রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৬:০০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, May 22, 2017 4:38 pm
A- A A+ Print

বেয়াইয়ের বিদ্যুৎ বিল বেয়াইয়ের ঘাড়ে!

abfb2504105e7c292ec67bcde844df2f-5922aef59a03e

বিলের ভয়ে গরমের মধ্যেও ফ্যান ছাড়েন না আবদুল হামিদ। প্রতি মাসে তাঁর বিল আসে গড়ে ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা। অথচ মে মাসে হঠাৎ করে বিল এল ৬৮২ টাকা। এত বেশি বিল পেয়ে চক্ষু চড়কগাছ জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার আবদুল হামিদের। জানালেন, বেয়াইয়ের বকেয়া বিলও চাপানো হয়েছে তাঁর ঘাড়ে। কারণ জানতে চাইলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয় সাফ জানিয়ে দেয়, আবদুল হামিদের বেয়াই রবিকে তাঁরা খুঁজে পাচ্ছেন না। তাই বেয়াইয়ের বিল আবদুল হামিদকেই শোধ করতে হবে। মনের দুঃখে আবদুল হামিদ যান স্থানীয় প্রেসক্লাবে। সাংবাদিকদের জানান তাঁর অভিযোগ। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির দেওয়া বিদ্যুৎ বিলে দেখা যায়, আক্কেলপুর পৌর শহরের পূর্ব হাস্তাবসন্তপুর মহল্লার আবাসিক বিদ্যুৎ গ্রাহক আবদুল হামিদের হিসাব নম্বর ০৭/০৫৯/৪১২০। ৪ এপ্রিল থেকে চলতি মে মাসের ৪ তারিখ পর্যন্ত তাঁর নিট বিল ১৬০ টাকা। মাশুলসহ বিল পরিশোধের শেষ তারিখ ৬ জুন। ওই বিলের সঙ্গে ৮৫৯-২৮০০ নম্বর হিসেবের বকেয়া ৪৯৬ টাকা যুক্ত করা হয়েছে। . আবদুল হামিদের কাছে আসা বিদ্যুৎ বিলআবদুল হামিদের কাছে আসা বিদ্যুৎ বিলআবদুল হামিদ বলেন, এত বেশি বিলের কারণ জানতে তিনি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয়ে যান। ক্যাশ থেকে বিলটি নিয়ে তাঁকে উপমহাব্যবস্থাপকের কাছে যেতে বলা হয়। উপমহাব্যবস্থাপক ইয়াকুব আলী শেখ বলেন, ‘আপনার বেয়াই রবির বিদ্যুৎ বিল বকেয়া আছে। সেই বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আপনার বিলে যুক্ত করা হয়েছে। আপনার বেয়াই রবিকে আমরা খুঁজে পাচ্ছি না। যেহেতু রবি আপনার বেয়াই, সেহেতু তাঁর বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আপনাকেই পরিশোধ করতে হবে।’ বেয়াইয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল দিতে যাব কেন? এমন প্রশ্নে উপমহাব্যবস্থাপক আবদুল হামিদকে বলেন, আত্মীয় তো আত্মীয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করবে। আবদুল হামিদের আত্মীয় আক্কেলপুর পৌরসভার কর্মচারী সোহেল আখতার পারভেজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি আবদুল হামিদের সঙ্গে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উপমহাব্যবস্থাপকের কাছে গিয়েছিলাম। বেয়াইয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল বেয়াইকে পরিশোধ করতে হবে সাফ জানিয়ে দেন তিনি।’ এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঘটনা স্বীকার করে জয়পুরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আক্কেলপুর আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপমহাব্যবস্থাপক ইয়াকুব আলী শেখ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আবদুল হামিদের বেয়াই রবির বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। আমরা তাঁকে খুঁজে পাচ্ছি না। এ কারণে রবির বকেয়া বিদ্যুৎ বিল তাঁর বেয়াই আবদুল হামিদের বিদ্যুৎ বিলে যুক্ত করে দিয়েছি। সরকারি টাকা মেরে খাওয়ার কোনো উপায় নেই। আবদুল হামিদকেই তাঁর বেয়াইয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে।’ জয়পুরহাট আদালতের আইনজীবী রাজেন্দ্র প্রসাদ আগরওয়ালা প্রথম আলোকে বলেন, ‘বেয়াইয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল বেয়াইকে পরিশোধ করতে হবে, এটি যুক্তিসংগত কথা নয়। এটি অন্যায় আবদার।’

Comments

Comments!

 বেয়াইয়ের বিদ্যুৎ বিল বেয়াইয়ের ঘাড়ে!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বেয়াইয়ের বিদ্যুৎ বিল বেয়াইয়ের ঘাড়ে!

Monday, May 22, 2017 4:38 pm
abfb2504105e7c292ec67bcde844df2f-5922aef59a03e

বিলের ভয়ে গরমের মধ্যেও ফ্যান ছাড়েন না আবদুল হামিদ। প্রতি মাসে তাঁর বিল আসে গড়ে ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা। অথচ মে মাসে হঠাৎ করে বিল এল ৬৮২ টাকা।

এত বেশি বিল পেয়ে চক্ষু চড়কগাছ জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার আবদুল হামিদের। জানালেন, বেয়াইয়ের বকেয়া বিলও চাপানো হয়েছে তাঁর ঘাড়ে। কারণ জানতে চাইলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয় সাফ জানিয়ে দেয়, আবদুল হামিদের বেয়াই রবিকে তাঁরা খুঁজে পাচ্ছেন না। তাই বেয়াইয়ের বিল আবদুল হামিদকেই শোধ করতে হবে।

মনের দুঃখে আবদুল হামিদ যান স্থানীয় প্রেসক্লাবে। সাংবাদিকদের জানান তাঁর অভিযোগ।

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির দেওয়া বিদ্যুৎ বিলে দেখা যায়, আক্কেলপুর পৌর শহরের পূর্ব হাস্তাবসন্তপুর মহল্লার আবাসিক বিদ্যুৎ গ্রাহক আবদুল হামিদের হিসাব নম্বর ০৭/০৫৯/৪১২০। ৪ এপ্রিল থেকে চলতি মে মাসের ৪ তারিখ পর্যন্ত তাঁর নিট বিল ১৬০ টাকা। মাশুলসহ বিল পরিশোধের শেষ তারিখ ৬ জুন। ওই বিলের সঙ্গে ৮৫৯-২৮০০ নম্বর হিসেবের বকেয়া ৪৯৬ টাকা যুক্ত করা হয়েছে।

.

আবদুল হামিদের কাছে আসা বিদ্যুৎ বিলআবদুল হামিদের কাছে আসা বিদ্যুৎ বিলআবদুল হামিদ বলেন, এত বেশি বিলের কারণ জানতে তিনি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয়ে যান। ক্যাশ থেকে বিলটি নিয়ে তাঁকে উপমহাব্যবস্থাপকের কাছে যেতে বলা হয়। উপমহাব্যবস্থাপক ইয়াকুব আলী শেখ বলেন, ‘আপনার বেয়াই রবির বিদ্যুৎ বিল বকেয়া আছে। সেই বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আপনার বিলে যুক্ত করা হয়েছে। আপনার বেয়াই রবিকে আমরা খুঁজে পাচ্ছি না। যেহেতু রবি আপনার বেয়াই, সেহেতু তাঁর বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আপনাকেই পরিশোধ করতে হবে।’

বেয়াইয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল দিতে যাব কেন? এমন প্রশ্নে উপমহাব্যবস্থাপক আবদুল হামিদকে বলেন, আত্মীয় তো আত্মীয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করবে।

আবদুল হামিদের আত্মীয় আক্কেলপুর পৌরসভার কর্মচারী সোহেল আখতার পারভেজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি আবদুল হামিদের সঙ্গে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উপমহাব্যবস্থাপকের কাছে গিয়েছিলাম। বেয়াইয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল বেয়াইকে পরিশোধ করতে হবে সাফ জানিয়ে দেন তিনি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঘটনা স্বীকার করে জয়পুরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আক্কেলপুর আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপমহাব্যবস্থাপক ইয়াকুব আলী শেখ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আবদুল হামিদের বেয়াই রবির বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। আমরা তাঁকে খুঁজে পাচ্ছি না। এ কারণে রবির বকেয়া বিদ্যুৎ বিল তাঁর বেয়াই আবদুল হামিদের বিদ্যুৎ বিলে যুক্ত করে দিয়েছি। সরকারি টাকা মেরে খাওয়ার কোনো উপায় নেই। আবদুল হামিদকেই তাঁর বেয়াইয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে।’

জয়পুরহাট আদালতের আইনজীবী রাজেন্দ্র প্রসাদ আগরওয়ালা প্রথম আলোকে বলেন, ‘বেয়াইয়ের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল বেয়াইকে পরিশোধ করতে হবে, এটি যুক্তিসংগত কথা নয়। এটি অন্যায় আবদার।’

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X