শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৬:০২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, July 31, 2016 10:13 pm
A- A A+ Print

বিআরটিসিও চাঁদাবাজির শিকার

index_136917

দেশের প্রায় প্রতিটি বাস ডিপোতে চাঁদা দিতে হয়, না হলে গাড়িতে যাত্রী তুলতে দেওয়া হয় না। এ থেকে বাদ যায় না সরকারি মালিকানাধীন বিআরটিসির বাসও। বাস মালিক সমিতির লোকজনের এসব কর্মকাণ্ড বন্ধে স্থানীয় প্রশাসনের কোনো সহযোগিতাও পাওয়া যায় না। আর এ চাঁদা দেওয়ার কারণেই বিআরটিসি কাঙ্খিত রাজস্ব আদায় করতে পারছে না। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি গঠিত এক সাব-কমিটির প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, নারী যাত্রীদের বাসে ওঠানো ও নামানোর ক্ষেত্রে বাসের কন্ডাক্টর ও হেলপারদের হাতে অহেতুক হয়রানির শিকার হতে হয়। রোববার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে সাব-কমিটির ওই প্রতিবেদন এবং সুপারিশের বাস্তবায়ন নিয়ে আলোচনা হয়। সারা দেশেই বাস মালিক সমিতির পক্ষ থেকে বিআরটিসির (বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন) বাস চলাচলে নানা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এ বিষয়ে কমিটির সুপারিশগুলো আমলে নেওয়ার ব্যাপারে মন্ত্রণালয় নীতিগত সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। নাজমুল হক প্রধানের নেতৃত্বে গঠিত এই সাব-কমিটির অন্য সদস্যদের মধ্যে ছিলেন রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, নুরুজ্জামান আহমেদ ও মো. মনিরুল ইসলাম। সাব-কমিটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতিটি ডিপোর ক্ষেত্রেই অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। কোনো চালু গাড়ির যন্ত্রাংশ নষ্ট হলে বিকল গাড়ি থেকে পার্টস নিয়ে লাগানো হয় এবং ভুয়া ভাউচারের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ করা হয়। কমিটির সুপারিশে প্রতিটি ডিপো ম্যানেজারকে জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমন্বয় বৈঠকের সদস্য করতে বলা হয়েছে। এছাড়া বিআরটিসির দেওয়া লিজ বাতিল করে প্রতিষ্ঠিত পরিবহন কোম্পানিগুলোকে লিজ দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এতে মালিক সমিতির বাধা দেওয়ার বিষয়টি এড়ানো সম্ভব হবে। সাবকমিটির পক্ষ থেকে গাড়ির কন্ডাক্টর ও হেলপারদের নৈতিক শিক্ষায় আনার পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি মালিক সমিতির চাঁদাবাজি প্রতিরোধে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধি ও সাধারণ যাত্রীদের সমন্বয়ে ‘বিআরটিসি যাত্রী সেবা সংঘ’ নামে সংগঠন গড়ে তোলার সুপারিশ করা হয়েছে। তা ছাড়া চুঙ্গির প্রচলন এখনো রয়েছে জানিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, একটি গাড়ি প্রতি ট্রিপে তিন হাজার টাকা আয় করলেও দেখানো হয় দেড় হাজার টাকা। এটাকে চুঙ্গি বলা হয়। এ বিষয়ে বিআরটিসির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে কমিটি জানতে চাইলে বলা হয়, মালিক সমিতিকে চাঁদা দেওয়াসহ অন্য খরচ মেটাতেই চুঙ্গির প্রচলন রয়েছে। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, প্রতিটি ডিপোতে বিপুল অঙ্কের অজমাকৃত অর্থ রয়েছে। এই অর্থ আদায়ে আরও তৎপর হতে হবে। জমা নেওয়ার দায়িত্বে থাকা ম্যানেজারসহ অন্যদের বেতন/ভাতা/গ্র্যাচুইটি/পেনশন থেকে এই অর্থ কর্তন করে রাখতে হবে। দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে। এ বিপুল অঙ্কের অর্থ আদায় না হওয়ার জন্য বিআরটিসির তদারকির অভাব রয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। বৈঠক শেষে সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশব্যাপী জেলা সদরের সঙ্গে সংযুক্ত রাস্তাগুলোকে ২৪ ফুট থেকে ৩০ ফুট এবং থানা সদরের সঙ্গে সংযুক্ত রাস্তাগুলো ১৮ ফুট থেকে ২৪ ফুট করতে সড়ক ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়ার সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কমিটিকে জানান হয়েছে, দেশের ২৩ জেলায় বিআরটিসির বাস চলাচল করছে। আরও নতুন বাস সংগ্রহের পরে প্রতিটি জেলায় কমপক্ষে একটি করে ঢাকা থেকে বাস চালানো হবে। ঢাকা শহরে দৃষ্টিনন্দন বাস চালানোর বিষয়ে মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, গত দু-তিন বছরে রাজনৈতিক অস্থিরতার সময় ৪৪৭টি বাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এগুলো মেরামতের জন্য বেসরকারি বাস মালিকদের মতো প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে অর্থ চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু অর্থ বরাদ্দ না হওয়ায় নিজস্ব তহবিলের অর্থে মেরামতের কাজ করা হচ্ছে। একাব্বর হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে আরও অংশ নেন ওবায়দুল কাদের, এ কে এম এ আউয়াল, রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, ফয়জুর রহমান, মো. মনিরুল ইসলাম ও লুৎফুন নেছা।

Comments

Comments!

 বিআরটিসিও চাঁদাবাজির শিকারAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বিআরটিসিও চাঁদাবাজির শিকার

Sunday, July 31, 2016 10:13 pm
index_136917

দেশের প্রায় প্রতিটি বাস ডিপোতে চাঁদা দিতে হয়, না হলে গাড়িতে যাত্রী তুলতে দেওয়া হয় না। এ থেকে বাদ যায় না সরকারি মালিকানাধীন বিআরটিসির বাসও। বাস মালিক সমিতির লোকজনের এসব কর্মকাণ্ড বন্ধে স্থানীয় প্রশাসনের কোনো সহযোগিতাও পাওয়া যায় না। আর এ চাঁদা দেওয়ার কারণেই বিআরটিসি কাঙ্খিত রাজস্ব আদায় করতে পারছে না।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি গঠিত এক সাব-কমিটির প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, নারী যাত্রীদের বাসে ওঠানো ও নামানোর ক্ষেত্রে বাসের কন্ডাক্টর ও হেলপারদের হাতে অহেতুক হয়রানির শিকার হতে হয়।

রোববার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে সাব-কমিটির ওই প্রতিবেদন এবং সুপারিশের বাস্তবায়ন নিয়ে আলোচনা হয়। সারা দেশেই বাস মালিক সমিতির পক্ষ থেকে বিআরটিসির (বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন) বাস চলাচলে নানা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এ বিষয়ে কমিটির সুপারিশগুলো আমলে নেওয়ার ব্যাপারে মন্ত্রণালয় নীতিগত সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে।

নাজমুল হক প্রধানের নেতৃত্বে গঠিত এই সাব-কমিটির অন্য সদস্যদের মধ্যে ছিলেন রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, নুরুজ্জামান আহমেদ ও মো. মনিরুল ইসলাম।

সাব-কমিটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতিটি ডিপোর ক্ষেত্রেই অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। কোনো চালু গাড়ির যন্ত্রাংশ নষ্ট হলে বিকল গাড়ি থেকে পার্টস নিয়ে লাগানো হয় এবং ভুয়া ভাউচারের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ করা হয়।

কমিটির সুপারিশে প্রতিটি ডিপো ম্যানেজারকে জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমন্বয় বৈঠকের সদস্য করতে বলা হয়েছে। এছাড়া বিআরটিসির দেওয়া লিজ বাতিল করে প্রতিষ্ঠিত পরিবহন কোম্পানিগুলোকে লিজ দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এতে মালিক সমিতির বাধা দেওয়ার বিষয়টি এড়ানো সম্ভব হবে।

সাবকমিটির পক্ষ থেকে গাড়ির কন্ডাক্টর ও হেলপারদের নৈতিক শিক্ষায় আনার পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি মালিক সমিতির চাঁদাবাজি প্রতিরোধে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধি ও সাধারণ যাত্রীদের সমন্বয়ে ‘বিআরটিসি যাত্রী সেবা সংঘ’ নামে সংগঠন গড়ে তোলার সুপারিশ করা হয়েছে।

তা ছাড়া চুঙ্গির প্রচলন এখনো রয়েছে জানিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, একটি গাড়ি প্রতি ট্রিপে তিন হাজার টাকা আয় করলেও দেখানো হয় দেড় হাজার টাকা। এটাকে চুঙ্গি বলা হয়। এ বিষয়ে বিআরটিসির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে কমিটি জানতে চাইলে বলা হয়, মালিক সমিতিকে চাঁদা দেওয়াসহ অন্য খরচ মেটাতেই চুঙ্গির প্রচলন রয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, প্রতিটি ডিপোতে বিপুল অঙ্কের অজমাকৃত অর্থ রয়েছে। এই অর্থ আদায়ে আরও তৎপর হতে হবে। জমা নেওয়ার দায়িত্বে থাকা ম্যানেজারসহ অন্যদের বেতন/ভাতা/গ্র্যাচুইটি/পেনশন থেকে এই অর্থ কর্তন করে রাখতে হবে। দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে। এ বিপুল অঙ্কের অর্থ আদায় না হওয়ার জন্য বিআরটিসির তদারকির অভাব রয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বৈঠক শেষে সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশব্যাপী জেলা সদরের সঙ্গে সংযুক্ত রাস্তাগুলোকে ২৪ ফুট থেকে ৩০ ফুট এবং থানা সদরের সঙ্গে সংযুক্ত রাস্তাগুলো ১৮ ফুট থেকে ২৪ ফুট করতে সড়ক ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কমিটিকে জানান হয়েছে, দেশের ২৩ জেলায় বিআরটিসির বাস চলাচল করছে। আরও নতুন বাস সংগ্রহের পরে প্রতিটি জেলায় কমপক্ষে একটি করে ঢাকা থেকে বাস চালানো হবে। ঢাকা শহরে দৃষ্টিনন্দন বাস চালানোর বিষয়ে মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, গত দু-তিন বছরে রাজনৈতিক অস্থিরতার সময় ৪৪৭টি বাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এগুলো মেরামতের জন্য বেসরকারি বাস মালিকদের মতো প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে অর্থ চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু অর্থ বরাদ্দ না হওয়ায় নিজস্ব তহবিলের অর্থে মেরামতের কাজ করা হচ্ছে।

একাব্বর হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে আরও অংশ নেন ওবায়দুল কাদের, এ কে এম এ আউয়াল, রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, ফয়জুর রহমান, মো. মনিরুল ইসলাম ও লুৎফুন নেছা।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X