মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:২৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, December 30, 2016 8:26 pm
A- A A+ Print

বিশ্বে বিরল এক শরণার্থী তরুণীর ভালোবাসার গল্প

%e0%a7%a8%e0%a7%ad

বৃষ্টিস্নাত ছিল দিনটি। কর্দমাক্ত সীমান্ত এলাকায় মানব মানবীর চোখে চোখে প্রথম দেখা। চার চোখের মিলন শেষ পর্যন্ত গড়ায় পরিণয়ে। এখন তারা জীবনসঙ্গী। হ্যাঁ, বলছিলাম যুদ্ধকালীন সময়ে ইরাক থেকে স্রোতের মতো অভিবাসীদের সঙ্গে মেসিডোনিয়ায় ভেসে আসা নুরা আরকাভাজির কথা। একজন অভিবাসী হিসেবে বাধার মুখে মানবেতর জীবন যাপন করছিলেন তিনি। এ সময় দেখা হয় দেশটির পুলিশ কর্মকর্তা ববি ডোডেভস্কির সঙ্গে। মায়া আর প্রেম নামক শব্দ দুটিই তাদেরকে একটি সুখের সংসার দিয়েছে। মেসিডোনিয়ার এক ছোট্ট অ্যাপার্টমেন্টের সুখের সংসারে বাসিন্দা এখন নুরা ও ডোডেভস্কি।সেখানেই চায়ের কাপ হাতে পুলিশ কর্মকর্তা ডোডেভস্কি জানালেন নিজেদের প্রথম দেখা ও সংসার শুরুর গল্প।এ বছরের মার্চের দিকে প্রথম দেখা হয়েছিল এই জুটির। এর ঠিক চার মাস পর তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। নুরা একজন কুর্দিশ মুসলিম। অন্যদিকে ববি একজন অর্থোডক্স খ্রিস্টান। প্রথম দেখার পরই ববি ডোডেভস্কি নুরার প্রেমে পড়ে যান। স্মৃতির পাতা উল্টিয়ে ববি ডোডেভস্কি বলছিলেন, ‘বৃষ্টিস্নাত একদিন নুরার সঙ্গে আমার প্রথম দেখা। সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডে নুরা অবস্থান করছিল। আর আমি মনে হয় তখন ডিউটির শিফট পরিবর্তন করে স্টেশন ত্যাগের প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। হঠাৎ তার সঙ্গে আমার দেখা। সেই দেখাতেই শেষ পর্যন্ত দুজনের একসঙ্গে পথ চলার শুরু’। ববি ডোডেভস্কির বলছিলেন, ‘দুজনের সাক্ষাৎ ও পরিণয়ের বিষয়টিকে অদৃষ্টের লিখন বলেই আমি মনে করি’। নুরার সম্পর্কে ডোডেভস্কি বলছিলেন, ‘২০ বছর বয়সী নুরার বাবা একজন প্রকৌশলী। আইএস তাদের এলাকায় হামলা চালানোর পর ওর বাবাকে ধরে নিয়ে যায়। তার মুক্তির জন্য মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করে জঙ্গি সংগঠনটি’।   নুরা তার ভাইবোন ও অভিভাবকসহ ইরাক ছেড়ে পশ্চিমের দিকে যাত্রা শুরু করেন। পরিবারের সদস্যরা কেবল প্রাণের মায়ায় দুর্বিসহ দীর্ঘ সেই যাত্রা মেনে নেন। পরিবারটি তুরস্ক থেকে গ্রিস হয়ে শেষ পর্যন্ত মেসিডোনিয়াতে এসে উঠে। নিষ্পেষিত সেই দীর্ঘ পথে নুরার পরিবারের মতো আরো অনেক পরিবারের মেসিডোনিয়াতে আসার কথা জানালেন ববি ডোডেভস্কি। সেখানে যে নুরার চাইতে সুন্দরী মেয়ে ছিলনা তা নয়, কিন্তু সৃষ্টিকর্তাই যেনো তাদেরকে একত্রিত করলেন এমনটাই মনে করেন ববি। মায়াবী নুরা আরকাভাজি বলছিলেন, ‘অনেক কষ্ট করে আমরা পালিয়ে আসি। নিজ দেশে আমাদের ওপর খুবই নির্যাতন হচ্ছিল। জীবন বাঁচাতে আমরা জার্মানিতে যাওয়ার চেষ্টা করি। স্বপ্ন ছিল কেবল পুরো পরিবার নিয়ে নিরাপদে বেঁচে থাকার। কিন্তু সেই স্বপ্ন আজ অনেক বেশি বাস্তব। তবে জার্মানিতে নয়, মেসিডোনিয়ায়’। সবার ভালোবাসা নিয়ে সামনের দিনগুলোতে একসঙ্গে চলতে চান তারা। সে জন্য সবার ভালোবাসা ও সহযোগিতা চেয়েছেন। বাস্তব জীবনের পুরোটা রুপের অন্য রকম ভালোবাসা চিরদিন ধরে রাখতে চান এই দম্পতি।
 

Comments

Comments!

 বিশ্বে বিরল এক শরণার্থী তরুণীর ভালোবাসার গল্পAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বিশ্বে বিরল এক শরণার্থী তরুণীর ভালোবাসার গল্প

Friday, December 30, 2016 8:26 pm
%e0%a7%a8%e0%a7%ad

বৃষ্টিস্নাত ছিল দিনটি। কর্দমাক্ত সীমান্ত এলাকায় মানব মানবীর চোখে চোখে প্রথম দেখা। চার চোখের মিলন শেষ পর্যন্ত গড়ায় পরিণয়ে। এখন তারা জীবনসঙ্গী।

হ্যাঁ, বলছিলাম যুদ্ধকালীন সময়ে ইরাক থেকে স্রোতের মতো অভিবাসীদের সঙ্গে মেসিডোনিয়ায় ভেসে আসা নুরা আরকাভাজির কথা। একজন অভিবাসী হিসেবে বাধার মুখে মানবেতর জীবন যাপন করছিলেন তিনি। এ সময় দেখা হয় দেশটির পুলিশ কর্মকর্তা ববি ডোডেভস্কির সঙ্গে।

মায়া আর প্রেম নামক শব্দ দুটিই তাদেরকে একটি সুখের সংসার দিয়েছে। মেসিডোনিয়ার এক ছোট্ট অ্যাপার্টমেন্টের সুখের সংসারে বাসিন্দা এখন নুরা ও ডোডেভস্কি।সেখানেই চায়ের কাপ হাতে পুলিশ কর্মকর্তা ডোডেভস্কি জানালেন নিজেদের প্রথম দেখা ও সংসার শুরুর গল্প।এ বছরের মার্চের দিকে প্রথম দেখা হয়েছিল এই জুটির। এর ঠিক চার মাস পর তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। নুরা একজন কুর্দিশ মুসলিম। অন্যদিকে ববি একজন অর্থোডক্স খ্রিস্টান।

প্রথম দেখার পরই ববি ডোডেভস্কি নুরার প্রেমে পড়ে যান। স্মৃতির পাতা উল্টিয়ে ববি ডোডেভস্কি বলছিলেন, ‘বৃষ্টিস্নাত একদিন নুরার সঙ্গে আমার প্রথম দেখা। সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডে নুরা অবস্থান করছিল। আর আমি মনে হয় তখন ডিউটির শিফট পরিবর্তন করে স্টেশন ত্যাগের প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। হঠাৎ তার সঙ্গে আমার দেখা। সেই দেখাতেই শেষ পর্যন্ত দুজনের একসঙ্গে পথ চলার শুরু’।

ববি ডোডেভস্কির বলছিলেন, ‘দুজনের সাক্ষাৎ ও পরিণয়ের বিষয়টিকে অদৃষ্টের লিখন বলেই আমি মনে করি’।

নুরার সম্পর্কে ডোডেভস্কি বলছিলেন, ‘২০ বছর বয়সী নুরার বাবা একজন প্রকৌশলী। আইএস তাদের এলাকায় হামলা চালানোর পর ওর বাবাকে ধরে নিয়ে যায়। তার মুক্তির জন্য মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করে জঙ্গি সংগঠনটি’।

 

নুরা তার ভাইবোন ও অভিভাবকসহ ইরাক ছেড়ে পশ্চিমের দিকে যাত্রা শুরু করেন। পরিবারের সদস্যরা কেবল প্রাণের মায়ায় দুর্বিসহ দীর্ঘ সেই যাত্রা মেনে নেন। পরিবারটি তুরস্ক থেকে গ্রিস হয়ে শেষ পর্যন্ত মেসিডোনিয়াতে এসে উঠে।

নিষ্পেষিত সেই দীর্ঘ পথে নুরার পরিবারের মতো আরো অনেক পরিবারের মেসিডোনিয়াতে আসার কথা জানালেন ববি ডোডেভস্কি। সেখানে যে নুরার চাইতে সুন্দরী মেয়ে ছিলনা তা নয়, কিন্তু সৃষ্টিকর্তাই যেনো তাদেরকে একত্রিত করলেন এমনটাই মনে করেন ববি।

মায়াবী নুরা আরকাভাজি বলছিলেন, ‘অনেক কষ্ট করে আমরা পালিয়ে আসি। নিজ দেশে আমাদের ওপর খুবই নির্যাতন হচ্ছিল। জীবন বাঁচাতে আমরা জার্মানিতে যাওয়ার চেষ্টা করি। স্বপ্ন ছিল কেবল পুরো পরিবার নিয়ে নিরাপদে বেঁচে থাকার। কিন্তু সেই স্বপ্ন আজ অনেক বেশি বাস্তব। তবে জার্মানিতে নয়, মেসিডোনিয়ায়’।

সবার ভালোবাসা নিয়ে সামনের দিনগুলোতে একসঙ্গে চলতে চান তারা। সে জন্য সবার ভালোবাসা ও সহযোগিতা চেয়েছেন। বাস্তব জীবনের পুরোটা রুপের অন্য রকম ভালোবাসা চিরদিন ধরে রাখতে চান এই দম্পতি।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X