সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:৫৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, November 15, 2016 8:40 pm
A- A A+ Print

বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর-সুবিধা দিতে রুল

high_court1479214085

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকদের অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।মঙ্গলবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কৃঞ্চা দেবনাথের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে তাদের অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা দিতে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, রুলে তা জানতে চাওয়া হয়েছে। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস। মনজিল মোরসেদ বলেন, আদালত রুল জারির পাশাপাশি অবসরে যাওয়ার ছয় মাস পরও যেসব শিক্ষক সুযোগ-সুবিধা (ভাতাদি) পাননি তাদের সংখ্যা ও বেসকারি শিক্ষকদের অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা সংক্রান্ত ফান্ডে কত টাকা আছে তা জানতে চাওয়া হয়েছে। আগামী তিন মাসের মধ্যে বেসরকারি শিক্ষকদের অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা সংক্রান্ত বোর্ডের (বেনবেইজ) সদস্য সচিব, এ সংক্রান্ত ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যকে বিষয়টি আদালতকে জানাতে হবে। এ ছাড়া আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, অর্থসচিব, শিক্ষাসচিবসহ সংশ্লিষ্ট ১৫ জনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। মনজিল মোরসেদ জানান, গত ১৭ অক্টোবর একটি জাতীয় দৈনিকে ‘জীবনসায়াহ্নে ৭৬ হাজার শিক্ষকের আহাজারি’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১৭ অক্টোবর সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়। ওই নোটিশের জবাব না পেয়ে জনস্বার্থে একটি রিট আবেদন করেন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ। রিটে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন সংযুক্ত করা হয়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, সারা জীবন শিক্ষকতা করে অবসর গ্রহণের পর জীবনসায়াহ্নে এসে প্রায় ৭৬ হাজার শিক্ষক আহাজারি করছেন কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধার অর্থ না পেয়ে। শিক্ষকদের এমপিওর (মান্থলি পে অর্ডার) ২ শতাংশ অর্থ কেটে রাখা হয় বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট তহবিলে। আর ৪ শতাংশ কেটে রাখা হয় অবসর সুবিধা বোর্ড তহবিলে। মাসিক বেতনের অংশ থেকে কেটে রাখা অর্থ এই খাতে জমা রাখলেও চাকরি শেষে তা পাওয়ার জন্য পোহাতে হচ্ছে অশেষ ভোগান্তি।

Comments

Comments!

 বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর-সুবিধা দিতে রুলAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বেসরকারি শিক্ষকদের অবসর-সুবিধা দিতে রুল

Tuesday, November 15, 2016 8:40 pm
high_court1479214085

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকদের অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।মঙ্গলবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কৃঞ্চা দেবনাথের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন।

একই সঙ্গে তাদের অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা দিতে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, রুলে তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস।

মনজিল মোরসেদ বলেন, আদালত রুল জারির পাশাপাশি অবসরে যাওয়ার ছয় মাস পরও যেসব শিক্ষক সুযোগ-সুবিধা (ভাতাদি) পাননি তাদের সংখ্যা ও বেসকারি শিক্ষকদের অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা সংক্রান্ত ফান্ডে কত টাকা আছে তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

আগামী তিন মাসের মধ্যে বেসরকারি শিক্ষকদের অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা সংক্রান্ত বোর্ডের (বেনবেইজ) সদস্য সচিব, এ সংক্রান্ত ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যকে বিষয়টি আদালতকে জানাতে হবে।

এ ছাড়া আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, অর্থসচিব, শিক্ষাসচিবসহ সংশ্লিষ্ট ১৫ জনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

মনজিল মোরসেদ জানান, গত ১৭ অক্টোবর একটি জাতীয় দৈনিকে ‘জীবনসায়াহ্নে ৭৬ হাজার শিক্ষকের আহাজারি’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১৭ অক্টোবর সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়। ওই নোটিশের জবাব না পেয়ে জনস্বার্থে একটি রিট আবেদন করেন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ। রিটে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন সংযুক্ত করা হয়।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, সারা জীবন শিক্ষকতা করে অবসর গ্রহণের পর জীবনসায়াহ্নে এসে প্রায় ৭৬ হাজার শিক্ষক আহাজারি করছেন কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধার অর্থ না পেয়ে। শিক্ষকদের এমপিওর (মান্থলি পে অর্ডার) ২ শতাংশ অর্থ কেটে রাখা হয় বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট তহবিলে। আর ৪ শতাংশ কেটে রাখা হয় অবসর সুবিধা বোর্ড তহবিলে। মাসিক বেতনের অংশ থেকে কেটে রাখা অর্থ এই খাতে জমা রাখলেও চাকরি শেষে তা পাওয়ার জন্য পোহাতে হচ্ছে অশেষ ভোগান্তি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X