রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৭:৩৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, November 13, 2016 7:47 pm
A- A A+ Print

বিদ্যালয়ে ঢুকে শিক্ষককে জুতাপেটা,শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন

gopalgonj1479039421

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিদ্যালয়ে ঢুকে সরোয়ার হোসেন মামুন নামে এক শিক্ষককে জুতাপেটা ও মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। আবুল কালাম নামে এক অভিভাবকের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছেন। রোববার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে কোটালীপাড়া উপজেলার নেছারউদ্দিন তালুকদার স্কুল অ্যান্ড কলেজে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযুক্ত অভিভাবক আবুল কালামের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন। নেছারউদ্দিন তালুকদার স্কুল অ্যান্ড কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রভাষক সরোয়ার হোসেন মামুন বলেন, সকালে কলেজে এসে অধ্যক্ষের কক্ষে হাজিরা খাতা স্বাক্ষর করতে যাচ্ছিলাম। এ সময় অধ্যক্ষের কক্ষের সামনে এ স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী শাহরিয়ার হোসেনের বাবা আবুল কালাম শেখ হঠাৎ করে আমাকে চড়-থাপ্পর ও কিলঘুষি মারতে মারতে অধ্যক্ষের সামনে নিয়ে যান। এরপর সেখানে পায়ের জুতা খুলে আমাকে জুতাপেটা করতে থাকে। পরে অধ্যক্ষ ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা আমাকে রক্ষা করেন। শিক্ষার্থীরা জানান, ওই শিক্ষককে জুতাপেটা করে সব শিক্ষক ও স্কুলের অপমান করেছেন। ওই অভিভাবকে গ্রেপ্তার ও বিচার না হওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জন চলবে। ওই প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ফরিদ আহম্মেদ সিকদার ও কামাল তালুকদার বলেন, এটা ন্যক্কারজনক ঘটনা। আমরা এ ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই। এদিকে অভিযুক্ত অভিভাবকের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। কলেজের অধ্যক্ষ আশুতোষ বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে ওই ছাত্রের নাম (শাহরিয়ার হোসেন) তৃতীয় নম্বর ক্রমিকে ছিল। কিন্তু বোর্ড থেকে যে তালিকা পাঠানো হয়েছে তাতে ওই ছাত্রের নাম এক নম্বর ক্রমিকে রয়েছে। এতে ওই ছাত্রের অভিভাবক (বাবা) ক্ষিপ্ত হয়ে শিক্ষক সরোয়ার হোসেন মামুনের ওপর হামলা করেছে। অভিযুক্ত অভিভাবকের নামে থানায় অভিযোগ করার প্রস্তুতি চলছে। কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুক জানান, ঘটনার পর পর পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। অভিযুক্ত ওই অভিভাবককে আটকের চেষ্টা চলছে।

Comments

Comments!

 বিদ্যালয়ে ঢুকে শিক্ষককে জুতাপেটা,শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জনAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বিদ্যালয়ে ঢুকে শিক্ষককে জুতাপেটা,শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন

Sunday, November 13, 2016 7:47 pm
gopalgonj1479039421

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিদ্যালয়ে ঢুকে সরোয়ার হোসেন মামুন নামে এক শিক্ষককে জুতাপেটা ও মারধর করার অভিযোগ উঠেছে।

আবুল কালাম নামে এক অভিভাবকের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছেন।

রোববার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে কোটালীপাড়া উপজেলার নেছারউদ্দিন তালুকদার স্কুল অ্যান্ড কলেজে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর থেকে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযুক্ত অভিভাবক আবুল কালামের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

নেছারউদ্দিন তালুকদার স্কুল অ্যান্ড কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রভাষক সরোয়ার হোসেন মামুন বলেন, সকালে কলেজে এসে অধ্যক্ষের কক্ষে হাজিরা খাতা স্বাক্ষর করতে যাচ্ছিলাম। এ সময় অধ্যক্ষের কক্ষের সামনে এ স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী শাহরিয়ার হোসেনের বাবা আবুল কালাম শেখ হঠাৎ করে আমাকে চড়-থাপ্পর ও কিলঘুষি মারতে মারতে অধ্যক্ষের সামনে নিয়ে যান। এরপর সেখানে পায়ের জুতা খুলে আমাকে জুতাপেটা করতে থাকে। পরে অধ্যক্ষ ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা আমাকে রক্ষা করেন।

শিক্ষার্থীরা জানান, ওই শিক্ষককে জুতাপেটা করে সব শিক্ষক ও স্কুলের অপমান করেছেন। ওই অভিভাবকে গ্রেপ্তার ও বিচার না হওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জন চলবে।

ওই প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ফরিদ আহম্মেদ সিকদার ও কামাল তালুকদার বলেন, এটা ন্যক্কারজনক ঘটনা। আমরা এ ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই।

এদিকে অভিযুক্ত অভিভাবকের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

কলেজের অধ্যক্ষ আশুতোষ বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে ওই ছাত্রের নাম (শাহরিয়ার হোসেন) তৃতীয় নম্বর ক্রমিকে ছিল। কিন্তু বোর্ড থেকে যে তালিকা পাঠানো হয়েছে তাতে ওই ছাত্রের নাম এক নম্বর ক্রমিকে রয়েছে। এতে ওই ছাত্রের অভিভাবক (বাবা) ক্ষিপ্ত হয়ে শিক্ষক সরোয়ার হোসেন মামুনের ওপর হামলা করেছে। অভিযুক্ত অভিভাবকের নামে থানায় অভিযোগ করার প্রস্তুতি চলছে।

কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুক জানান, ঘটনার পর পর পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। অভিযুক্ত ওই অভিভাবককে আটকের চেষ্টা চলছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X