বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:৩০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, June 2, 2017 12:04 am
A- A A+ Print

বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার বাংলাদেশ

photo-1496335221

২০১৫ সালের বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার হয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যেতে হয়েছিল বাংলাদেশকে। আইসিসির আরেক বড় প্রতিযোগিতা চ্যাম্পিয়নস ট্রফির প্রথম ম্যাচেও বাংলাদেশ হলো বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার। দুর্দান্ত দক্ষতায় বাউন্ডারি লাইনে একটি ক্যাচ ধরেছিলেন তামিম। কিন্তু অনেক নাটকের পর নিশ্চিত সেই আউটটিকে বাতিল করে দিয়েছেন থার্ড আম্পায়ার। ইংল্যান্ডের ইনিংসের ৩৬তম ওভারে মাশরাফি বিন মুর্তজার বলে বাউন্ডারি লাইনে ক্যাচ দিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ওয়েন মরগান। বেশ খানিকটা দৌড়ে এসে ডাইভ দিয়ে দারুণভাবে বলটি তালুবন্দি করেছিলেন তামিম। কিন্তু বলটা মাটি স্পর্শ করেছিল কি না, তা নিয়ে সন্দেহ ছিল মাঠের দুই আম্পায়ারের। তামিম বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই বলছিলেন যে, ক্যাচটা তিনি ঠিকঠাকই ধরেছেন। বল মাটিতে পড়েনি। কিন্তু মাঠের আম্পায়ার শুরুতেই সেটাকে নট আউট ঘোষণা দিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানতে চেয়েছেন থার্ড আম্পায়ারের কাছে। দুবার টেলিভিশন রিপ্লে দেখার পর নট আউটের সিদ্ধান্তই বহাল রেখেছেন থার্ড আম্পায়ার। যদিও সেই রিপ্লে দেখে মনে হয়েছে যে বল মাটিতে পড়ার আগেই তামিম সেটি ধরে ফেলেছিলেন। কিন্তু মাঠের দুই আম্পায়ার শুরুতেই নট আউট ঘোষণা দেওয়ায় থার্ড আম্পায়ারও সেই সিদ্ধান্তেই অটল থেকেছেন। বিতর্কিত এই সিদ্ধান্তে নিশ্চিতভাবেই চরম হতাশ হয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটার-সমর্থকরা। তামিম তো নিজের ক্ষোভ লুকিয়েও রাখতে পারেননি। আম্পায়ারের সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলার পর ফেটে পড়েছিলেন রাগে। ৩৬তম ওভারে এই আউটের সিদ্ধান্তটি বাংলাদেশের পক্ষে আসলে ম্যাচটি জয়ের সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যেত বাংলাদেশের। সে সময় ৮৬ বলে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ১০১ রান। একটি উইকেট হারালে নিশ্চিতভাবেই কিছুটা চাপের মুখে পড়ে যেত স্বাগতিকরা। বাংলাদেশও নতুন উদ্যমে ফিরতে পারত খেলায়।

Comments

Comments!

 বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার বাংলাদেশAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার বাংলাদেশ

Friday, June 2, 2017 12:04 am
photo-1496335221

২০১৫ সালের বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার হয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যেতে হয়েছিল বাংলাদেশকে। আইসিসির আরেক বড় প্রতিযোগিতা চ্যাম্পিয়নস ট্রফির প্রথম ম্যাচেও বাংলাদেশ হলো বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের শিকার। দুর্দান্ত দক্ষতায় বাউন্ডারি লাইনে একটি ক্যাচ ধরেছিলেন তামিম। কিন্তু অনেক নাটকের পর নিশ্চিত সেই আউটটিকে বাতিল করে দিয়েছেন থার্ড আম্পায়ার।

ইংল্যান্ডের ইনিংসের ৩৬তম ওভারে মাশরাফি বিন মুর্তজার বলে বাউন্ডারি লাইনে ক্যাচ দিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ওয়েন মরগান। বেশ খানিকটা দৌড়ে এসে ডাইভ দিয়ে দারুণভাবে বলটি তালুবন্দি করেছিলেন তামিম। কিন্তু বলটা মাটি স্পর্শ করেছিল কি না, তা নিয়ে সন্দেহ ছিল মাঠের দুই আম্পায়ারের।

তামিম বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই বলছিলেন যে, ক্যাচটা তিনি ঠিকঠাকই ধরেছেন। বল মাটিতে পড়েনি। কিন্তু মাঠের আম্পায়ার শুরুতেই সেটাকে নট আউট ঘোষণা দিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানতে চেয়েছেন থার্ড আম্পায়ারের কাছে। দুবার টেলিভিশন রিপ্লে দেখার পর নট আউটের সিদ্ধান্তই বহাল রেখেছেন থার্ড আম্পায়ার। যদিও সেই রিপ্লে দেখে মনে হয়েছে যে বল মাটিতে পড়ার আগেই তামিম সেটি ধরে ফেলেছিলেন। কিন্তু মাঠের দুই আম্পায়ার শুরুতেই নট আউট ঘোষণা দেওয়ায় থার্ড আম্পায়ারও সেই সিদ্ধান্তেই অটল থেকেছেন।

বিতর্কিত এই সিদ্ধান্তে নিশ্চিতভাবেই চরম হতাশ হয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটার-সমর্থকরা। তামিম তো নিজের ক্ষোভ লুকিয়েও রাখতে পারেননি। আম্পায়ারের সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলার পর ফেটে পড়েছিলেন রাগে।

৩৬তম ওভারে এই আউটের সিদ্ধান্তটি বাংলাদেশের পক্ষে আসলে ম্যাচটি জয়ের সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যেত বাংলাদেশের। সে সময় ৮৬ বলে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ১০১ রান। একটি উইকেট হারালে নিশ্চিতভাবেই কিছুটা চাপের মুখে পড়ে যেত স্বাগতিকরা। বাংলাদেশও নতুন উদ্যমে ফিরতে পারত খেলায়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X