বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১১:০০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, July 27, 2016 8:52 pm
A- A A+ Print

বিদেশিদের কাছে দেশকে ভাগ করে দেওয়া হচ্ছে: আনু মুহাম্মদ

index_136450 (1)

দেশের ভেতরে কিছু কমিশনভোগীর স্বার্থে, ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার স্বার্থে বিদেশিদের কাছে বাংলাদেশকে ভাগ-বাঁটোয়ারা করে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব আনু মুহাম্মদ। তিনি বলেন, যে দেশের মানুষের মধ্যে সুন্দরবন রক্ষার মতো দায়িত্ববোধ তৈরি হয় না, সে দেশে জঙ্গি, সাম্প্রদায়িকতা ও সহিংসতা থেকে মুক্ত হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে বুধবার বিকেল ৫টায় তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি আয়োজিত এক পদযাত্রাপূর্ব সমাবেশে আনু মুহাম্মদ এসব কথা বলেন। সুন্দরবনের রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বন্ধের দাবি জানিয়ে আনু মুহাম্মদ বলেন, সুন্দরবন রক্ষার আন্দোলন বাংলাদেশ রক্ষার আন্দোলন, ভবিষ্যৎ রক্ষার আন্দোলন। বিদেশি শাসকগোষ্ঠীকে খুশি করার জন্য সরকার এগুলো করছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘ভারতকে দেওয়া হচ্ছে সুন্দরবনবিনাশী রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র। চীনকে দেওয়া হচ্ছে বাঁশখালী ধ্বংস করে আরেকটি বিদ্যুৎকেন্দ্র। রাশিয়াকে দেওয়া হচ্ছে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র। আর আমেরিকাকে দেশের বঙ্গোপসাগরের বিশাল সম্পদের ব্লকগুলো দিয়ে দেওয়া হচ্ছে।’ দেশের সব পর্যায়ের, সব পেশার, বয়সের নারী-পুরুষকে সুন্দরবন-বিধ্বংসী এই প্রকল্পের বিরুদ্ধে এক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘এটা রক্ষা করা আমাদের জাতীয় কর্তব্য। জাতীয় জাগরণ ছাড়া সুন্দরবন রক্ষা সম্ভব নয়। এটি রক্ষা করা না গেলে দেশে আরও বিপর্যয় আসবে।’ সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা জাহাঙ্গীর আলম ফজলু বলেন, ‘বিদেশি বন্ধুদের স্বার্থে, ক্ষমতায় থাকার স্বার্থে, নিজেদের স্বার্থে সরকার এই প্রকল্প হাতে নিয়েছে। সুন্দরবন শুধু দেশের নয়, সারা পৃথিবীর সম্পদ। আর সেখানেই হচ্ছে তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র। আমরা বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিরুদ্ধে নই। কিন্তু সুন্দরবন ধ্বংস করে বিদ্যুৎ উৎপাদন আমরা চাই না।’ সমাবেশ শেষে একটি পদযাত্রা মিছিল শাহবাগ থেকে কাঁটাবন হয়ে এলিফ্যান্ট রোডের বাটা সিগন্যালে গিয়ে শেষ হয়। পদযাত্রা মিছিল থেকে রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিলের দাবিতে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

Comments

Comments!

 বিদেশিদের কাছে দেশকে ভাগ করে দেওয়া হচ্ছে: আনু মুহাম্মদAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বিদেশিদের কাছে দেশকে ভাগ করে দেওয়া হচ্ছে: আনু মুহাম্মদ

Wednesday, July 27, 2016 8:52 pm
index_136450 (1)
দেশের ভেতরে কিছু কমিশনভোগীর স্বার্থে, ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার স্বার্থে বিদেশিদের কাছে বাংলাদেশকে ভাগ-বাঁটোয়ারা করে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব আনু মুহাম্মদ।

তিনি বলেন, যে দেশের মানুষের মধ্যে সুন্দরবন রক্ষার মতো দায়িত্ববোধ তৈরি হয় না, সে দেশে জঙ্গি, সাম্প্রদায়িকতা ও সহিংসতা থেকে মুক্ত হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।

রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে বুধবার বিকেল ৫টায় তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি আয়োজিত এক পদযাত্রাপূর্ব সমাবেশে আনু মুহাম্মদ এসব কথা বলেন।

সুন্দরবনের রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বন্ধের দাবি জানিয়ে আনু মুহাম্মদ বলেন, সুন্দরবন রক্ষার আন্দোলন বাংলাদেশ রক্ষার আন্দোলন, ভবিষ্যৎ রক্ষার আন্দোলন। বিদেশি শাসকগোষ্ঠীকে খুশি করার জন্য সরকার এগুলো করছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘ভারতকে দেওয়া হচ্ছে সুন্দরবনবিনাশী রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র। চীনকে দেওয়া হচ্ছে বাঁশখালী ধ্বংস করে আরেকটি বিদ্যুৎকেন্দ্র। রাশিয়াকে দেওয়া হচ্ছে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র। আর আমেরিকাকে দেশের বঙ্গোপসাগরের বিশাল সম্পদের ব্লকগুলো দিয়ে দেওয়া হচ্ছে।’

দেশের সব পর্যায়ের, সব পেশার, বয়সের নারী-পুরুষকে সুন্দরবন-বিধ্বংসী এই প্রকল্পের বিরুদ্ধে এক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘এটা রক্ষা করা আমাদের জাতীয় কর্তব্য। জাতীয় জাগরণ ছাড়া সুন্দরবন রক্ষা সম্ভব নয়। এটি রক্ষা করা না গেলে দেশে আরও বিপর্যয় আসবে।’

সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা জাহাঙ্গীর আলম ফজলু বলেন, ‘বিদেশি বন্ধুদের স্বার্থে, ক্ষমতায় থাকার স্বার্থে, নিজেদের স্বার্থে সরকার এই প্রকল্প হাতে নিয়েছে। সুন্দরবন শুধু দেশের নয়, সারা পৃথিবীর সম্পদ। আর সেখানেই হচ্ছে তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র। আমরা বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিরুদ্ধে নই। কিন্তু সুন্দরবন ধ্বংস করে বিদ্যুৎ উৎপাদন আমরা চাই না।’

সমাবেশ শেষে একটি পদযাত্রা মিছিল শাহবাগ থেকে কাঁটাবন হয়ে এলিফ্যান্ট রোডের বাটা সিগন্যালে গিয়ে শেষ হয়। পদযাত্রা মিছিল থেকে রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিলের দাবিতে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X