রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৭:৩৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, December 31, 2016 8:23 pm
A- A A+ Print

বর্ণিল উচ্ছ্বাসে ইংরেজি বর্ষবরণে প্রস্তুত বিশ্ব

165293_1

লন্ডন: ইংরেজি নববর্ষ বরণবিশ্বের সবচেয়ে বড় উদযাপনগুলোর একটি। পৃথিবীর অধিকাংশ দেশে এ উৎসবটি অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে উদযাপন করা হয়ে থাকে। সারা বিশ্বের লাখ লাখ মানুষ দর্শনীয় উপায়ে এ উৎসবে যোগ দেন। বর্ণিল উচ্ছ্বাসে ইংরেজি নববর্ষ বরণে প্রস্তুত বিশ্বের কয়েকটি আকর্ষণীয় শহর হলো: কায়রো বর্ণাঢ্য আয়োজনে ইংরেজি নববর্ষ উদযাপনের জন্য মিশর অন্যতম বিখ্যাত একটি স্থান। এখানে জমজমাট আতশবাজির এক অসংযত ডিসপ্লে করা হয়ে থাকে। অন্য দেশের বিবেচনায় তাদের প্রদর্শনী কিছুটা ভিন্ন ধরনের।  তারা ৪,৫০০ বছরের পুরনো পিরামিডের পিছনে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে থাকে। এছাড়াও, সূর্যাস্ত থেকে সূর্যোদয় পর্যন্ত একজন টেকনো শিল্পী এক আশ্চর্যজনক আলোকপ্রদর্শনীর পরিচালনা করে থাকেন।   প্যারিস বর্ণিল উচ্ছ্বাসে নববর্ষকে বরণকরতে হাজার হাজার মানুষ প্যারিসের ‘চ্যাম্পস-ইলেসি’ অ্যাভিনিউ এ জড়ো হন। দুই মাইলের বেশি স্প্যানের এই অ্যাভিনিউ বিশ্বের অন্যতম বিখ্যাত। এলাকাটি বর্তমানে উচ্চ নজরদারিতে রাখা হয়েছে; যাতে নববর্ষ বরণে অনাকাঙ্খিত কোনো ঘটনা না ঘটে। নিউইয়র্ক সিটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিসরে ইংরেজি নববর্ষ উদযাপন করা হয়নিউইয়র্ক সিটিতে। বিখ্যাত ‘বল ড্রপ’ উপভোগ করতে প্রায় এক মিলিয়ন মানুষ ‘টাইম স্কোয়ারে’ জড়ো হন। এখানকার বর্নিল সব প্রদর্শনী বিশ্ববাসীকে দেখার সুযোগ করে দিতে তা সরাসরি সম্প্রচার করা হয়ে থাকে। স্কটল্যান্ড স্কটল্যান্ডে তিন দিনব্যাপী নববর্ষ উদযাপন করা হয় যা ‘হগম্যানি’ নামে পরিচিত। নগরীর রাস্তায় রাস্তায় বিভিন্ন কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় মানুষ দলবেঁধে এসব উৎসবে যোগ দেয়।   হংকং রাত ১২টা ১মিনিটে নববর্ষের সূচনার সঙ্গে সঙ্গেই আতশবাজির উজ্জ্বল আলোয় আলোকিত হয়ে উঠে হংকংয়ের আকাশ। হংকং এ নববর্ষ অনেকটা নিউইয়র্ক সিটির করে মত উদযাপন করা হয়। দর্শকরা হংকংয়ের টাইম স্কয়ারে জড়ো হন। এখানে তারা নিউইয়র্ক সিটির মতোই ‘বল ড্রপ’ উদযাপন করে থাকেন। তারপর হংকংয়ের বিখ্যাত ‘স্কাইলাইন’ বরাবর আতশবাজি পুরানো হয় যা আকাশে একটি ‘পাইরোটেকনিক ড্রাগনের’ সৃষ্টি করে। লন্ডন লন্ডন ব্রিজ ও শহরের রাস্তায় অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে নববর্ষকে বরণ করে নেয়া হয়। চোখ ধাঁধানো আতশবাজির আলোকচ্ছটায় বর্ণিল হয়ে ওঠে লন্ডনের আকাশ। বিগ বেন ওয়াচ টাওয়ারে বর্ণিল আতশবাজি পুরোনো হয়। আতশবাজির সঙ্গে এখানে দশ মিনিটের চোখধাঁধানো আলোকপ্রদর্শনী করা হয়ে থাকে। সিডনি নববর্ষ উদযাপনের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সিডনি অন্যতম বিখ্যাত একটি স্থান। বিশ্বের বৃহত্তম আতশবাজি পুরানো হয় এখানে। সিডনি হারবার ব্রিজ এবং সিডনি অপেরা হাউসের কাছাকাছি এলাকা থেকে এটি উপভোগ করতে স্থানীয়দের সঙ্গে হাজার হাজার পর্যটক এখানে জড়ো হন। এখানে লাখ লাখ লোক আতশবাজির আলোকচ্ছটার মধ্য দিয়ে নববর্ষ উদযাপন করে থাকে।
 

Comments

Comments!

 বর্ণিল উচ্ছ্বাসে ইংরেজি বর্ষবরণে প্রস্তুত বিশ্বAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বর্ণিল উচ্ছ্বাসে ইংরেজি বর্ষবরণে প্রস্তুত বিশ্ব

Saturday, December 31, 2016 8:23 pm
165293_1

লন্ডন: ইংরেজি নববর্ষ বরণবিশ্বের সবচেয়ে বড় উদযাপনগুলোর একটি। পৃথিবীর অধিকাংশ দেশে এ উৎসবটি অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে উদযাপন করা হয়ে থাকে। সারা বিশ্বের লাখ লাখ মানুষ দর্শনীয় উপায়ে এ উৎসবে যোগ দেন। বর্ণিল উচ্ছ্বাসে ইংরেজি নববর্ষ বরণে প্রস্তুত বিশ্বের কয়েকটি আকর্ষণীয় শহর হলো:

কায়রো

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ইংরেজি নববর্ষ উদযাপনের জন্য মিশর অন্যতম বিখ্যাত একটি স্থান। এখানে জমজমাট আতশবাজির এক অসংযত ডিসপ্লে করা হয়ে থাকে।

অন্য দেশের বিবেচনায় তাদের প্রদর্শনী কিছুটা ভিন্ন ধরনের।  তারা ৪,৫০০ বছরের পুরনো পিরামিডের পিছনে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে থাকে। এছাড়াও, সূর্যাস্ত থেকে সূর্যোদয় পর্যন্ত একজন টেকনো শিল্পী এক আশ্চর্যজনক আলোকপ্রদর্শনীর পরিচালনা করে থাকেন।

 

প্যারিস

বর্ণিল উচ্ছ্বাসে নববর্ষকে বরণকরতে হাজার হাজার মানুষ প্যারিসের ‘চ্যাম্পস-ইলেসি’ অ্যাভিনিউ এ জড়ো হন। দুই মাইলের বেশি স্প্যানের এই অ্যাভিনিউ বিশ্বের অন্যতম বিখ্যাত। এলাকাটি বর্তমানে উচ্চ নজরদারিতে রাখা হয়েছে; যাতে নববর্ষ বরণে অনাকাঙ্খিত কোনো ঘটনা না ঘটে।

নিউইয়র্ক সিটি

বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিসরে ইংরেজি নববর্ষ উদযাপন করা হয়নিউইয়র্ক সিটিতে। বিখ্যাত ‘বল ড্রপ’ উপভোগ করতে প্রায় এক মিলিয়ন মানুষ ‘টাইম স্কোয়ারে’ জড়ো হন। এখানকার বর্নিল সব প্রদর্শনী বিশ্ববাসীকে দেখার সুযোগ করে দিতে তা সরাসরি সম্প্রচার করা হয়ে থাকে।

স্কটল্যান্ড

স্কটল্যান্ডে তিন দিনব্যাপী নববর্ষ উদযাপন করা হয় যা ‘হগম্যানি’ নামে পরিচিত। নগরীর রাস্তায় রাস্তায় বিভিন্ন কনসার্ট অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় মানুষ দলবেঁধে এসব উৎসবে যোগ দেয়।

 

হংকং

রাত ১২টা ১মিনিটে নববর্ষের সূচনার সঙ্গে সঙ্গেই আতশবাজির উজ্জ্বল আলোয় আলোকিত হয়ে উঠে হংকংয়ের আকাশ। হংকং এ নববর্ষ অনেকটা নিউইয়র্ক সিটির করে মত উদযাপন করা হয়। দর্শকরা হংকংয়ের টাইম স্কয়ারে জড়ো হন। এখানে তারা নিউইয়র্ক সিটির মতোই ‘বল ড্রপ’ উদযাপন করে থাকেন। তারপর হংকংয়ের বিখ্যাত ‘স্কাইলাইন’ বরাবর আতশবাজি পুরানো হয় যা আকাশে একটি ‘পাইরোটেকনিক ড্রাগনের’ সৃষ্টি করে।

লন্ডন

লন্ডন ব্রিজ ও শহরের রাস্তায় অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে নববর্ষকে বরণ করে নেয়া হয়। চোখ ধাঁধানো আতশবাজির আলোকচ্ছটায় বর্ণিল হয়ে ওঠে লন্ডনের আকাশ। বিগ বেন ওয়াচ টাওয়ারে বর্ণিল আতশবাজি পুরোনো হয়। আতশবাজির সঙ্গে এখানে দশ মিনিটের চোখধাঁধানো আলোকপ্রদর্শনী করা হয়ে থাকে।

সিডনি

নববর্ষ উদযাপনের জন্য অস্ট্রেলিয়ার সিডনি অন্যতম বিখ্যাত একটি স্থান। বিশ্বের বৃহত্তম আতশবাজি পুরানো হয় এখানে। সিডনি হারবার ব্রিজ এবং সিডনি অপেরা হাউসের কাছাকাছি এলাকা থেকে এটি উপভোগ করতে স্থানীয়দের সঙ্গে হাজার হাজার পর্যটক এখানে জড়ো হন। এখানে লাখ লাখ লোক আতশবাজির আলোকচ্ছটার মধ্য দিয়ে নববর্ষ উদযাপন করে থাকে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X