সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১২:২৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, October 26, 2016 10:34 am
A- A A+ Print

বাঁচতে হলে জানতে হবে

survival1477447735

অনেক দিন ধরে প্রচলিত কথাকে আমরা এক প্রকার নীতি হিসেবে ধরে নিই। বেশিরভাগ মানুষ সেই নীতি বা পৌরাণিক কথাতে বিশ্বাস করেন। কখনো ভালো করে ভেবেও দেখেন না যে, এই অতিকথা আদৌ সত্যি কিনা। বা আমাদের জীবনে এটি কতটুকু কার্যকরী।
  বর্তমানে অনেক টিভি চ্যানেলে কিছু সারভাইভাল অনুষ্ঠান দেখানো হয়। দেখানো হয়, একটি নির্জন এলাকাতে আপনি হারিয়ে গেছেন এবং আপনাকে কি করতে হবে। আপনি এই টিভি চ্যানেলগুলো দেখে কতটুকু শিখবেন আর আদৌ বেঁচে ফিরে আসবেন কিনা তা প্রশ্নবোধক।   তবে সত্যি কোনো নির্জন বিপজ্জনক জায়গায় গিয়ে যদি বেঁচে থাকার অভিজ্ঞতা নিতে চান তাহলে সর্বপ্রথম আপনাকে জানতে হবে সঠিক তথ্য। কিভাবে সেই বিপদ এড়ানো যাবে সেই তথ্য।   নির্জন কোনো জায়গায় বিপদে পড়লে করণীয় বিষয়ে প্রচলিত ভুল ধারণা নিয়ে দুই পর্বের প্রতিবেদনের প্রথম পর্বে বেশ কিছু বিষয় উল্লেখ করা হয়েছিল, আজ জেনে নিন আরো কিছু বিপদ সম্পর্কে, যার প্রচলিত নিয়ম কি বলে আর সত্যিটাই বা কি।   * ভুল ধারণা: আপনি যদি সমুদ্রে হারিয়ে যান এবং কোনো হাঙর যদি আপনাকে আক্রমণ করে তবে হাঙরের নাক বরাবর ঘুষি মারুন। হাঙর পালিয়ে যাবে। আসলে যা করণীয় : হাঙরের চোখে আঘাত করলে তা আপনার থেকে বেশ কিছুটা দূরে চলে যাবে।   * ভুল ধারণা: নিজের প্রস্রাব পান করলে জীবন বেঁচে যাবে। আসলে যা করণীয় : বিপদে পড়ে আপনি আপনার নিজের প্রস্রাব খাবেন কি না, সেটা নির্ভর করে আপনার চারপাশের পরিবেশের ওপর। আপনি যদি অনেক গরমের মধ্যে অবস্থান করেন তাহলে নিজের প্রস্রাব পান করার ফলে তা কিডনির ওপর বেশি চাপ সৃষ্টি করবে এবং শরীর আরো বেশি গরম করে দেবে। প্রস্রাব মানুষের শরীরের উচ্ছিষ্ট। তাই কোনো অবস্থাতেই এটি শরীরের মধ্যে শরীরের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তন করা উচিত নয়।   * ভুল ধারণা: মরুভূমিতে বাঁচতে হলে সবার আগে পান করার উপযোগী পানি খুঁজে বের করতে হবে। আসলে যা করণীয়: একজন মানুষ পানি পান করা ছাড়া প্রায় ৪৮ ঘণ্টা বেঁচে থাকতে পারেন। তবে তা নির্ভর করে তিনি কতখানি ঘামছেন তার ওপর। তাই মরুভূমিতে কড়া রোদে পানির খোঁজে বেরিয়ে শরীরে পানির তৃষ্ণা না আরো বৃদ্ধি না করাই ভালো। বরং সন্ধ্যা বা রাতে অথবা যখন গরম কমতে শুরু করবে তখন পানি ও খাবারের খোঁজে বের হতে পারেন। সে অবধি কোনো গাছের ছায়ায় অবস্থান করুন, যেখানে গরম কম লাগতে পারে।   * ভুল ধারণা: যদি আপনি কোনো ছুরি বা অন্য কিছু দ্বারা আঘাতপ্রাপ্ত হোন তবে তা শরীর থেকে সরিয়ে ফেলুন। আসলে না করণীয় : যদি আপনি আপনার শরীর থেকে ছুরি বা বিঁধে থাকা অন্য কোনো কিছু বের করে ফেলেন, তাহলে আপনার বেশ রক্তক্ষরণ হতে পারে। তাই কাপড় দিয়ে আঘাতপ্রাপ্ত স্থানটি বেঁধে ফেলুন এবং শরীরে যা বিঁধে রয়েছে তা চিকিৎসা সহায়তা পাওয়ার আগ পর্যন্ত তেমনি রেখে দিন। সিনেমায় দেখা যায় নায়করা শরীর থেকে ছুরি বা অন্য কোনো কিছু টান দিয়ে বের করে ফেলেন, কিন্তু বাস্তবে তা খুব খারাপ একটা আইডিয়া।   * ভুল ধারণা: পানির প্রয়োজনীয়তা মেটাতে তুষার বা বরফ খেতে পারেন। আসলে যা করণীয় : আপনি যদি কোনো ঠাণ্ডা এলাকায় অবস্থান করেন তাহলে তুষার বা বরফ আপনার শরীরের তাপমাত্রা আরো কমিয়ে দেবে এবং শারীরিক শক্তি শেষ করবে। তা এগুলো গলিয়ে পান করতে পারেন। অথবা ফুটানোর ব্যবস্থা যদি থাকে তাহলে বরফ বা তুষার গলিয়ে তারপর ফুটিয়ে তারপর পান করুন। তুষার হিমায়িত পানির চেয়ে অনেক বেশি ঠাণ্ডা বাতাস ধারণ করে, যার সম্পর্কের অনুপাত ৯:১।   * ভুল ধারণা: অ্যালকোহল শরীরকে গরম রাখতে সাহায্য করবে। আসলে যা করণীয়: অ্যালকোহল গ্রহণ করলে শরীর কিছুক্ষণের জন্য গরম থাকে। তারপর তা ঘামতে শুরু করে। এই গরম হওয়া এবং ঘেমে যাওয়ার মাধ্যমে আপনার শরীর থেকে অনেক পানি বেরিয়ে যায়। যা আপনাকে পরবর্তী সময়ে আরো দুর্বল করে তোলে। এর পরিবর্তে আপনি গরম চা অথবা কফি পান করতে পারেন।  

Comments

Comments!

 বাঁচতে হলে জানতে হবেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বাঁচতে হলে জানতে হবে

Wednesday, October 26, 2016 10:34 am
survival1477447735

অনেক দিন ধরে প্রচলিত কথাকে আমরা এক প্রকার নীতি হিসেবে ধরে নিই। বেশিরভাগ মানুষ সেই নীতি বা পৌরাণিক কথাতে বিশ্বাস করেন। কখনো ভালো করে ভেবেও দেখেন না যে, এই অতিকথা আদৌ সত্যি কিনা। বা আমাদের জীবনে এটি কতটুকু কার্যকরী।

 

বর্তমানে অনেক টিভি চ্যানেলে কিছু সারভাইভাল অনুষ্ঠান দেখানো হয়। দেখানো হয়, একটি নির্জন এলাকাতে আপনি হারিয়ে গেছেন এবং আপনাকে কি করতে হবে। আপনি এই টিভি চ্যানেলগুলো দেখে কতটুকু শিখবেন আর আদৌ বেঁচে ফিরে আসবেন কিনা তা প্রশ্নবোধক।

 

তবে সত্যি কোনো নির্জন বিপজ্জনক জায়গায় গিয়ে যদি বেঁচে থাকার অভিজ্ঞতা নিতে চান তাহলে সর্বপ্রথম আপনাকে জানতে হবে সঠিক তথ্য। কিভাবে সেই বিপদ এড়ানো যাবে সেই তথ্য।

 

নির্জন কোনো জায়গায় বিপদে পড়লে করণীয় বিষয়ে প্রচলিত ভুল ধারণা নিয়ে দুই পর্বের প্রতিবেদনের প্রথম পর্বে বেশ কিছু বিষয় উল্লেখ করা হয়েছিল, আজ জেনে নিন আরো কিছু বিপদ সম্পর্কে, যার প্রচলিত নিয়ম কি বলে আর সত্যিটাই বা কি।

 

* ভুল ধারণা: আপনি যদি সমুদ্রে হারিয়ে যান এবং কোনো হাঙর যদি আপনাকে আক্রমণ করে তবে হাঙরের নাক বরাবর ঘুষি মারুন। হাঙর পালিয়ে যাবে।

আসলে যা করণীয় : হাঙরের চোখে আঘাত করলে তা আপনার থেকে বেশ কিছুটা দূরে চলে যাবে।

 

* ভুল ধারণা: নিজের প্রস্রাব পান করলে জীবন বেঁচে যাবে।

আসলে যা করণীয় : বিপদে পড়ে আপনি আপনার নিজের প্রস্রাব খাবেন কি না, সেটা নির্ভর করে আপনার চারপাশের পরিবেশের ওপর। আপনি যদি অনেক গরমের মধ্যে অবস্থান করেন তাহলে নিজের প্রস্রাব পান করার ফলে তা কিডনির ওপর বেশি চাপ সৃষ্টি করবে এবং শরীর আরো বেশি গরম করে দেবে। প্রস্রাব মানুষের শরীরের উচ্ছিষ্ট। তাই কোনো অবস্থাতেই এটি শরীরের মধ্যে শরীরের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তন করা উচিত নয়।

 

* ভুল ধারণা: মরুভূমিতে বাঁচতে হলে সবার আগে পান করার উপযোগী পানি খুঁজে বের করতে হবে।

আসলে যা করণীয়: একজন মানুষ পানি পান করা ছাড়া প্রায় ৪৮ ঘণ্টা বেঁচে থাকতে পারেন। তবে তা নির্ভর করে তিনি কতখানি ঘামছেন তার ওপর। তাই মরুভূমিতে কড়া রোদে পানির খোঁজে বেরিয়ে শরীরে পানির তৃষ্ণা না আরো বৃদ্ধি না করাই ভালো। বরং সন্ধ্যা বা রাতে অথবা যখন গরম কমতে শুরু করবে তখন পানি ও খাবারের খোঁজে বের হতে পারেন। সে অবধি কোনো গাছের ছায়ায় অবস্থান করুন, যেখানে গরম কম লাগতে পারে।

 

* ভুল ধারণা: যদি আপনি কোনো ছুরি বা অন্য কিছু দ্বারা আঘাতপ্রাপ্ত হোন তবে তা শরীর থেকে সরিয়ে ফেলুন।

আসলে না করণীয় : যদি আপনি আপনার শরীর থেকে ছুরি বা বিঁধে থাকা অন্য কোনো কিছু বের করে ফেলেন, তাহলে আপনার বেশ রক্তক্ষরণ হতে পারে। তাই কাপড় দিয়ে আঘাতপ্রাপ্ত স্থানটি বেঁধে ফেলুন এবং শরীরে যা বিঁধে রয়েছে তা চিকিৎসা সহায়তা পাওয়ার আগ পর্যন্ত তেমনি রেখে দিন। সিনেমায় দেখা যায় নায়করা শরীর থেকে ছুরি বা অন্য কোনো কিছু টান দিয়ে বের করে ফেলেন, কিন্তু বাস্তবে তা খুব খারাপ একটা আইডিয়া।

 

* ভুল ধারণা: পানির প্রয়োজনীয়তা মেটাতে তুষার বা বরফ খেতে পারেন।

আসলে যা করণীয় : আপনি যদি কোনো ঠাণ্ডা এলাকায় অবস্থান করেন তাহলে তুষার বা বরফ আপনার শরীরের তাপমাত্রা আরো কমিয়ে দেবে এবং শারীরিক শক্তি শেষ করবে। তা এগুলো গলিয়ে পান করতে পারেন। অথবা ফুটানোর ব্যবস্থা যদি থাকে তাহলে বরফ বা তুষার গলিয়ে তারপর ফুটিয়ে তারপর পান করুন। তুষার হিমায়িত পানির চেয়ে অনেক বেশি ঠাণ্ডা বাতাস ধারণ করে, যার সম্পর্কের অনুপাত ৯:১।

 

* ভুল ধারণা: অ্যালকোহল শরীরকে গরম রাখতে সাহায্য করবে।

আসলে যা করণীয়: অ্যালকোহল গ্রহণ করলে শরীর কিছুক্ষণের জন্য গরম থাকে। তারপর তা ঘামতে শুরু করে। এই গরম হওয়া এবং ঘেমে যাওয়ার মাধ্যমে আপনার শরীর থেকে অনেক পানি বেরিয়ে যায়। যা আপনাকে পরবর্তী সময়ে আরো দুর্বল করে তোলে। এর পরিবর্তে আপনি গরম চা অথবা কফি পান করতে পারেন।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X