মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৬:০৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, June 27, 2017 6:23 am
A- A A+ Print

বুমরার সেই নো বল নিয়ে ফখর যা বললেন

b91d7499c85d708c7ee3d63c77113920-59510a214c9cf

হৃৎপিণ্ডটা প্রায় বেরিয়েই এসেছিল ফখর জামানের। জাসপ্রীত বুমরার বলে মহেন্দ্র সিং ধোনির হাতে নিজেকে ক্যাচ হতে দেখে মনটাই ভেঙে গিয়েছিল তাঁর—সব স্বপ্ন শেষ! চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালের মতো বড় মঞ্চে মাঠে নেমে বড় কিছুই করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু সেই তিনি কিনা ফিরছেন মাত্র ৩ রান করে! মাথা নিচু করে ড্রেসিং রুমের দিকেই হাঁটতে শুরু করেছিলেন। কিন্তু মাঠের আম্পায়ার হঠাৎই ফখরকে অপেক্ষা করতে বললেন। নতুন আশার আলো দেখলেন তিনি। বুমরার পা ক্রিজ অতিক্রম করেছে কি না, আম্পায়াররা সেটিই পরীক্ষা করে দেখবেন। অবিশ্বাস্যভাবে ফখর বেঁচে গেলেন। একটা নো বল, আর সেটা যেন পুরো ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিল। ফখরের জীবনেরও! ফাইনালে ১০৬ বলে ১১৪ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে ফখর এখন পাকিস্তানের জাতীয় নায়ক। সেই নো বলের ভূত যেন এখনো তাড়া করছে ভারতকে। ট্রাফিক পুলিশের প্রচারণার সূত্র ধরে আবারও নতুন করে আলোচনায় বুমরার নো বল। কিন্তু ফখর? তিনি কী বলেন? ফখর বলেছেন, ‘যখন দেখলাম ধোনি আমার ক্যাচটি নিয়েছে, আমার হৃদয় ভেঙে গিয়েছিল। আমার সব স্বপ্ন ভেঙেচুরে একাকার। ড্রেসিং রুমের দিকে হাঁটতে শুরু করেছিলাম। আম্পায়ার যখন আমাকে অপেক্ষা করতে বললেন, সেটি ছিল একটা আশার আলো। আমি মাত্র ৩ রানে আউট হতে চাইনি। বড় কিছুই করতে চেয়েছিলাম।’ বলটি যখন নো হিসেবে প্রমাণিত হলো, তখন সেটিকে ফখর দেখেছেন প্রেরণা হিসেবেই, ‘আমি তখন বুঝে গেলাম, দিনটা আমারই।’ চ্যাম্পিয়নস ট্রফির প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ফখর খেলেননি। ম্যাচটা ১২৪ রানে হেরেছিল পাকিস্তান। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পরের ম্যাচেই অভিষেক হলো। নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ রাখলেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফিফটি পেলেন, ফিফটি করলেন সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই। অচেনা একজন থেকে বীরই হয়ে গেলেন। বাকিটা তো ইতিহাসই। পিটিআই।

Comments

Comments!

 বুমরার সেই নো বল নিয়ে ফখর যা বললেনAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বুমরার সেই নো বল নিয়ে ফখর যা বললেন

Tuesday, June 27, 2017 6:23 am
b91d7499c85d708c7ee3d63c77113920-59510a214c9cf

হৃৎপিণ্ডটা প্রায় বেরিয়েই এসেছিল ফখর জামানের। জাসপ্রীত বুমরার বলে মহেন্দ্র সিং ধোনির হাতে নিজেকে ক্যাচ হতে দেখে মনটাই ভেঙে গিয়েছিল তাঁর—সব স্বপ্ন শেষ! চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালের মতো বড় মঞ্চে মাঠে নেমে বড় কিছুই করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু সেই তিনি কিনা ফিরছেন মাত্র ৩ রান করে! মাথা নিচু করে ড্রেসিং রুমের দিকেই হাঁটতে শুরু করেছিলেন।

কিন্তু মাঠের আম্পায়ার হঠাৎই ফখরকে অপেক্ষা করতে বললেন। নতুন আশার আলো দেখলেন তিনি। বুমরার পা ক্রিজ অতিক্রম করেছে কি না, আম্পায়াররা সেটিই পরীক্ষা করে দেখবেন। অবিশ্বাস্যভাবে ফখর বেঁচে গেলেন। একটা নো বল, আর সেটা যেন পুরো ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিল। ফখরের জীবনেরও!
ফাইনালে ১০৬ বলে ১১৪ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে ফখর এখন পাকিস্তানের জাতীয় নায়ক। সেই নো বলের ভূত যেন এখনো তাড়া করছে ভারতকে। ট্রাফিক পুলিশের প্রচারণার সূত্র ধরে আবারও নতুন করে আলোচনায় বুমরার নো বল। কিন্তু ফখর? তিনি কী বলেন?
ফখর বলেছেন, ‘যখন দেখলাম ধোনি আমার ক্যাচটি নিয়েছে, আমার হৃদয় ভেঙে গিয়েছিল। আমার সব স্বপ্ন ভেঙেচুরে একাকার। ড্রেসিং রুমের দিকে হাঁটতে শুরু করেছিলাম। আম্পায়ার যখন আমাকে অপেক্ষা করতে বললেন, সেটি ছিল একটা আশার আলো। আমি মাত্র ৩ রানে আউট হতে চাইনি। বড় কিছুই করতে চেয়েছিলাম।’
বলটি যখন নো হিসেবে প্রমাণিত হলো, তখন সেটিকে ফখর দেখেছেন প্রেরণা হিসেবেই, ‘আমি তখন বুঝে গেলাম, দিনটা আমারই।’
চ্যাম্পিয়নস ট্রফির প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ফখর খেলেননি। ম্যাচটা ১২৪ রানে হেরেছিল পাকিস্তান। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পরের ম্যাচেই অভিষেক হলো। নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ রাখলেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফিফটি পেলেন, ফিফটি করলেন সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই। অচেনা একজন থেকে বীরই হয়ে গেলেন। বাকিটা তো ইতিহাসই। পিটিআই।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X