সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:২৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, May 16, 2017 1:53 pm
A- A A+ Print

বাংলাদেশে সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি বৃদ্ধি পেয়েছে,বৃটেনের ভ্রমণ সতর্কতা

65610_uk

বাংলাদেশে সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি বৃদ্ধি পেয়েছে। এ হুমকি সারা দেশে বিরাজ করছে। মার্চে সন্ত্রাসীরা নিরাপত্তা রক্ষাকারীদের ওপর হামলা চালানোর দিকে মনোনিবেশ করেছে। কিন্তু সরাসরি এমন টার্গেটে পড়তে পারেন বিদেশি নাগরিকরা। বাংলাদেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতির ওপর ভ্রমণ সতর্কতায় এসব কথা বলেছে বৃটেন। বৃটিশ পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ অফিসের ওয়েবসাইটে এ সতর্কতা আপডেট করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ঢাকা শহরে যেসব অপরাধী চক্র কর্মকা- চালায় সংখ্যায় ক্রমবর্ধমান হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাদের সংখ্যা। ঢাকা পুলিশ এ বিষয়টিতে নজর দিয়েছে। একই সঙ্গে তারা জনগণকে ডাকাতি ও সহিংস অপরাধসহ বড় ধরনের হুমকির বিষয়ে সচেতন থাকতে বলেছে। ১৫ই মে আপডেট করা ওই সতর্কতায় বলা হয়, বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ পরিকল্পিত বেশ কিছু হামলা পরিকল্পনা ভ-ুল করে দিতে সক্ষম হয়েছে। একই সঙ্গে তারা উচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। স্বল্প সময়ের নোটিসে তাই কোনো স্থানে নিরাপত্তা রক্ষাকারীদের উপস্থিতি বাড়তে পারে। চলাচলের ওপর দেয়া হতে পারে বিধিনিষেধ। জনবহুল স্থান ও বিদেশিরা যেসব স্থানে সমবেত হন বলে পরিচিতি আছে এমন স্থান হামলার সবচেয়ে বড় ঝুঁকিতে রয়েছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশে অবস্থানরত বৃটিশ নাগরিকদের সতর্ক করা হয়েছে সরকারের ওই বিবৃতিতে। এতে বৃটিশদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে, ওইসব স্থানে নিজেদের উপস্থিতি যতটা সম্ভব কমিয়ে আনতে। নিজের চলাচলের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে। স্থানীয় নিরাপত্তাবিষয়ক কর্তৃপক্ষের বিশেষ কোনো পরামর্শ থাকলে তা অনুসরণ করতে বলা হয়েছে। ওই সতর্কতায় আরো বলা হয়েছে, ডায়েশ (আইসিল বা আইএস) এর আগে ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশে চালানো অনেকগুলো সন্ত্রাসী হামলার দায় স্বীকার করেছে। আরো বলা হয়েছে, আল কায়েদা ইন দ্য ইন্ডিয়ান সাব কন্টিনেন্ট (একিউআইএস)-এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট গ্রুপগুলোও সক্রিয় রয়েছে। ওদিকে ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখেছে বৃটিশ পরিবহন মন্ত্রণালয় (ডিএফটি)। এরপরই তারা বলেছে, ঢাকায় এই বিমানবন্দরটিতে আন্তর্জাতিক মানের নিরাপত্তায় ঘাটতি রয়েছে। বেসামরিক বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে যাতে আন্তর্জাতিক মানদ- অনুসরণ নিশ্চিত করা হয় এ জন্য বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষকে সহায়তা করছে বৃটেন।

Comments

Comments!

 বাংলাদেশে সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি বৃদ্ধি পেয়েছে,বৃটেনের ভ্রমণ সতর্কতাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বাংলাদেশে সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি বৃদ্ধি পেয়েছে,বৃটেনের ভ্রমণ সতর্কতা

Tuesday, May 16, 2017 1:53 pm
65610_uk

বাংলাদেশে সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি বৃদ্ধি পেয়েছে। এ হুমকি সারা দেশে বিরাজ করছে। মার্চে সন্ত্রাসীরা নিরাপত্তা রক্ষাকারীদের ওপর হামলা চালানোর দিকে মনোনিবেশ করেছে। কিন্তু সরাসরি এমন টার্গেটে পড়তে পারেন বিদেশি নাগরিকরা। বাংলাদেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতির ওপর ভ্রমণ সতর্কতায় এসব কথা বলেছে বৃটেন। বৃটিশ পররাষ্ট্র ও কমনওয়েলথ অফিসের ওয়েবসাইটে এ সতর্কতা আপডেট করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ঢাকা শহরে যেসব অপরাধী চক্র কর্মকা- চালায় সংখ্যায় ক্রমবর্ধমান হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাদের সংখ্যা। ঢাকা পুলিশ এ বিষয়টিতে নজর দিয়েছে। একই সঙ্গে তারা জনগণকে ডাকাতি ও সহিংস অপরাধসহ বড় ধরনের হুমকির বিষয়ে সচেতন থাকতে বলেছে। ১৫ই মে আপডেট করা ওই সতর্কতায় বলা হয়, বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ পরিকল্পিত বেশ কিছু হামলা পরিকল্পনা ভ-ুল করে দিতে সক্ষম হয়েছে। একই সঙ্গে তারা উচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। স্বল্প সময়ের নোটিসে তাই কোনো স্থানে নিরাপত্তা রক্ষাকারীদের উপস্থিতি বাড়তে পারে। চলাচলের ওপর দেয়া হতে পারে বিধিনিষেধ। জনবহুল স্থান ও বিদেশিরা যেসব স্থানে সমবেত হন বলে পরিচিতি আছে এমন স্থান হামলার সবচেয়ে বড় ঝুঁকিতে রয়েছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশে অবস্থানরত বৃটিশ নাগরিকদের সতর্ক করা হয়েছে সরকারের ওই বিবৃতিতে। এতে বৃটিশদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে, ওইসব স্থানে নিজেদের উপস্থিতি যতটা সম্ভব কমিয়ে আনতে। নিজের চলাচলের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে। স্থানীয় নিরাপত্তাবিষয়ক কর্তৃপক্ষের বিশেষ কোনো পরামর্শ থাকলে তা অনুসরণ করতে বলা হয়েছে। ওই সতর্কতায় আরো বলা হয়েছে, ডায়েশ (আইসিল বা আইএস) এর আগে ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশে চালানো অনেকগুলো সন্ত্রাসী হামলার দায় স্বীকার করেছে। আরো বলা হয়েছে, আল কায়েদা ইন দ্য ইন্ডিয়ান সাব কন্টিনেন্ট (একিউআইএস)-এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট গ্রুপগুলোও সক্রিয় রয়েছে। ওদিকে ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখেছে বৃটিশ পরিবহন মন্ত্রণালয় (ডিএফটি)। এরপরই তারা বলেছে, ঢাকায় এই বিমানবন্দরটিতে আন্তর্জাতিক মানের নিরাপত্তায় ঘাটতি রয়েছে। বেসামরিক বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে যাতে আন্তর্জাতিক মানদ- অনুসরণ নিশ্চিত করা হয় এ জন্য বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষকে সহায়তা করছে বৃটেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X