শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:৫৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, November 29, 2016 8:49 am
A- A A+ Print

বাবাকে স্বপ্নের কথা জানালেন খাদিজা

23

সিলেটে ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের হামলায় আহত খাদিজা আক্তার নার্গিসকে চিকিৎসার জন্য সাভারের পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্র (সিআরপি)-এ নেয়া হয়েছে। সোমবার পুলিশ প্রহরায় ঢাকার স্কয়ার হাসপাতাল থেকে খাদিজাকে সিআরপিতে স্থানান্তর করা হয়। খাদিজার সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যরা রয়েছেন। তাকে এক নজর দেখার জন্য সিআরপিতে স্থানীয় লোকজন জড়ো হয়েছে বলে জানান খাদিজার বাবা মাসুক মিয়া। মেয়ের সুস্থতার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়ে তিনি বলেন, খাদিজার অবস্থা আগের চেয়ে অনেক ভালো। তার বেঁচে ওঠার সম্ভাবনা খুবই কম ছিল। তবে চিকিৎসকদের নিরলস পরিশ্রম এবং সবার দোয়ায় সে একটু একটু করে সুস্থ হয়ে উঠছে। এরই মধ্যে তার ব্যাংকার হওয়ার স্বপ্নও যেন প্রাণ ফিরতে শুরু করেছে।
মাসুক মিয়া জানান, গত রাতে মেয়ের সঙ্গে একান্তভাবে কথা বলার সময় খাদিজা তার ব্যাংকার হওয়ার ইচ্ছার কথা প্রকাশ করে। তিনি বলেন, নার্গিস রাতে আমাকে বলেছে, ‘বাবা তুমি পরিবারের জন্য একাই কষ্ট করে যাচ্ছো। আমি ব্যাংকার হয়ে তোমাদের সেবা করতে চাই।’ এ সময় খাদিজার বাবা আরো জানান, মেয়ের খবর শুনে তিনি দেশে ফিরে আসেন। এরপর থেকে মেয়ের সঙ্গে হাসপাতালেই কাটিয়েছেন। হাসপাতালের চিকিৎসকদের নিরলস পরিশ্রম ও সবার দোয়ায় তার মেয়ে একটু একটু করে সুস্থ হয়ে উঠতে শুরু করেছে। মেয়ের এই অবস্থার জন্য দায়ী ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের ফাঁসির দাবি জানিয়ে মাসুক মিয়া বলেন, এভাবে প্রকাশ্যে মেয়েদের কুপিয়ে জখম করার পরও যদি কোনো বখাটের বিচার না হয়  তাহলে এদেশে বসবাস করাটাইতো অসম্ভব হয়ে উঠবে। প্রধানমন্ত্রী যেমন তার মেয়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন। ঠিক তেমনি ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের সঠিক বিচারও তিনি করবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন। সিআরপির নিউরোলাজী বিভাগের প্রধান ডা. সাঈদ উদ্দিন হেলাল বলেন, খাদিজাকে পুরোপুরি সুস্থ করার জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করবো। তার পরিস্থিতি ভালো আছে। প্রাথমিকভাবে তাকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়েছে। সে এখন ভালো আছে। সে কথাও বলতে পারে। তবে তার বাম পাশের অংশ এখনো অবশ হয়ে আছে। সব ধরনের থেরাপি দিয়ে আল্লাহর রহমতে আমরা তাকে সুস্থ করে তুলতে পারবো। খাদিজার পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠতে দুই থেকে আড়াই মাস সময় লেগে যাবে বলেও তিনি জানান। সিআরপির প্রকল্প কর্মকর্তা বলেন, নার্গিসের উন্নত চিকিৎসার জন্য ইতিমধ্যে সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এছাড়া তার চিকিৎসার সকল ব্যয় হাসপাতাল বহন করবে বলেও তিনি জানান। প্রসঙ্গত, গত ৩রা অক্টোবর শাবি ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম সিলেট এমসি কলেজের পুকুর পাড়ে সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিসকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। প্রথমে তাকে সিলেটে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে পরদিন ভোরে হেলিকপ্টারে তাকে ঢাকায় আনা হয় ও স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ৫৫ দিন ওই হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সোমবার নার্গিসকে সিআরপিতে পাঠানো হয়। অন্যদিকে ওই ঘটনার পরপর বদরুলকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। আর এ ঘটনায় সারা দেশে তোলপাড় সৃষ্টি হলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। আর অসুস্থ নার্গিসের চিকিৎসাভার গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
 

Comments

Comments!

 বাবাকে স্বপ্নের কথা জানালেন খাদিজাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বাবাকে স্বপ্নের কথা জানালেন খাদিজা

Tuesday, November 29, 2016 8:49 am
23

সিলেটে ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের হামলায় আহত খাদিজা আক্তার নার্গিসকে চিকিৎসার জন্য সাভারের পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্র (সিআরপি)-এ নেয়া হয়েছে। সোমবার পুলিশ প্রহরায় ঢাকার স্কয়ার হাসপাতাল থেকে খাদিজাকে সিআরপিতে স্থানান্তর করা হয়।

খাদিজার সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যরা রয়েছেন। তাকে এক নজর দেখার জন্য সিআরপিতে স্থানীয় লোকজন জড়ো হয়েছে বলে জানান খাদিজার বাবা মাসুক মিয়া।

মেয়ের সুস্থতার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়ে তিনি বলেন, খাদিজার অবস্থা আগের চেয়ে অনেক ভালো। তার বেঁচে ওঠার সম্ভাবনা খুবই কম ছিল। তবে চিকিৎসকদের নিরলস পরিশ্রম এবং সবার দোয়ায় সে একটু একটু করে সুস্থ হয়ে উঠছে। এরই মধ্যে তার ব্যাংকার হওয়ার স্বপ্নও যেন প্রাণ ফিরতে শুরু করেছে।

মাসুক মিয়া জানান, গত রাতে মেয়ের সঙ্গে একান্তভাবে কথা বলার সময় খাদিজা তার ব্যাংকার হওয়ার ইচ্ছার কথা প্রকাশ করে।

তিনি বলেন, নার্গিস রাতে আমাকে বলেছে, ‘বাবা তুমি পরিবারের জন্য একাই কষ্ট করে যাচ্ছো। আমি ব্যাংকার হয়ে তোমাদের সেবা করতে চাই।’

এ সময় খাদিজার বাবা আরো জানান, মেয়ের খবর শুনে তিনি দেশে ফিরে আসেন। এরপর থেকে মেয়ের সঙ্গে হাসপাতালেই কাটিয়েছেন। হাসপাতালের চিকিৎসকদের নিরলস পরিশ্রম ও সবার দোয়ায় তার মেয়ে একটু একটু করে সুস্থ হয়ে উঠতে শুরু করেছে।

মেয়ের এই অবস্থার জন্য দায়ী ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের ফাঁসির দাবি জানিয়ে মাসুক মিয়া বলেন, এভাবে প্রকাশ্যে মেয়েদের কুপিয়ে জখম করার পরও যদি কোনো বখাটের বিচার না হয়  তাহলে এদেশে বসবাস করাটাইতো অসম্ভব হয়ে উঠবে। প্রধানমন্ত্রী যেমন তার মেয়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন। ঠিক তেমনি ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের সঠিক বিচারও তিনি করবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন।

সিআরপির নিউরোলাজী বিভাগের প্রধান ডা. সাঈদ উদ্দিন হেলাল বলেন, খাদিজাকে পুরোপুরি সুস্থ করার জন্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করবো। তার পরিস্থিতি ভালো আছে। প্রাথমিকভাবে তাকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়েছে। সে এখন ভালো আছে। সে কথাও বলতে পারে। তবে তার বাম পাশের অংশ এখনো অবশ হয়ে আছে। সব ধরনের থেরাপি দিয়ে আল্লাহর রহমতে আমরা তাকে সুস্থ করে তুলতে পারবো। খাদিজার পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠতে দুই থেকে আড়াই মাস সময় লেগে যাবে বলেও তিনি জানান।

সিআরপির প্রকল্প কর্মকর্তা বলেন, নার্গিসের উন্নত চিকিৎসার জন্য ইতিমধ্যে সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এছাড়া তার চিকিৎসার সকল ব্যয় হাসপাতাল বহন করবে বলেও তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, গত ৩রা অক্টোবর শাবি ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম সিলেট এমসি কলেজের পুকুর পাড়ে সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিসকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। প্রথমে তাকে সিলেটে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে পরদিন ভোরে হেলিকপ্টারে তাকে ঢাকায় আনা হয় ও স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

৫৫ দিন ওই হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সোমবার নার্গিসকে সিআরপিতে পাঠানো হয়। অন্যদিকে ওই ঘটনার পরপর বদরুলকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। আর এ ঘটনায় সারা দেশে তোলপাড় সৃষ্টি হলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। আর অসুস্থ নার্গিসের চিকিৎসাভার গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X