুই মাস সময় প্রয়োজন। তবে যথাসময়ে এটি উৎক্ষেপণ করার ব্যাপারে তিনি আশা প্রকাশ করেন। গাজীপুরে বিটিসিএল স্টাফ কলেজ কম্পাউন্ডে স্যাটেলাইটের প্রাথমিক গ্রাউন্ড স্টেশন নির্মাণ করা হচ্ছে এবং দ্বিতীয়টি নির্মিত হবে রাঙামাটির বেতবুনিয়ায়। গত বছরের ১১ নভেম্বর বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) স্যাটেলাইট সিস্টেম কেনার জন্য থালেস এলেনিয়ার সঙ্গে দুই হাজার কোটি টাকার একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। সেপ্টেম্বর মাসে বিটিআরসি এইচএসবিসির সঙ্গে এক হাজার ৪০০ কোটি টাকার একটি ঋণচুক্তি স্বাক্ষর করে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে বিটিসিএলের অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক স্থাপনে ১৩ হাজার কিলোমিটার অপটিক ক্যাবল বসানো হয়েছে। ২২ হাজার কিলোমিটার ফাইবার অপটিক্যাল ক্যাবল বসানোর লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। তারানা হালিম আরো বলেন, অপর একটি প্রকল্পের মাধ্যমে আরো ১৩ হাজার কিলোমিটার ফাইবার অপটিক ক্যাবল বসানো হয়েছে। তিনি এই ক্যাবল ব্যবহার করে ব্রডব্যান্ডের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

Comments

Comments!

 বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কাজ অর্ধেক হয়েছে : তারানাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কাজ অর্ধেক হয়েছে : তারানা

Friday, October 21, 2016 9:27 pm
photo-1477058838

প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম আজ শুক্রবার সকালে বিটিসিএল গুলশান-১ এক্সচেঞ্জ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন। ছবি : এফএনএস

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’-এর ৫০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এর মধ্যে স্যাটেলাইটের ইঞ্জিনিয়ারিং কাজ ৪৩ ভাগ, এন্টিনা তৈরির কাজ ৫৬ ভাগ এবং যোগাযোগ ও সার্ভিস মডুলসের ৬৫ ভাগ কাজ হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম আজ শুক্রবার সকালে বিটিসিএল গুলশান-১ এক্সচেঞ্জ কার্যালয়ে স্যাটেলাইট ও বিটিসিএলের অপটিক ফাইবার নেটওয়ার্ক সম্পর্কে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন।

স্যাটেলাইট সিস্টেম রিকয়ারমেন্ট রিভিউ (এসআরআর), প্রিলিমিনারি ডিজাইন রিভিউ (পিডিআর)-এর উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী বছরের ১৬ ডিসেম্বর মহাকাশে এটি উৎক্ষেপণের পর আমরা ২০১৮ সালের মার্চ মাস থেকে বাণিজ্যিক অপারেশন শুরু করব।’

‘বর্তমান কাজের গতিধারা অব্যাহত থাকলে ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে স্যাটেলাইটটির নির্মাণকাজ শেষ হবে। স্যাটেলাইটটি কেপ কার্নিভাল লাঞ্চ প্যাড থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ভেহিকেল স্পেস এবং ফলকন-৯ ব্যবহার করে উৎক্ষেপণ করা হবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, উৎক্ষেপণের এক মাস আগে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা ও মহড়া, বিশেষ করে স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণের জন্য বিভিন্ন অংশ সংযোজন করা হবে। এরপর নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানটি ফ্রান্সের থালেস এলেনিয়া পরীক্ষা শেষে এটি ক্যাপ কার্নিভালের কাছে হস্তান্তর করবে।

গ্রাউন্ড স্টেশনের প্রায় ৪০ ভাগ নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়েছে উল্লেখ করে বাকি কাজ শিগগির সম্পন্ন হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তারানা হালিম। তিনি বলেন, থালেস এলেনিয়া গ্রাউন্ড স্টেশনের যন্ত্রপাতি কেনার কাজ নভেম্বর মাসে হবে।

স্যাটেলাইট প্রকল্প পরিচালক গোলাম রাজ্জাক বলেন, চূড়ান্ত পর্যায়ে উৎক্ষেপণের আগে উৎক্ষেপণ প্যাডে প্রস্তুতির জন্য প্রায় দুই মাস সময় প্রয়োজন। তবে যথাসময়ে এটি উৎক্ষেপণ করার ব্যাপারে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

গাজীপুরে বিটিসিএল স্টাফ কলেজ কম্পাউন্ডে স্যাটেলাইটের প্রাথমিক গ্রাউন্ড স্টেশন নির্মাণ করা হচ্ছে এবং দ্বিতীয়টি নির্মিত হবে রাঙামাটির বেতবুনিয়ায়।

গত বছরের ১১ নভেম্বর বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) স্যাটেলাইট সিস্টেম কেনার জন্য থালেস এলেনিয়ার সঙ্গে দুই হাজার কোটি টাকার একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। সেপ্টেম্বর মাসে বিটিআরসি এইচএসবিসির সঙ্গে এক হাজার ৪০০ কোটি টাকার একটি ঋণচুক্তি স্বাক্ষর করে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে বিটিসিএলের অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক স্থাপনে ১৩ হাজার কিলোমিটার অপটিক ক্যাবল বসানো হয়েছে। ২২ হাজার কিলোমিটার ফাইবার অপটিক্যাল ক্যাবল বসানোর লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।

তারানা হালিম আরো বলেন, অপর একটি প্রকল্পের মাধ্যমে আরো ১৩ হাজার কিলোমিটার ফাইবার অপটিক ক্যাবল বসানো হয়েছে। তিনি এই ক্যাবল ব্যবহার করে ব্রডব্যান্ডের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X