বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:৪১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, September 14, 2017 10:17 pm
A- A A+ Print

বাংলাদেশের পাশে থাকার আহ্বান বিশ্ব সম্প্রদায়কে

IOM_UNHCR_120170914212049

রোহিঙ্গা সংকটের সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা (আইওএম) এবং শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ( ইউএনএইচসিআর)। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান ওই দুই সংস্থার কর্মকর্তারা। তারা বলেন, এমনিতেই বাংলাদেশের জনসংখ্যা অনেক। তারপরও মানবিকতা দেখিয়ে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বাংলাদেশ। এজন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের উচিত রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকা। ইউএনএইচসিআর- এর সহকারী কমিশনার জর্জ ওকোথ-ওবো বলেন, প্রতিদিন ১০/২০ হাজার করে রোহিঙ্গা আসছে। জাতিসংঘ কাজ করছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উচিত রোহিঙ্গাদের সাহায্য করা, বাংলাদেশের পাশে থাকা, মিয়ানমারকে চাপ দিয়ে হামলা, নিধন বন্ধ করা। ওকোথ-ওবো বলেন, কেউ আশা করেনি বাংলাদেশে চার লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয় নেবে, সেটাই হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা না গেলে এ সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়ে যাবে। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ সরকার যদি সমন্বয়কের ভূমিকা পালন করতে আগ্রহী হয় তবে পাশে থেকে সহায়তা করবে আইওএম এবং ইউএনএইচসিআর। রোহিঙ্গাদের জন্য আন্তর্জাতিক ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রম ও বরাদ্দ বাড়াতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। আইওএম- এর পরিচালক (অপারেশন্স) মোহাম্মদ আবদিকার মাহমুদ বলেন, যে পরিমাণ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আসছে সে পরিমাণ ত্রাণ সহায়তা পাচ্ছেন না তারা। বাংলাদেশে আশ্রয় পাবার পর খাদ্য, চিকিৎসা, ও স্যানিটেশন সমস্যায় ভুগছে অসংখ্য রোহিঙ্গা, বিশেষ করে নারী ও শিশু। এজন্য পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তা দরকার। বিশ্ব সম্প্রদায়ের সমালোচনা করে আবদিকার মাহমুদ বলেন, জাতিসংঘ প্রত্যেকটি সদস্য রাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে রোহিঙ্গাদের পাশে থাকার। তবে এখন পর্যন্ত কাঙ্খিত পর্যায়ের সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না, যা উদ্বেগ ও কষ্টের। বাংলাদেশ সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি বলেন, সরকার ঝুঁকি নিয়ে যা করেছে তা অত্যন্ত মানবিক ও প্রশংসার। রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত রাখা ও নিরাপত্তা ইস্যুতে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রোহিঙ্গাদের হিসেব ও তথ্য রাখার প্রশংসা করে এতে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

Comments

Comments!

 বাংলাদেশের পাশে থাকার আহ্বান বিশ্ব সম্প্রদায়কেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বাংলাদেশের পাশে থাকার আহ্বান বিশ্ব সম্প্রদায়কে

Thursday, September 14, 2017 10:17 pm
IOM_UNHCR_120170914212049

রোহিঙ্গা সংকটের সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা (আইওএম) এবং শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ( ইউএনএইচসিআর)।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান ওই দুই সংস্থার কর্মকর্তারা।

তারা বলেন, এমনিতেই বাংলাদেশের জনসংখ্যা অনেক। তারপরও মানবিকতা দেখিয়ে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বাংলাদেশ। এজন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের উচিত রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকা।

ইউএনএইচসিআর- এর সহকারী কমিশনার জর্জ ওকোথ-ওবো বলেন, প্রতিদিন ১০/২০ হাজার করে রোহিঙ্গা আসছে। জাতিসংঘ কাজ করছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উচিত রোহিঙ্গাদের সাহায্য করা, বাংলাদেশের পাশে থাকা, মিয়ানমারকে চাপ দিয়ে হামলা, নিধন বন্ধ করা।

ওকোথ-ওবো বলেন, কেউ আশা করেনি বাংলাদেশে চার লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয় নেবে, সেটাই হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা না গেলে এ সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়ে যাবে। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ সরকার যদি সমন্বয়কের ভূমিকা পালন করতে আগ্রহী হয় তবে পাশে থেকে সহায়তা করবে আইওএম এবং ইউএনএইচসিআর। রোহিঙ্গাদের জন্য আন্তর্জাতিক ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রম ও বরাদ্দ বাড়াতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

আইওএম- এর পরিচালক (অপারেশন্স) মোহাম্মদ আবদিকার মাহমুদ বলেন, যে পরিমাণ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আসছে সে পরিমাণ ত্রাণ সহায়তা পাচ্ছেন না তারা। বাংলাদেশে আশ্রয় পাবার পর খাদ্য, চিকিৎসা, ও স্যানিটেশন সমস্যায় ভুগছে অসংখ্য রোহিঙ্গা, বিশেষ করে নারী ও শিশু। এজন্য পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তা দরকার।

বিশ্ব সম্প্রদায়ের সমালোচনা করে আবদিকার মাহমুদ বলেন, জাতিসংঘ প্রত্যেকটি সদস্য রাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে রোহিঙ্গাদের পাশে থাকার। তবে এখন পর্যন্ত কাঙ্খিত পর্যায়ের সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না, যা উদ্বেগ ও কষ্টের।

বাংলাদেশ সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি বলেন, সরকার ঝুঁকি নিয়ে যা করেছে তা অত্যন্ত মানবিক ও প্রশংসার। রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত রাখা ও নিরাপত্তা ইস্যুতে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রোহিঙ্গাদের হিসেব ও তথ্য রাখার প্রশংসা করে এতে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X