সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৭:২৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, June 15, 2017 12:09 pm
A- A A+ Print

বাংলাদেশিরাই নিউইয়র্ক পুলিশে নেতৃত্ব দেবে

44

নিউইয়র্কের পুলিশ কমিশনার জেমস ও’নীল বলেছেন, বাংলাদেশি পুলিশ কর্মকর্তারাই ভবিষ্যতে নিউইয়র্কের পুলিশ বিভাগের (এনওয়াইপিডি) নেতৃত্ব দেবেন। তিনি বলেন, দক্ষতা, নিষ্ঠা আর সততা দিয়ে বাংলাদেশিরা যেভাবে সফলতার সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছেন, তাতে এনওয়াইপিডির সর্বোচ্চ পদ তাঁদের জন্য খুব বেশি দূরে নয়। তিনি বাংলাদেশিদের আরও বেশি করে নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান। বাংলাদেশ-আমেরিকা পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সভায় যোগ দিয়ে জেমস ও’নীল এ কথা বলেন। ৫ জুন রোববার কুইন্সের একটি মিলনায়তনে এ বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। বৈচিত্র্য, ঐক্য আর নিরাপত্তা—মূলত এ তিনটি বিষয়কে আদর্শ ধরে ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ-আমেরিকা পুলিশ অ্যাসোসিয়েশন। নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টে বর্তমানে প্রায় এক হাজার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত পুলিশ কর্মকর্তা আছেন বলে জানিয়েছেন কমিশনার জেমস ও’নীল। এর মধ্যে ৮০ শতাংশই বাংলাদেশে জন্ম নেওয়া অভিবাসী। তাঁরা যেমন দায়িত্ব পালনে নিষ্ঠাবান, তেমনি বাংলাদেশি কমিউনিটির প্রতিও দায়িত্বশীল। তাঁদের দক্ষতা আর পুলিশ বিভাগে ক্রমশ পদোন্নতির প্রশংসা করলেন তিনি। নিউইয়র্ক সম্প্রতি নগরীতে অপরাধ প্রবণতা কমার বিষয়টি উল্লেখ করে পুলিশ কমিশনার বলেন, হেট ক্রাইমসহ সব ধরনের অপরাধ কমাতে কমিউনিটির সহযোগিতা একটি বড় উপাধান। কোথাও কোনো সন্দেহজনক কিছু দেখলে তা পুলিশকে জানানোর পরামর্শ দেন তিনি। সম্প্রতি ইউরোপের দেশগুলোতে একের পর এক সন্ত্রাসী হামলার পর নিউইয়র্কারদের জন্য কী ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে, তারও বর্ণনা দেন পুলিশ কমিশনার। তিনি কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিদের প্রশ্নের জবাব দেন। বাপা সভাপতি সুমন সাইদ তাঁর বক্তব্যে বলেন, মাত্র বছর দশক আগেও এনওয়াইপিডিতে বাংলাদেশি পুলিশ কর্মকর্তা ছিল একেবারে হাতে গোনা। কিন্তু বর্তমানে তাঁরাই মাইনরিটি কমিউনিটির মধ্যে বেশিসংখ্যক সদস্য। এই সদস্যরা পড়ালেখা, নিয়ম, নিষ্ঠা আর কঠোর পরিশ্রম করে নিজেদের আরও যোগ্য করে তুলছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন। নিউইয়র্কে বাংলাদেশি পুলিশ কর্মকর্তাদের জমজমাট বার্ষিক সভায় কমিউনিটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

Comments!

 বাংলাদেশিরাই নিউইয়র্ক পুলিশে নেতৃত্ব দেবেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বাংলাদেশিরাই নিউইয়র্ক পুলিশে নেতৃত্ব দেবে

Thursday, June 15, 2017 12:09 pm
44

নিউইয়র্কের পুলিশ কমিশনার জেমস ও’নীল বলেছেন, বাংলাদেশি পুলিশ কর্মকর্তারাই ভবিষ্যতে নিউইয়র্কের পুলিশ বিভাগের (এনওয়াইপিডি) নেতৃত্ব দেবেন। তিনি বলেন, দক্ষতা, নিষ্ঠা আর সততা দিয়ে বাংলাদেশিরা যেভাবে সফলতার সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছেন, তাতে এনওয়াইপিডির সর্বোচ্চ পদ তাঁদের জন্য খুব বেশি দূরে নয়।
তিনি বাংলাদেশিদের আরও বেশি করে নিউইয়র্ক পুলিশ বিভাগে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান।
বাংলাদেশ-আমেরিকা পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সভায় যোগ দিয়ে জেমস ও’নীল এ কথা বলেন। ৫ জুন রোববার কুইন্সের একটি মিলনায়তনে এ বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। বৈচিত্র্য, ঐক্য আর নিরাপত্তা—মূলত এ তিনটি বিষয়কে আদর্শ ধরে ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ-আমেরিকা পুলিশ অ্যাসোসিয়েশন।
নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টে বর্তমানে প্রায় এক হাজার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত পুলিশ কর্মকর্তা আছেন বলে জানিয়েছেন কমিশনার জেমস ও’নীল। এর মধ্যে ৮০ শতাংশই বাংলাদেশে জন্ম নেওয়া অভিবাসী। তাঁরা যেমন দায়িত্ব পালনে নিষ্ঠাবান, তেমনি বাংলাদেশি কমিউনিটির প্রতিও দায়িত্বশীল। তাঁদের দক্ষতা আর পুলিশ বিভাগে ক্রমশ পদোন্নতির প্রশংসা করলেন তিনি।
নিউইয়র্ক সম্প্রতি নগরীতে অপরাধ প্রবণতা কমার বিষয়টি উল্লেখ করে পুলিশ কমিশনার বলেন, হেট ক্রাইমসহ সব ধরনের অপরাধ কমাতে কমিউনিটির সহযোগিতা একটি বড় উপাধান। কোথাও কোনো সন্দেহজনক কিছু দেখলে তা পুলিশকে জানানোর পরামর্শ দেন তিনি। সম্প্রতি ইউরোপের দেশগুলোতে একের পর এক সন্ত্রাসী হামলার পর নিউইয়র্কারদের জন্য কী ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে, তারও বর্ণনা দেন পুলিশ কমিশনার। তিনি কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিদের প্রশ্নের জবাব দেন।
বাপা সভাপতি সুমন সাইদ তাঁর বক্তব্যে বলেন, মাত্র বছর দশক আগেও এনওয়াইপিডিতে বাংলাদেশি পুলিশ কর্মকর্তা ছিল একেবারে হাতে গোনা। কিন্তু বর্তমানে তাঁরাই মাইনরিটি কমিউনিটির মধ্যে বেশিসংখ্যক সদস্য। এই সদস্যরা পড়ালেখা, নিয়ম, নিষ্ঠা আর কঠোর পরিশ্রম করে নিজেদের আরও যোগ্য করে তুলছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।
নিউইয়র্কে বাংলাদেশি পুলিশ কর্মকর্তাদের জমজমাট বার্ষিক সভায় কমিউনিটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X