বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৬:৫৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, October 22, 2016 6:32 pm | আপডেটঃ October 22, 2016 6:39 PM
A- A A+ Print

বাহরাইনে বাংলাদেশ দূতাবাসের ভুল, ভোগান্তিতে শ্রমিক দিপেন

photo-1477139097

বাহরাইনের ক্রাউন প্লাজা নামের একটি রেস্তোরাঁয় পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে কাজ করেন বাংলাদেশের দিপেন কুমার নাথ। পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় বাহরাইনের বাংলাদেশের দূতাবাস থেকে নতুন করে একটি পাসপোর্ট করেন তিনি। যার নম্বর BEO247883। এর মধ্যে হঠাৎ করে শারীরিক সমস্যার কারণে দেশে ফিরে আসেন দিপেন। পরে চিকিৎসার উদ্দেশে ভারতে যাওয়ার ব্যবস্থা করেন। কিন্তু তাঁকে ফিরিয়ে দেয় ইমিগ্রেশন। কারণ, দিপেনের নতুন পাসপোর্টে নেই বাহরাইনের বাংলাদেশ দূতাবাসের পরিচালকের সিল বা স্বাক্ষর। সমস্যাটির সমাধান করতে দিপেনকে রাজধানীর আগারগাঁও পাসপোর্ট অধিদপ্তরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। এদিকে মাত্র দুই মাসের ছুটিতে গত ১ অক্টোবর দেশে এসেছেন তিনি। ২৪ নভেম্বর ফিরে যাওয়ার কথা তাঁর। এই সময়ের মধ্যে চিকিৎসা না করাতে পারলে কীভাবে আবার বিদেশে ফিরে যাবেন সেই চিন্তায় ডুবে ছিলেন দিপেন। গত ১৯ অক্টোবর পাসপোর্ট অধিদপ্তরে দিপেনের সঙ্গে কথা হয় এই প্রতিবেদকের। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘চিকিৎসার জন্য আমি দেশে এসে পদে পদে বিভিন্ন স্থানে এই পাসপোর্টের কারণে হয়রানির শিকার হচ্ছি। বাহরাইনের বাংলাদেশ দূতাবাসের ভুল আমার মতো দরিদ্র মানুষকে ভোগ করতে হচ্ছে।’ অবশ্য দিপেনের সমস্যাটি জানার পর প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তা সমাধান করে দেন পাসপোর্ট অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। অথচ এই সামান্য একটি ভুলের জন্য দিপেনের মতো প্রবাসী শ্রমিককে যেতে হয়েছে ভয়াবহ মানসিক যন্ত্রণার মধ্য দিয়ে। শুধু নিজেই নন, বাহরাইনে আরো অনেকের পাসপোর্টের ক্ষেত্রে এই ধরনের সমস্যা হয়েছে বলেও অভিযোগ দিপেনের। এই বিষয়ে আগারগাঁও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. হাফিজুর রহমান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, দিপেন কুমার নাথের মতো অনেক ব্যক্তিই এই ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়েছেন। তাঁদের পাসপোর্ট দেওয়া হয়েছে বিদেশ থেকে, কিন্তু তাতে বিভিন্ন ভুল থাকায় দেশে ফিরে নানা রকম জটিলতায় পড়ছেন তাঁরা। তবে পাসপোর্ট অফিসে এলে এসব সমস্যা সমাধান করা দেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। হাফিজুর রহমান আরো বলেন, বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা এই ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়ছেন। কিছু দিন আগে এক ব্যক্তি তো এসে বলেই ফেলল, ‘স্যার, আমি আত্মহত্যা করব, পাসপোর্ট নিয়ে এত ভোগান্তি আর ভালো লাগে না, এই দিকে পাসপোর্টের ঝামেলা ঠিক হচ্ছে না, আবার ওই দিকে ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে।’ বিশেষ করে বাইরাইনে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের কাছ থেকে এই অভিযোগ বেশি পাওয়া যাচ্ছে জানিয়ে সহকারী পরিচালক বলেন, এই বিষয়ে শিগগিরই পদক্ষেপ নেবেন তাঁরা। তবে এ অভিযোগের বিষয়ে এখনো কিছুই জানেন না পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাসুদ রেজওয়ান। এ ধরনের কোনো অভিযোগ পাননি জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো ব্যক্তি এমন সমস্যায় পড়লে সেটা ঠিক করে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। তবে এখন যেহেতু সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেছে সে জন্য বাহরাইনে বাংলাদেশের দূতাবাসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান তিনি।

Comments

Comments!

 বাহরাইনে বাংলাদেশ দূতাবাসের ভুল, ভোগান্তিতে শ্রমিক দিপেনAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বাহরাইনে বাংলাদেশ দূতাবাসের ভুল, ভোগান্তিতে শ্রমিক দিপেন

Saturday, October 22, 2016 6:32 pm | আপডেটঃ October 22, 2016 6:39 PM
photo-1477139097

বাহরাইনের ক্রাউন প্লাজা নামের একটি রেস্তোরাঁয় পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে কাজ করেন বাংলাদেশের দিপেন কুমার নাথ। পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় বাহরাইনের বাংলাদেশের দূতাবাস থেকে নতুন করে একটি পাসপোর্ট করেন তিনি। যার নম্বর BEO247883।

এর মধ্যে হঠাৎ করে শারীরিক সমস্যার কারণে দেশে ফিরে আসেন দিপেন। পরে চিকিৎসার উদ্দেশে ভারতে যাওয়ার ব্যবস্থা করেন। কিন্তু তাঁকে ফিরিয়ে দেয় ইমিগ্রেশন। কারণ, দিপেনের নতুন পাসপোর্টে নেই বাহরাইনের বাংলাদেশ দূতাবাসের পরিচালকের সিল বা স্বাক্ষর।

সমস্যাটির সমাধান করতে দিপেনকে রাজধানীর আগারগাঁও পাসপোর্ট অধিদপ্তরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। এদিকে মাত্র দুই মাসের ছুটিতে গত ১ অক্টোবর দেশে এসেছেন তিনি। ২৪ নভেম্বর ফিরে যাওয়ার কথা তাঁর। এই সময়ের মধ্যে চিকিৎসা না করাতে পারলে কীভাবে আবার বিদেশে ফিরে যাবেন সেই চিন্তায় ডুবে ছিলেন দিপেন।

গত ১৯ অক্টোবর পাসপোর্ট অধিদপ্তরে দিপেনের সঙ্গে কথা হয় এই প্রতিবেদকের। তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘চিকিৎসার জন্য আমি দেশে এসে পদে পদে বিভিন্ন স্থানে এই পাসপোর্টের কারণে হয়রানির শিকার হচ্ছি। বাহরাইনের বাংলাদেশ দূতাবাসের ভুল আমার মতো দরিদ্র মানুষকে ভোগ করতে হচ্ছে।’

অবশ্য দিপেনের সমস্যাটি জানার পর প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তা সমাধান করে দেন পাসপোর্ট অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। অথচ এই সামান্য একটি ভুলের জন্য দিপেনের মতো প্রবাসী শ্রমিককে যেতে হয়েছে ভয়াবহ মানসিক যন্ত্রণার মধ্য দিয়ে।

শুধু নিজেই নন, বাহরাইনে আরো অনেকের পাসপোর্টের ক্ষেত্রে এই ধরনের সমস্যা হয়েছে বলেও অভিযোগ দিপেনের।

এই বিষয়ে আগারগাঁও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. হাফিজুর রহমান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, দিপেন কুমার নাথের মতো অনেক ব্যক্তিই এই ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়েছেন। তাঁদের পাসপোর্ট দেওয়া হয়েছে বিদেশ থেকে, কিন্তু তাতে বিভিন্ন ভুল থাকায় দেশে ফিরে নানা রকম জটিলতায় পড়ছেন তাঁরা। তবে পাসপোর্ট অফিসে এলে এসব সমস্যা সমাধান করা দেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

হাফিজুর রহমান আরো বলেন, বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা এই ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়ছেন। কিছু দিন আগে এক ব্যক্তি তো এসে বলেই ফেলল, ‘স্যার, আমি আত্মহত্যা করব, পাসপোর্ট নিয়ে এত ভোগান্তি আর ভালো লাগে না, এই দিকে পাসপোর্টের ঝামেলা ঠিক হচ্ছে না, আবার ওই দিকে ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে।’

বিশেষ করে বাইরাইনে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের কাছ থেকে এই অভিযোগ বেশি পাওয়া যাচ্ছে জানিয়ে সহকারী পরিচালক বলেন, এই বিষয়ে শিগগিরই পদক্ষেপ নেবেন তাঁরা।

তবে এ অভিযোগের বিষয়ে এখনো কিছুই জানেন না পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাসুদ রেজওয়ান। এ ধরনের কোনো অভিযোগ পাননি জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো ব্যক্তি এমন সমস্যায় পড়লে সেটা ঠিক করে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। তবে এখন যেহেতু সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া গেছে সে জন্য বাহরাইনে বাংলাদেশের দূতাবাসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান তিনি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X