শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১২:০০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, June 3, 2017 11:55 pm
A- A A+ Print

বৈধ হচ্ছে অ্যাপভিত্তিক পরিবহন সেবা

Taxi20170603183502

দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে মোবাইল ফোনে অ্যাপের মাধ্যমে পরিচালিত গাড়ি ও মোটরসাইকেল সেবা। ডাকলেই সাধ্যের মধ্যে ভাড়ায় গন্তব্যে পৌঁছার নিশ্চয়তা পাওয়া যাচ্ছে। স্মার্টফোনে অ্যাপের মাধ্যমে গাড়ি ভাড়া করার এ পদ্ধতি আইনানুযায়ী বৈধ না হলেও রাজধানীর যান সংকটের কারণে জনপ্রিয়তা পেয়েছে। জনপ্রিয়তার কারণেই এ সেবাকে বৈধতা দিয়ে সরকারি নিয়ন্ত্রণে আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে নীতিমালা তৈরি করছে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। নীতিমালাটি সরকারের অনুমোদন পেলে উবারের মতো অ্যাপভিত্তিক গাড়ি ভাড়া করার পদ্ধতি বৈধতা পাবে। ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য নিবন্ধন নেওয়া মোটরগাড়ি ও মোটরসাইকেলে ভাড়ায় যাত্রী বহন করা যাবে। বিআরটিএর চেয়ারম্যান মো. মশিয়ার রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আগে থেকেই ঢাকায় ছিল মোটরসাইকেল ভাড়া করার অ্যাপ ‘স্যাম’। গত বছরের ২২ নভেম্বর রাজধানীতে চলতে শুরু করে উবার ট্যাক্সিসেবা। সম্প্রতি এসেছে দেশীয় উদ্যোক্তাদের দ্বারা পরিচালিত ‘পাঠাও’ নামে আরও একটি অ্যাপ। উবারের মতো এ অ্যাপের মাধ্যমেও গাড়ি ভাড়া করা যায়। এসব অ্যাপের মাধ্যমে যেকোনো গাড়ি (প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, জিপ, মোটরসাইকেল) রেজিস্ট্রেশন নম্বর, মালিক-চালকের ছবি, ড্রাইভিং লাইসেন্স নম্বর, ফোন নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করা যায়। যাত্রীকেও অ্যাপ ইনস্টল করে জাতীয় পরিচয়পত্র ও মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে হয়। অ্যাপ ব্যবহার করে গাড়ি ডেকে সেবা নিলে নগদ টাকা, বিকাশ বা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ভাড়া পরিশোধ করা যায়। বিআরটিএ চেয়ারম্যান বলেন, সরকারের নীতি ডিজিটাল সেবাগুলোকে উৎসাহিত করা। এ পদ্ধতিতে গাড়ি ভাড়ার প্রযুক্তিকেও আইনের আওতায় এনে বৈধতা দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। চলতি মাসেই নীতিমালা প্রণয়নের কাজ শেষ হবে। নীতিমালা প্রণয়ন কমিটির প্রধান বিআরটিএর পরিচালক (এনফোর্সমেন্ট) নাজমুল আহসান জানান, কাজ শেষ করতে আর আট থেকে দশ দিন লাগবে। রাজধানীতে প্রয়োজনের তুলনায় ট্যাক্সি ক্যাব ও অটোরিকশার সংখ্যা কম। এ দুই বাহনের বিরুদ্ধে মিটার না মেনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং যাত্রীর পছন্দ অনুযায়ী গন্তব্যে না যাওয়ার অভিযোগ বহু পুরনো। আবার রাজধানীতে প্রাইভেট গাড়ির সংখ্যা অনেক বেশি। প্রাইভেট গাড়ি রাস্তার বেশির ভাগ জায়গা দখল করে রাখলেও এসব গাড়িতে লোক চলাচল নগণ্য। নতুন অ্যাপে প্রাইভেট গাড়িকে যাত্রী পরিবহনের কাজে লাগাতে পারলে বাস, অটোরিকশা ও ট্যাক্সির ওপর চাপ কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। একচেটিয়া আধিপত্য ঠেকাতে একাধিক প্রতিষ্ঠানকে অ্যাপভিত্তিক গাড়ি ভাড়ার পদ্ধতি নিয়ন্ত্রণের কাজ দিতে চায় বিআরটিএ।

Comments

Comments!

 বৈধ হচ্ছে অ্যাপভিত্তিক পরিবহন সেবাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

বৈধ হচ্ছে অ্যাপভিত্তিক পরিবহন সেবা

Saturday, June 3, 2017 11:55 pm
Taxi20170603183502

দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে মোবাইল ফোনে অ্যাপের মাধ্যমে পরিচালিত গাড়ি ও মোটরসাইকেল সেবা। ডাকলেই সাধ্যের মধ্যে ভাড়ায় গন্তব্যে পৌঁছার নিশ্চয়তা পাওয়া যাচ্ছে।

স্মার্টফোনে অ্যাপের মাধ্যমে গাড়ি ভাড়া করার এ পদ্ধতি আইনানুযায়ী বৈধ না হলেও রাজধানীর যান সংকটের কারণে জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

জনপ্রিয়তার কারণেই এ সেবাকে বৈধতা দিয়ে সরকারি নিয়ন্ত্রণে আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে নীতিমালা তৈরি করছে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। নীতিমালাটি সরকারের অনুমোদন পেলে উবারের মতো অ্যাপভিত্তিক গাড়ি ভাড়া করার পদ্ধতি বৈধতা পাবে। ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য নিবন্ধন নেওয়া মোটরগাড়ি ও মোটরসাইকেলে ভাড়ায় যাত্রী বহন করা যাবে।

বিআরটিএর চেয়ারম্যান মো. মশিয়ার রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আগে থেকেই ঢাকায় ছিল মোটরসাইকেল ভাড়া করার অ্যাপ ‘স্যাম’। গত বছরের ২২ নভেম্বর রাজধানীতে চলতে শুরু করে উবার ট্যাক্সিসেবা। সম্প্রতি এসেছে দেশীয় উদ্যোক্তাদের দ্বারা পরিচালিত ‘পাঠাও’ নামে আরও একটি অ্যাপ। উবারের মতো এ অ্যাপের মাধ্যমেও গাড়ি ভাড়া করা যায়। এসব অ্যাপের মাধ্যমে যেকোনো গাড়ি (প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, জিপ, মোটরসাইকেল) রেজিস্ট্রেশন নম্বর, মালিক-চালকের ছবি, ড্রাইভিং লাইসেন্স নম্বর, ফোন নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করা যায়। যাত্রীকেও অ্যাপ ইনস্টল করে জাতীয় পরিচয়পত্র ও মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে হয়। অ্যাপ ব্যবহার করে গাড়ি ডেকে সেবা নিলে নগদ টাকা, বিকাশ বা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ভাড়া পরিশোধ করা যায়।

বিআরটিএ চেয়ারম্যান বলেন, সরকারের নীতি ডিজিটাল সেবাগুলোকে উৎসাহিত করা। এ পদ্ধতিতে গাড়ি ভাড়ার প্রযুক্তিকেও আইনের আওতায় এনে বৈধতা দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। চলতি মাসেই নীতিমালা প্রণয়নের কাজ শেষ হবে।

নীতিমালা প্রণয়ন কমিটির প্রধান বিআরটিএর পরিচালক (এনফোর্সমেন্ট) নাজমুল আহসান জানান, কাজ শেষ করতে আর আট থেকে দশ দিন লাগবে।

রাজধানীতে প্রয়োজনের তুলনায় ট্যাক্সি ক্যাব ও অটোরিকশার সংখ্যা কম। এ দুই বাহনের বিরুদ্ধে মিটার না মেনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং যাত্রীর পছন্দ অনুযায়ী গন্তব্যে না যাওয়ার অভিযোগ বহু পুরনো। আবার রাজধানীতে প্রাইভেট গাড়ির সংখ্যা অনেক বেশি। প্রাইভেট গাড়ি রাস্তার বেশির ভাগ জায়গা দখল করে রাখলেও এসব গাড়িতে লোক চলাচল নগণ্য। নতুন অ্যাপে প্রাইভেট গাড়িকে যাত্রী পরিবহনের কাজে লাগাতে পারলে বাস, অটোরিকশা ও ট্যাক্সির ওপর চাপ কমবে বলে আশা করা হচ্ছে। একচেটিয়া আধিপত্য ঠেকাতে একাধিক প্রতিষ্ঠানকে অ্যাপভিত্তিক গাড়ি ভাড়ার পদ্ধতি নিয়ন্ত্রণের কাজ দিতে চায় বিআরটিএ।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X